• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • স্বামীর সঙ্গে বহুদিন দেখা হয়নি, মানসিক অবসাদের কথা লিখে আত্মহত্যা ডাক্তারি পড়ুয়ার

স্বামীর সঙ্গে বহুদিন দেখা হয়নি, মানসিক অবসাদের কথা লিখে আত্মহত্যা ডাক্তারি পড়ুয়ার

পুলিশও প্রাথমিক ভাবে মৃত্যুর কারণ হিসেবে সম্পর্কে বিশ্বাসভঙ্গের কথাই জানিয়েছে৷ এফআইআর দায়ের করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷ মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছেrepresentative image

পুলিশও প্রাথমিক ভাবে মৃত্যুর কারণ হিসেবে সম্পর্কে বিশ্বাসভঙ্গের কথাই জানিয়েছে৷ এফআইআর দায়ের করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷ মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছেrepresentative image

পুলিশ সূত্রের খবর, মৃতের স্বামীর সঙ্গে যোগাযোগ করে কি কারণে এই মৃত্যু তা জানার চেষ্টা করছে থানা।

  • Share this:

#কলকাতা: বৃহস্পতিবার লকডাউনের সকালে আর আহমেদ ডেন্টাল কলেজের পোস্ট গ্রাজুয়েট ট্রেনি দ্বিতীয় বর্ষের পড়ুয়ার দেহ উদ্ধার করল এন্টালি থানা। সকাল থেকেই ডেন্টাল কলেজের হোস্টেলের দরজা বন্ধ দেখে সন্দেহ হয় সহপাঠীদের। সকাল দশটার পরে দরজায় অনেকবার ধাক্কা দিলেও কোন সাড়া দেননি ২৭ বছরের মানসী মন্ডল। দুপুরের দিকে কোন উপায় না দেখে হস্টেলের তরফে খবর যায় এন্টালি থানায়। তদন্তকারী অফিসার ঘটনাস্থলে এসে দরজা বন্ধ দেখে দরজা ভেঙে দেন। দরজার ভাঙতেই পড়ুয়ার ঝুলন্ত মৃত দেহ উদ্ধার করে এন্টালি থানার অফিসার।

মৃত পড়ুয়ার পঞ্চম তলার ঘর থেকে উদ্ধার করা হয় একটি সুইসাইড নোট। সেই নোট উদ্ধার করার সঙ্গে সঙ্গে দুটি মোবাইল ও একটি ল্যাপটপ উদ্ধার করে পুলিশ। একপাতার সুইসাইড নোট দেখে ফুটে ওঠে মৃতের মানসিক অবসাদের কথা। তার এক পাতার সুইসাইড নোটে অবসাদের বিষয়টি জীবনের একাকিত্ব ও নিজস্বতা হারিয়ে ফেলার কথা কথা পড়ে তদন্তকারী নিশ্চিত হন ।

সেই কলেজের হোস্টেল সুপার রাজু বিশ্বাস জানান, সকালে ঘর থেকে ডাকাডাকি করার পরেও দরজা না খুলতেই পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ এসে দরজা ভেঙে দেহ উদ্ধার করে দেখে আত্মহত্যা করেছে মানসী।  মানসিক  অবসাদের কথা বর্তমান পরিস্থিতিতে মাঝে মধ্যেই বলতো বন্ধুদের।

পুলিশ সূত্রের খবর, মৃতের স্বামীর সঙ্গে যোগাযোগ করে কি কারণে এই মৃত্যু তা জানার চেষ্টা করছে থানা। বেশকিছু দিন ধরেই মানসী বন্ধুদের সঙ্গে  মানসিক  অবসাদ ও একাকিত্বর কথা বলত। পরিবারের সঙ্গে কথা বলার সময় একই বিষয় বারবার উঠে আসত। যদিও দুটি মোবাইল ও ল্যাপটপের মাধ্যমে আরও তথ্য উঠে আসতে পারে বলে মনে করেন তদন্তকারী অফিসার।

বৃহস্পতিবার তার ডিউটি থাকলেও সার্জারি বিভাগে যাননি মানসী মন্ডল। মনরোগ বিশেষজ্ঞ সব্যসাচী মিত্র বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে ডেন্টাল চিকিৎসকদের ঝুঁকি অনেকটাই বেশী। বর্তমান সময়ে অনেকেই  মানসিক  অবসাদের স্বীকার। পরিবেশ ও পরিস্থিতি মানিয়ে নেওয়াটাই দরকার। সম্ভবত মানসী মন্ডলের  মানসিক  পরিস্থিতি বুঝে উঠতে পারেনি তার ঘনিষ্ঠরা। তার একাকিত্বতা থেকেই অবসাদের শুরু হতে পারে। যদিও আদতে প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যা মনে হলেও কি কারনে এই ঘটনা তা স্পষ্ট হবে ময়নাতদন্তের রিপোর্টেই।

Susobhan Bhattacharya

Published by:Elina Datta
First published: