কাবুলে কি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছিলেন কলকাতার মেয়ে জুডিথ!

কাবুলে কি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছিলেন কলকাতার মেয়ে জুডিথ!

সমাজসেবার তাগিদে গত এগারো মাস ধরে কাবুলে ছিল কলকাতার মেয়ে। খুব তাড়াতাড়ি মেয়ের বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় ছিল এন্টালির ডি'সুজা পরিবার।

  • Share this:

#কলকাতা: সমাজসেবার তাগিদে গত এগারো মাস ধরে কাবুলে ছিল কলকাতার মেয়ে। খুব তাড়াতাড়ি মেয়ের বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় ছিল এন্টালির ডি'সুজা পরিবার। শুক্রবার সকালেই এল সেই আতঙ্কের খবর। কাবুলের রাস্তা থেকে অপহৃত বছর চল্লিশের জুডিথ ডি'সুজা।

আফগানিস্তানের কাবুল থেকে জুডিথ ডিসুজার অপহরণের খবরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে গোটা দেশে ৷ অহরহ আফগানিস্তানে জঙ্গি কার্যকলাপ, বোমা বিস্ফোরণের খবর পাওয়া যায় ৷ কিন্তু এদিন সকালে বাড়ির পাশের মেয়ের অপহরণের ঘটনায় রীতিমত চমকে উঠেছে সবাই ৷

উৎকণ্ঠার মধ্যেই ডি'সুজা পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন খোদ বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। এদিন দিল্লি থেকে একাধিকবার ফোনে জুডিথের পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন বিদেশমন্ত্রী। মেয়েকে উদ্ধারের ব্যাপারে আশ্বস্তও করেন তিনি।

শুক্রবার সকালে ভারতীয় দূতাবাসে অপহরণের অভিযোগ জানান জুডিথের দুই সহকর্মী। আগা খান ফাউন্ডেশনের চাকরির সূত্রে গত ১১ মাস ধরে কাবুলে থাকছিলেন জুডিথ। গোটা ঘটনায় তালিবান যোগের অভিযোগ উঠলেও জুডিথের ব্যাপারে এখনও অন্ধকারে আফগান প্রশাসন।

‘ভারতের মেয়ে জুডিথ’-কে ফিরিয়ে আনার আশ্বাস সুষমার

মহিলাদের স্বাস্থ্য ও লিঙ্গবৈষম্য নিয়ে কাজ করা জুডিথকে এর আগে হুমকির মুখেও পড়তে হয় তাঁকে। তবে গত কয়েক মাস ধরে কাবুলের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত ছিলেন তিনি। বিভিন্ন ফেসবুক বুক পোস্ট ও বন্ধুদের পাঠানো মেসেজেই তা স্পষ্ট। ৩ জুনের পোস্টে স্পষ্ট জুডিথের মনের অবস্থা ৷

‘কাবুলে নিরাপত্তার যা হাল, তাতে স্নুপিও এর চেয়ে ভালো নিরাপত্তা দিতে পারত।’ বলে একটি ফেসবুক পোস্ট করেন জুডিথ ডি’সুজা ৷

judith fb post1

শুধু তাই নয় ৷ এর আগেও পরপর একাধিক পোস্টে ফুটে ওঠেছে জুডিথের নিরাপত্তাহীনতা ৷

judith fb post2

jurith

তাহলে মহিলাদের ক্ষমতায়নের জন্য জুডিথের কাজ তালিবানিরা ভালো চোখে মেনে না নেওয়ায় কি তাঁর অপহরণ? আগে থেকেই কি এরকম কিছুর আঁচ পেয়েছিলেন জুনিথ? উঠছে একাধিক প্রশ্ন ৷ যদিও জুডিথের অপহরণের ঘটনায় এখনও ধন্দে সব পক্ষই ৷ কোনও তালিবানি সংগঠন এখনও পর্যন্ত এর দায় নেয়নি ৷

কাবুল থেকে কলকাতার মেয়েকে উদ্ধারে ইতিমধ্যেই তৎপরতা শুরু হয়েছে নয়াদিল্লিতে। কাবুলে ভারতীয় দূতাবাসের মাধ্যমে আফগান প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছে বিদেশমন্ত্রক ৷ ব্যক্তিগতভাবে গোটা ঘটনার তদারকির দায়িত্বে সাউথ ব্লকের আফগান ডেক্স হেড ৷ বৃহস্পতিবার রাতে অপহরণের পরও বেশকিছুক্ষণ অন ছিল জুডিথের মোবাইল। টাওয়ার লোকেশন ট্র্যাক করার চেষ্টা চলছে ৷ অপহরণের উদ্দেশ্য বুঝতে অপহরণকারী গোষ্ঠীকে চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে ৷

কাবুলে দূতাবাসের পাশাপাশি সেদেশে আরও ৪টি কনস্যুলেট রয়েছে ভারতের। হেরাট, কান্দাহার, জালালাবাদ ও মাজার-ই-শরিফে। কনস্যুলেটগুলোর সোর্সের মাধ্যমেও আফগানিস্তানজুড়ে জুডিথকে খোঁজার চেষ্টা চালাচ্ছে বিদেশমন্ত্রক।

First published: 06:23:34 PM Jun 10, 2016
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर