হোম /খবর /কলকাতা /
বুধবার যাদবপুরের ছাত্রভোট, অশান্তির আশঙ্কায় শান্তি বজায় রাখার আবেদন উপাচার্যের

বুধবার যাদবপুরের ছাত্রভোট, অশান্তির আশঙ্কায় শান্তি বজায় রাখার আবেদন উপাচার্যের

এবার এই প্রথম ইঞ্জিনিয়ারিং ও কলা বিভাগের প্রত্যেকটি আসনেই প্রার্থী দিয়েছে এবিভিপি।

  • Last Updated :
  • Share this:

#কলকাতা: তিন বছর পর বুধবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ভোট হতে চলেছে। সেই ভোটে শান্তিপূর্ণ ও গণতান্ত্রিক পরিবেশ বজায় রাখার আবেদন জানালেন খোদ উপাচার্য সুরঞ্জন দাস।বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকদের মতে এই প্রথম ছাত্র ভোটকে কেন্দ্র করে কোন উপাচার্য শান্তির আবেদন রাখলেন। এদিকে এবারের ছাত্র ভোটেই এবিভিপি,টিএমসিপি,এসএফআই সহ একাধিক ছাত্র সংগঠন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। মূলত গতবারের পর এবারেও বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা বিভাগের ছাত্র সংসদের ক্ষমতা এসএফআই ধরে রাখতে পারে নাকি সেদিকেই তাকিয়ে গোটা বিশ্ববিদ্যালয়।

 সিএএ বা সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন,এনআরসি, এনপিআর বিরোধী আন্দোলনের সামনের সারিতেই রয়েছেন যাদবপুরের পড়ুয়ারা।আর এবারের ছাত্রভোটে এই ইস্যুগুলোকে সামনে রেখেই নির্বাচনে জোরদার প্রচার করেছে এসএফআই,টিএমসিপি সহ স্বাধীন ছাত্র সংগঠন গুলি। সেই আবহে এবার যাদবপুরের ছাত্র ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে এবিভিপিও।মূলত কলা বিভাগের মূল চারটি আসন এবং ইঞ্জিনিয়ারিং এর মূল আসনগুলিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেমেছেন তারা।যাকে ঘিরে কৌতুহল বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়াদের মধ্যেও। অন্যদিকে টিএমসিপি ও কলা ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মূল আসনের আসনের প্রত্যেকটিতেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। তবে একাধিক ছাত্র সংগঠন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও লড়াই মূলত ত্রিমুুখী হবে বলেই বিশ্ববিদ্যালয়ের একাংশের মত। তবে নির্বাচনের আগেই অভিযোগ পাল্টা অভিযোগে সরব হয়েছে এসএফআই ও এবিভিপির সর্মথকরা। মূলত এবিভিপি পোস্টারের উপর কখনো এসএফআইয়ের পোস্টার সাঁটিয়ে দেওয়া আবার কখনো এসএফআইয়ের পোস্টার ছেঁড়ার অভিযোগ এবিভিপি'র বিরুদ্ধে।

অন্যদিকে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় বরাবরই যে শান্তিপূর্ণ ছাত্র ভোট হয় তা মনে করিয়ে দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য।তিনি জানান যাদবপুরে পড়ুয়ারা বহু বছর ধরেই সামাজিক ন্যায় ও সচেতনতা আন্দোলনে সামনের সারিতে রয়েছে।বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ভোটে যে সহযোগিতা  ও গঠনমূলক ঐতিহ্য রয়েছে এবারেও তা বজায় থাকবে। শান্তিপূর্ণ ও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় ভোট হবে বলেই  আশা প্রকাশ করেছেন সুরঞ্জন বাবু। আর এখানেই প্রশ্ন উঠছে কেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে শান্তির আবেদন রাখতেে হচ্ছে।বিশ্ববিদ্যালয়ের একাংশের মতে সাম্প্রতিক বেশ কিছু ঘটনার জেরে এবারের নির্বাচনে অশান্তির আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। গত সেপ্টেম্বরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় যাদবপুরে আসার পর যে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির তৈরি হয়েছিল  সেই ঘটনায়় ভাবাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে। সেই ঘটনায় এবিভিপি উপর ছাত্র সংসদ অফিস ভাঙচুরের  অভিযোগ উঠেছিল। তবে এদিন এবিভিপি তরফে জানানো হয়েছে ছাত্রভোটে বামেরা অশান্তি করলে তার বিরোধিতা করবে এবিভিপি।

SOMRAJ BANDOPADHYAY

Published by:Elina Datta
First published:

Tags: Jadavpur student union election, Jadavpur University, Jadavpur University election