'মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলার সংস্কৃতি বোঝেন না', চৈতন্যধামে বললেন জে পি নাড্ডা

'মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলার সংস্কৃতি বোঝেন না', চৈতন্যধামে বললেন জে পি নাড্ডা
নবদ্বীপে জেপি নাড্ডা। ছবি ট্যুইটার থেকে নেওয়া।

আত্মবিশ্বাসী নাড্ডা প্রমাণ করতে চাইলেন, বাংলার মানুষ পরিবর্তন চাইছে। তাঁর মতে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলার সংস্কৃতি বোঝেন না।

  • Share this:

    #নবদ্বীপ: নবদ্বীপের চটির মাঠ থেকে পরিবর্তন যাত্রা শুরু করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা। ট্যাবলোর যাত্রা শুরুর আগেই জনসভা থেকে তাঁর মুখে পরিবর্তনের পরিবর্তন আনার ডাক শোনা গেল আরও একবার।

    কয়েকঘণ্টা আগেই শুভেন্দু অধিকারীর গড়ে দাঁড়িয়ে ছদ্ম মনীষিপুজোর তোপ দেগে এসেছিলেন। বলেছিলেন যে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙে বিজেপি, তাকেই আবার পায়ে হাত দিয়ে প্রণামও করে। মালদহ থেকে চৈতন্যধামে এসে জে পি নাড্ডা কিন্তু শুরু করলেন মনিষীপুজো দিয়েই। ধাপে ধাপে শুরু হল আক্রমণ শানানো। গলা কখনও উচ্চগ্রামে নিয়ে, কখনও নীচু তারে বেঁধে আত্মবিশ্বাসী নাড্ডা প্রমাণ করতে চাইলেন, বাংলার মানুষ পরিবর্তন চাইছে। তাঁর মতে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলার সংস্কৃতি বোঝেন না।

    ‌এদিন যে পি নাড্ডা বলেন"কেন্দ্রের প্রকল্প নিজের নামে চালাচ্ছন মমতার। বাংলার মানুষ পরিবর্তন চান।" তাঁর যুক্তি, মমতা গেলে আয়ুষ্মান ভারত পাবে বাংলা।


    মমতা গেলে কিষাণ নিধি চালু হবেই। তাঁর উবাচ, বাংলায় পদ্ম ফুটবেই। তাঁর নতুন স্লোগান, আর নয় মমতা, পরিবর্তন চাইছে জনতা।

    নাড্ডা এদিন উষ্মাপ্রকাশ করেন জয় শ্রীরাম স্লোগান নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ক্ষুব্ধ হওয়ার বিষয়টি নিয়ে। তাঁর সরাসরি প্রশ্ন, "জয় শ্রীরাম বললে মমতা রাগ করেন করেন।" পাশাপাশি তাঁর অভিযোগ বাংলায় প্রশাসনের রাজনীতিকরণ হয়েছে। নাড্ডা বলেন, রাস্তায় যে অভ্যর্থনা পেলাম তা দেখেই বুঝলাম, মানুষ পরিবর্তন চায়। তিনি মনে করছেন, মা মাটি মানুষের সরকার নাকি মানুষেরই কোটি কোটি টাকা লুঠ করেছে, সম্মান নষ্ট হয়েছে মানুষের।

    ২১-এর নির্বাচনের আগে বিজেপির রথযাত্রার পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে পরিবর্তন যাত্রা। কোচবিহার থেকে কাকদ্বীপ, মোট ২৯৪ টি বিধানসভা কেন্দ্রেই ঘুরবে এই রথ। আজ জে পি নাড্ডা সেই রশিতেই টান দিলেন নবদ্বীপ থেকে। নবদ্বীপই কেন, রাজনৈতিক মহলের ধারণা এই পরিবর্তনযাত্রার শুরুয়াতে নবদ্বীপ বাছার মূল কারণ, লোকসভায় এখানে খুব ভালো ফল হয়নি বিজেপির। পর্যবেক্ষকরা বলছেন, জোন ধরে জনসংযোগ বাড়াতেই এই অস্ত্রপ্রয়োগ, পিছিয়ে থাকা নবদ্বীপ থেকেই।

    ৯ ফেব্রুয়ারি জেপি নাড্ডার নেতৃত্বেই পরিবর্তন যাত্রা হবে তারাপীঠ-ঝাড়গ্রাম থেকে। অন্য দিকে ১১ ফেব্রুয়ারি কাকদ্বীপ-কলকাতা রথযাত্রায় থাকার কথা অমিত শাহের। লোকসভা কেন্দ্র ধরে ২৫-৩০ দিন ধরে একেকটি যাত্রা চালাতে চাইছে বিজেপি।

    Published by:Arka Deb
    First published: