Home /News /kolkata /
Jai Hindi Bahini: স্বাধীনতা দিবসের আগেই বড় খবর! স্কুলে স্কুলে "জয়হিন্দ বাহিনী" তৈরির নির্দেশিকা স্কুল শিক্ষা দফতরের

Jai Hindi Bahini: স্বাধীনতা দিবসের আগেই বড় খবর! স্কুলে স্কুলে "জয়হিন্দ বাহিনী" তৈরির নির্দেশিকা স্কুল শিক্ষা দফতরের

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়রে ফাইল ছবি

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়রে ফাইল ছবি

Jai Hindi Bahini: এই জয়হিন্দ বাহিনী রাজ্য সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পেও কাজ করবে।

  • Share this:

#কলকাতা:  স্বাধীনতা দিবসের আগেই রাজ্যে নতুন বাহিনী গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা মাফিক রাজ্যে তৈরি হচ্ছে "জয় হিন্দ বাহিনী।" রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতর সম্প্রতি এই নির্দেশিকা জারি করেছে। নির্দেশিকায় জানিয়েছে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫ তম জন্মবর্ষপূর্তি উপলক্ষেই আজাদ হিন্দ ফৌজকে সম্মান জানানোর জন্য এই জয় হিন্দ বাহিনী রাজ্য সরকার গঠন করছে। নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে,  প্রতিটি স্কুলে বাধ্যতামূলকভাবে এই জয় হিন্দ বাহিনী গঠন করা হবে। তবে প্রাথমিকভাবে চারটি ব্যাটেলিয়ান তৈরি করা হচ্ছে চলতি আর্থিক বর্ষের জন্য। নির্দেশিকা জানিয়েছে ব্যারাকপুর ব্যাটেলিয়ান, কলকাতা ব্যাটেলিয়ান, জঙ্গলমহল ব্যাটেলিয়ান এবং উত্তরবঙ্গ ব্যাটেলিয়ন, এই চারটি ব্যাটেলিয়ান আপাতত তৈরি করা হচ্ছে জয় হিন্দ বাহিনীর জন্য।

নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত ছাত্রছাত্রীদের নিয়েই এই "জয় হিন্দ বাহিনী" গঠন করা হবে। মুখ্য সচিবের তরফে জারি করা নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, এই জয়হিন্দ বাহিনীর কার্যকারিতার জন্য বিভিন্ন স্তরে নজরদারি কমিটি থাকবে। রাজ্যস্তরে মুখ্য সচিবকে চেয়ারপার্সন করে ১৩ জন সচিবকে নিয়ে কমিটি তৈরি করা হয়েছে। যেখানে কলকাতা পুলিশের সিপিকেও রাখা হয়েছে বলেই সূত্রের খবর। রাজ্য স্তরের পাশাপাশি প্রতিটি জেলায় জেলাশাসকদের চেয়ারপার্সন এবং কলকাতাতে কলকাতা মিউনিসিপাল কর্পোরেশনের কমিশনারকে চেয়ারপার্সন করে ডিস্ট্রিক্ট লেভেল কমিটি করা হয়েছে।

এই জয়হিন্দ বাহিনী রাজ্য সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পেও কাজ করবে। নির্দেশিকা বলা হয়েছে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন সামাজিক ও দফতরগুলির প্রকল্প, দুয়ারে সরকার, বাল্যবিবাহ রোধ, জাতিগত বৈষম্য দূর করা, বিপর্যয়,বৃক্ষরোপণ,পণপ্রথার বিরুদ্ধে, শিশু শ্রমিক আটকানো, রাজ্য সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের প্রচার,সম্প্রীতি রক্ষা-সহ একাধিক ক্ষেত্রে কাজ করবে এই জয় হিন্দ বাহিনী। রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতরে তরফে জারি করা নির্দেশিকায় বলা হয়েছে প্রতিটি স্কুলে বাধ্যতামূলকভাবে এই জয়হিন্দ বাহিনী গড়ে তুলতে হবে। ১৫ অগাস্টকে জয় হিন্দ বাহিনীর প্রতিষ্ঠা দিবস হিসেবে পালন করার কথা বলা হয়েছে নির্দেশিকায়।

আরও পড়ুন- ভাইরাল মহুয়া মৈত্রর ব্যাগ! দামি ব্যাগ লোকানোর ভিডিও নিয়ে তৃণমূলকে কটাক্ষ বিজেপির

আরও পড়ুন- পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রীদের ১০ বার ফোন করলেও ফোন ধরেন না: অভিযোগ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর

পাশাপাশি এই জয়হিন্দ বাহিনীর পোশাক হবে নীল-সাদা। তবে এই জয় হিন্দ বাহিনীর গঠন প্রতিটি স্কুলে কী ভাবে হবে সে নিয়েও বিস্তারিত উল্লেখ করা হয়েছে নির্দেশিকায়। প্রতিটি স্কুলের উচ্চ-পর্যায়ের আধিকারিকরা একটি গ্রুপ তৈরি করবেন ইচ্ছুক ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে। তবে অভিভাবকদের সম্মতি নিয়েই ছাত্রছাত্রীদের নিতে হবে এই জয় হিন্দ বাহিনীতে। শুধুমাত্র এই প্রকল্পগুলির মধ্যেই জয়হিন্দ বাহিনীকে সীমাবদ্ধ রাখা হবে না। নবান্ন সূত্রে খবর কলকাতা পুলিশ তথা রাজ্য পুলিশকে ও বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করার কথা নির্দেশিকা উল্লেখ করা হয়েছে।

মূলত ট্রাফিক ব্যবস্থাকে পরিচালনা করা, বিভিন্ন উৎসবে ভিড়কে নিয়ন্ত্রণ করার মতো কাজগুলিও পরিচালনা করবে এই বাহিনী। এর পাশাপাশি এই বাহিনীর সঙ্গে যুক্ত ছাত্রছাত্রীরা পুলিশের সঙ্গে প্রয়োজনে অভ্যন্তরীন নিরাপত্তা, আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখা, ট্রাফিক কন্ট্রোল-এর মতো বিষয়গুলিও পরিচালনা করতে পারবে। এর জন্য জয়হিন্দ বাহিনীর  মধ্যে অন্তর্ভুক্ত হওয়া ছাত্রছাত্রীদের বিশেষভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। প্রশিক্ষণ দেবেন পুলিশেরই উচ্চ পদস্থ আধিকারিকরা। মূলত এই পরিস্থিতিকে কী ভাবে সামাল দিতে হবে, সেই মতো করেই এই বাহিনীর মধ্যে অন্তর্ভুক্ত ছাত্র-ছাত্রীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে বলেই নবান্ন সূত্রে খবর।

ইতিমধ্যেই কলকাতাতে যাঁরা মাস্টার ট্রেনার হবেন, তাঁদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার কাজ শুরু করেছেন কলকাতা পুলিশের উচ্চপদস্থ অফিসাররা। তবে শুধু জয়হিন্দ বাহিনী গঠন নয়, অংশগ্রহণকারী ছাত্র-ছাত্রী শিক্ষক স্কুলগুলিকেও পুরস্কৃত করা হবে রাজ্যের তরফে। শ্রেষ্ঠ ছাত্র ও ছাত্রী থেকে শুরু করে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক এবং শ্রেষ্ঠ অংশগ্রহণকারী স্কুলের জন্য থাকবে বিশেষ পুরস্কার।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Mamata Banerjee

পরবর্তী খবর