JNU-এ পড়ুয়াদের উপর হামলা, প্রতিবাদ মিছিলে সামিল যাদবপুরের পড়ুয়ারা

JNU-এ পড়ুয়াদের উপর হামলা, প্রতিবাদ মিছিলে সামিল যাদবপুরের পড়ুয়ারা
  • Share this:

#কলকাতা: JNU-র পড়ুয়াদের উপর হামলার প্রতিবাদে পথে নামল যাদবপুর ৷ জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে নক্কারজনক ‘দুষ্কৃতী’ হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয় কলকাতার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়েও ৷ JNU-র ঘটনা এবং তার পরবর্তী পুলিশের পদক্ষেপের প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখায় JU-র পড়ুয়ারা ৷ আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা নাগাদ দিল্লির জওহরলাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস ও তিনটি হস্টেলে ঢুকে তাণ্ডব চালায় একদল দুষ্কৃতি ৷ হামলায় মাথা ফেটেছে ছাত্র ইউনিয়নের সভানেত্রী ঐশী ঘোষের ৷ গুরুতর আহত আধ্যাপিকা সুচরিতা সেনও ৷ তাঁদের এআইআইএমএস-এ ভর্তি করা হয়েছে ৷ আহত আরও ২৩জন ছাত্রছাত্রীকে এআইআইএমএস এবং সফদরজঙ্গ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে ৷ জহওরলাল ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস ইউনিয়নের তরফে অভিযোগ, অতর্কিতে তাঁদের উপর হামলা চালায় একদল দুষ্কৃতী ৷ সকলেরই মুখ মুখোশে ঢাকা ছিল ৷ দুষ্কৃতীরা সকলেই অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদের আশ্রিত বলে জানিয়েছেন তাঁরা। সরাসরি এভিবিপি-র দিকে আঙুল তুলেছেন স্টুডেন্টস ইউনিয়নের সদস্যরা ৷

ছাত্রদের অভিযোগ এই ঘটনার পরেও কার্যত নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছে দিল্লি পুলিশ ৷ নিরস্ত্র ছাত্রছাত্রীদের উপর হামলা হওয়া সত্ত্বেও প্রায় তিন ঘণ্টা পর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ফ্ল্যাগ মার্চ করে পুলিশ ৷ এই ঘটনা সামনে আসতেই দেশ জুড়ে কঠোর সমালোচনা শুরু হয় ৷ তীব্র নিন্দায় সরব হন বিশিষ্টজন থেকে সাদারণ মানুষ প্রত্যেকেই ৷ ঘটনার ঘণ্টা তিনেক পর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয় দিল্লি পুলিশ ৷ ক্যাম্পাসের ভিতর ফ্ল্যাগ মার্চ শুরু করে তাঁরা ৷ বন্ধ করে দেওয়া হয় JNU-র মূল গেট বা নর্থ গেট ৷ অন্যদিকে দিল্লি পুলিশের সদর দফতরের সামনে ছাত্রছাত্রীদের বিশাল জমায়েত-বিক্ষোভ শুরু হয়ে যায় ৷ গোটা ঘটনার সাম্প্রতিক পরিস্থিতি জানতে চেয়ে রিপোর্ট চেয়েছে মানবাধিকার দফতর ৷ দিল্লি পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে কথা বলে JNU-র পরিস্থিতি সম্পর্কে খোঁজখবর নিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ৷ দিল্লির এআইআইএমএস এবং সফদরজঙ্গ হাসপাতালে গিয়ে পড়ুয়াদের সঙ্গে দেখা করেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধি, বৃন্দা করাট-সহ একাধিক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব ৷

First published: January 6, 2020, 12:25 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर