Home /News /kolkata /
Industrialization In Bengal: টার্গেট শিল্প, নবান্নের নজরে এবার 'পরিত্যক্ত' জমি

Industrialization In Bengal: টার্গেট শিল্প, নবান্নের নজরে এবার 'পরিত্যক্ত' জমি

রাজ্যের ৭ জেলার জেলাশাসকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, পরিত্যক্ত জমির দ্রুত সার্ভে করে রিপোর্ট জমা দেওয়ার, নবান্ন সূত্রে এমনটাই খবর।

  • Share this:

#কলকাতা: রাজ্যের টার্গেট শিল্পায়ন। আগামী এপ্রিল মাসের ২০ ও ২১ তারিখ রাজ্যে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বিশ্ব বাণিজ্য শিল্প সম্মেলন। সেই শিল্প সম্মেলনের দিকে তাকিয়েই এবার রাজ্য রিপোর্ট নিতে চলেছে জেলাজুড়ে কত পরিমাণে পরিত্যক্ত  জমি পড়ে রয়েছে (Industrialization In Bengal)। নবান্ন সূত্রে খবর, গত সপ্তাহে মুখ্যসচিব ৭ জেলার জেলা শাসকের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। উত্তর ২৪ পরগনা, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, পূর্ব মেদিনীপুর, বীরভূম,হাওড়া, হুগলি জেলার জেলাশাসকদের দ্রুত সার্ভে রিপোর্ট দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে (Industrialization In Bengal)। নবান্ন সূত্রে খবর, এই জেলাগুলিতে কত পরিমাণে পরিত্যক্ত জমি পড়ে রয়েছে, তা সার্ভে করতে বলা হয়েছে।

আরও পড়ুন: মঙ্গল থেকে বৃহস্পতি, টানা তিনদিন বন্ধ ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো পরিষেবা

একাধিকবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও বলেছেন এবার রাজ্যের লক্ষ্য শিল্পায়ন, কর্মসংস্থান। শুধু তাই নয়, রাজ্যে শিল্প নিয়ে আসতে বিনিয়োগকারীদের যে উৎসাহ দেওয়া হবে, তা নিয়েও বারবার বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। ইতিমধ্যেই শিল্প সংক্রান্ত কমিটির সঙ্গে একবার বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।অন্যদিকে মুখ্যসচিব উত্তরবঙ্গে বিজনেস সামিট করার পাশাপাশি কলকাতাতেও শিল্প সংক্রান্ত বৈঠক করেছেন বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, কনসাল জেনারেলদের সঙ্গে।

আরও পড়ুন: বিধানসভায় বিক্ষোভের পর স্বচ্ছতা অভিযান! বাজেটের দিনে দৃষ্টান্ত গড়ল বিজেপি

প্রসঙ্গত,  শিল্পের জন্য নির্ধারিত জমি, অথচ আইনি জটিলতায় দীর্ঘদিন ধরে জমি পড়ে রয়েছের, কিংবা  দীর্ঘদিন কোনও জমিতে কারখানা বন্ধ রয়েছে... এই সমস্ত জমির সার্ভে করতে বলা হয়েছে। নবান্ন সূত্রে খবর,  প্রাথমিকভাবে রাজ্য মনে করছে এই সাতটি জেলাতেই সবথেকে বেশি পরিতক্ত জমি পড়ে রয়েছে। সবথেকে বেশি পরিত্যক্ত জমি পড়ে রয়েছে পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমানে। এমনকী উত্তর ২৪ পরগনাতেও একাধিক শিল্প কাজে ব্যবহৃত পরিত্যক্ত জমি পড়ে রয়েছে। সেই জমিগুলিতেই নতুন করে কোনও শিল্প বা শিল্পপার্ক তৈরি করা যায় নাকি, তা নিয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু করেছে নবান্ন।

ইতিমধ্যেই পশ্চিম বর্ধমানের আসানসোলের "হিন্দুস্তান কেবলস" এর জমি নিয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে রাজ্য। যদিও সেই জমির মালিকানা কেন্দ্রের হাতে। ইতিমধ্যেই সেই জমির সার্ভে রিপোর্ট নবান্নতে পাঠানো হয়েছে বলেই সূত্রের খবর। বিশ্ব বাণিজ্য শিল্প সম্মেলনে সেই জমি নিয়েও বড়সড় ঘোষণা করতে পারে রাজ্য, তেমনটাই মনে করছে প্রশাসনিক মহল। অন্যদিকে পরিত্যক্ত জমিতে সার্ভে করে রাজ্যের "ল্যান্ড ব্যাঙ্ক" বাড়ানোও  অন্য একটি কারণ হতে পারে বলে মনে করছে প্রশাসনিক মহল। সেক্ষেত্রে বিশ্ব বাণিজ্য শিল্প সম্মেলনে দেশ-বিদেশের শিল্পপতিদের সামনে রাজ্যের ল্যান্ড ব্যাংককে আরও বিপুলভাবে সামনে নিয়ে আসা হবে যাতে শিল্পপতিরা সেইজমি গুলিতে বিনিয়োগ করতে উৎসাহী হয়। প্রশাসনিক মহলের একাংশের ধারনা, বিশ্ব বাণিজ্য শিল্প সম্মেলনের দিকে তাকিয়েই পরিত্যক্ত জমিগুলোর সার্ভে করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

SOMRAJ BANDOPADHYAY

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

Tags: Nabanna

পরবর্তী খবর