সরকারি জমি এবার ভাড়া দিচ্ছে রেল 

সরকারি জমি এবার ভাড়া দিচ্ছে রেল 

কোষাগারে টানাটানি। তাই সরকারি জমি লিজ দিয়ে আয়ের রাস্তা খুলতে চাইছে রেল। হাওড়া সহ রাজ্যের বেশ কয়েকটি স্টেশনে তা নিয়ে দেখা দিয়েছে তৎপরতা।

কোষাগারে টানাটানি। তাই সরকারি জমি লিজ দিয়ে আয়ের রাস্তা খুলতে চাইছে রেল। হাওড়া সহ রাজ্যের বেশ কয়েকটি স্টেশনে তা নিয়ে দেখা দিয়েছে তৎপরতা।

  • Share this:

#কলকাতা: কোষাগারে টানাটানি। তাই সরকারি জমি লিজ দিয়ে আয়ের রাস্তা খুলতে চাইছে রেল। হাওড়া সহ রাজ্যের বেশ কয়েকটি স্টেশনে তা নিয়ে দেখা দিয়েছে তৎপরতা। ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে আগ্রহ পত্র প্রকাশ করেছে রেলওয়ে ল্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অথরিটি বা RLDA।   হাওড়ার পাশাপাশি সিউড়ি, বালুরঘাট, মালদহ টাউন, মাদারিহাট, কাঁচড়াপাড়া ও দূর্গাপুর আছে এই তালিকায়। পূর্ব রেলের ৫ ও উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলের ২ স্টেশন এই তালিকায় থাকছে। গোটা দেশে প্রায় ৭০ টি শহরে এভাবে অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে থাকা রেলের জমি লিজ দিতে আগ্রহপত্র প্রকাশ করেছে RLDA।  লকডাউনের জেরে রেলের আয় তলানিতে। দীর্ঘ দিন হয়ে গেল যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল পুরোপুরি ভাবে কবে শুরু হবে তার কোনও নিশ্চিত সম্ভাবনা নেই।

পণ্য পরিবহণে জোর দেওয়া হলেও, আপাতত সেই পরিবহণের হার অন্যান্য বছর, বিশেষ করে গত বছরের তুলনায় ভীষণ কম। ফলে যে অধ্যায় থেকে আয় হয় সেই রাস্তা বন্ধ। অন্যদিকে, পরিকাঠামো  খরচ এবং কর্মীদের মাইনে সহ একাধিক খরচ রয়েছে। এই অবস্থায় আয় করতে না পারলে অবস্থা আরও শোচনীয় হবে বলে মনে করছে রেল। তাই এই পরিস্থিতিতে বিভিন্ন জায়গায় পড়ে থাকা রেলের জমি লিজ দিতে চলেছে। হাওড়া স্টেশনের উত্তর দিকে গঙ্গার ধার রয়েছে সল্ট পিট বা নুন গোলা। ব্রিটিশ আমলে এখানে লবণ এনে রাখা হত। লোকমুখে সেই জায়গা এখনও নুন গোলা বলেই পরিচিত হয়ে গেছে। স্টেশন থেকে দেড় কিলোমিটার দূরের সেই জমি এবার বাণ্যিজিক সংস্থাকে লিজ দিতে চলেছে রেল। প্রায় ৯০ হাজার বর্গমিটার জমি আছে এখানে। এই জায়গা পর্যটন কেন্দ্র বা মার্কেট কমপ্লেক্স হিসেবে গড়ে তুলতে পারা যায়। তাই কমপক্ষে ৩০ বছর ও সর্বাধিক ৯৯ বছরের জন্যে এই জমি লিজ দিতে আগ্রহ প্রকাশ করল রেল। জমিতে এখন ভগ্নপ্রায় আবাসন ও নুনের গোলা আছে। অন্যদিকে সিউড়ি, দূর্গাপুর, কাঁচড়াপাড়া, মালদহ টাউন, বালুরঘাট, মাদারিহাট এই সব স্টেশনে বানানো হবে মল বা কমপ্লেক্স। ইতিমধ্যেই শিয়ালদহ স্টেশনে শুরু হয়ে গেছে মল বা কমপ্লেক্স বানানোর কাজ। যে সব সংস্থা আগ্রহ প্রকাশ করবে, তাদের হাতে দ্রুত এই জমির লিজ স্থানান্তর করতে চায় রেল। আপাতত এই ভাবেই কোষাগার পূর্ণ করতে চায় রেল।
Published by:Akash Misra
First published:

লেটেস্ট খবর