corona virus btn
corona virus btn
Loading

দুশ্চিন্তা কাটল ছিটমহলবাসীর, শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনেই বিধানসভায় পাস ছিটমহল বিল

দুশ্চিন্তা কাটল ছিটমহলবাসীর, শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনেই বিধানসভায় পাস ছিটমহল বিল
Representational Image
  • Share this:

#কলকাতা: ছিটমহলের উন্নয়নে প্রতিশ্রুতি মতো টাকা দেয়নি কেন্দ্র। অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর। পাশাপাশি এনআরসি ইস্যুতে বিজেপিকেও নিশানা করেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর অভিযোগ, ইতিহাস ভুলিয়ে নাগরিকত্ব নিয়ে আতঙ্ক তৈরি করছে কেন্দ্র। আজ, সোমবার বিধানসভায় ছিটমহল বিল নিয়ে আলোচনায় এই অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী। এবার নাগরিকত্বের পাশাপাশি জমির অধিকারও পেলেন ছিটমহলের মানুষ।

খাতায় কলমে নাগরিকত্ব মিলেছিল। কিন্তু জমির অধিকার ছিল না। ছিটমহলবাসীর সেই দুশ্চিতা কাটল। শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনেই বিধানসভায় পাস হল ছিটমহল বিল। বিলের উপর আলোচনায় অংশ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, ছিটমহলবাসীর পুর্নবাসনে প্রতিশ্রুতি মতো ৪২৬ কোটি টাকা দেয়নি কেন্দ্র।

কেন্দ্রের টাকা বকেয়া। ছিটমহলে রাজ্য ১০১ কোটি টাকা খরচ করেছে। ছিটমহলবাসীর জন্য বাড়ি তৈরি হয়েছে। তবে কাজে কিছুটা দেরি হয়েছে।

২০১৫ সালে বাংলাদেশের সঙ্গে ছিটমহল চুক্তি বাস্তবায়িত করে কেন্দ্র। ১০০ তম সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে নাগরিকত্ব দেওয়ারও ঘোষণা হয়। এদিন সেই নাগরিকত্ব বিতর্ক হাতিয়ার করেই বিজেপিকে নিশানা মুখ্যমন্ত্রীর।

ছিটমহলবাসী ভারতের বৈধ নাগরিক। ১৯৭১ সালের আগে যাঁরা এদেশে আসেন, তাদেরও নাগরিকত্ব নিয়ে সংশয় নেই। ইন্দিরা-মুজিব চুক্তিই সেই স্বীকৃতি দিয়েছে। এনআরসি করে প্রকৃত ভারতীয়দের ওপর অত্যাচার হচ্ছে। ছিটমহল বিল নিয়ে রাজ্য সরকারের পাশে দাঁড়ায় কংগ্রেস ও বামেরা। নাগরিকত্ব নিয়ে কেন্দ্রের দ্বিচারিতার অভিযোগ তোলে রাজ্যের দুই বিরোধী দলও। জমির মালিকানা পাওয়ায় ছিটমহলের উন্নয়নে গতি আসবে। নতুন আশায় বুক বাঁধছেন ছিটমহলবাসীও।

First published: November 19, 2018, 6:25 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर