CM Letter to PM: 'বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকার খর্ব করা হচ্ছে', প্রধানমন্ত্রীকে ফের চিঠি মুখ্যমন্ত্রীর

CM Letter to PM: 'বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকার খর্ব করা হচ্ছে', প্রধানমন্ত্রীকে ফের চিঠি মুখ্যমন্ত্রীর

বিভিন্ন সময়ে রাজ্যের অধিকার খর্ব করা হচ্ছে তা নিয়ে একাধিকবার সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ বার শিক্ষা সংক্রান্ত বিষয় নিয়েও রাজ্যের অধিকার খর্ব করা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ জানিয়ে বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

বিভিন্ন সময়ে রাজ্যের অধিকার খর্ব করা হচ্ছে তা নিয়ে একাধিকবার সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ বার শিক্ষা সংক্রান্ত বিষয় নিয়েও রাজ্যের অধিকার খর্ব করা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ জানিয়ে বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

  • Share this:

#কলকাতা: বিভিন্ন সময়ে রাজ্যের অধিকার খর্ব করা হচ্ছে তা নিয়ে একাধিকবার সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ বার শিক্ষা সংক্রান্ত বিষয় নিয়েও রাজ্যের অধিকার খর্ব করা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ জানিয়ে বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিশেষত রাজ্যের কোনও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদেশি কোনও বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে কোনও রকম অনলাইন বা ভার্চুয়াল সেমিনার কনফারেন্স করতে গেলে কেন্দ্রের অনুমতি নিতে হবে। সেই নির্দেশেরই কার্যত প্রতিবাদ জানিয়ে বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জিডিতে রাজ্যের সঙ্গে যে একবারও আলোচনা করা হয়নি তা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি, শিক্ষা যৌথ তালিকাভুক্ত হওয়া সত্বেও রাজ্যকে না জানিয়েই এই ধরনের নির্দেশনামা জারি করছে তা নিয়েও নিজের ক্ষোভ জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। অবিলম্বে এই নির্দেশনামা প্রত্যাহারেরও দাবি করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বৃহস্পতিবারই পেট্রোপণ্যের দামবৃদ্ধি নিয়ে অভিনব প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এ দিন কালীঘাট থেকে নবান্ন পর্যন্ত ব্যাটারিচালিত স্কুটারে করে আসেন তিনি। লাগাতার পেট্রোপণ্যের দাম বৃদ্ধি নিয়ে কেন্দ্রকে করা আক্রমণ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সকালবেলাতেই এই অভিনব প্রতিবাদের পর পর এ বার বিশ্ববিদ্যালয়গুলির অধিকার খর্ব করা নিয়ে সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীকে পাঠানো চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লিখেছেন, "বিশ্ববিদ্যালয়গুলির অধিকার খর্ব করা হচ্ছে। রাজ্যকে না জানিয়েই নানা নিষেধাজ্ঞা জারি হচ্ছে। অনলাইন সেমিনার ওয়ার্কশপে বিভিন্ন রকম নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। কেন্দ্রের ভাবনা জোর করে চাপানো হচ্ছে। আন্তর্জাতিক স্তরে আলোচনার সুযোগ খর্ব হচ্ছে। উচ্চশিক্ষার অধিকার খর্ব করা হচ্ছে।" মূলত বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে যে চিঠি লিখেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাতে এমনই অভিযোগ করেছেন।

শুধু তাই নয় চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী প্রশ্ন তুলেছেন তাহলে কি 'এক দেশ এক মত' এটা কি জোর করে চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে? সূত্রের খবর, বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়গুলির সঙ্গে রাজ্যের কোনও বিশ্ববিদ্যালয় যদি কোনও আন্তর্জাতিক সেমিনার, ওয়ার্কশপ করতে চায় অনলাইনে তাহলে কেন্দ্রের অনুমতি নিতে হবে এমনই একটি নির্দেশনামা জারি করে কেন্দ্র। বিশেষত বিদেশের কোন অধ্যাপক বা কোন বিজ্ঞানীকে বসাতে গেলে সেক্ষেত্রে অনুমতি নিতে হবে। তারই প্রতিবাদ জানিয়ে বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লেখেন বলেই নবান্ন সূত্রে খবর। এ দিনে চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী আবেদন জানিয়েছেন আগামীদিনে এই ধরনের কোনও নির্দেশনা দেওয়ার আগে যেন রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে নেওয়া হয়।

SOMRAJ BANDOPADHYAY

Published by:Shubhagata Dey
First published:

লেটেস্ট খবর