কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

গুরুত্ব বাড়ছে কলকাতা চক্র রেলের 

গুরুত্ব বাড়ছে কলকাতা চক্র রেলের 

বিধাননগর, শিয়ালদহ স্টেশনে যারা আসেন তাদের প্রায় ৮০ শতাংশ যাত্রী ফের টার্মিনাল স্টেশন থেকে ছড়িয়ে পড়েন কলকাতা শহরের একাধিক জায়গায়।

  • Share this:

#কলকাতা: লোকাল ট্রেন চালু হলে চাপ কমতে পারে শিয়ালদহ স্টেশনের ওপরে। শহর কলকাতায় বিভিন্ন প্রান্তে যাত্রীদের পৌছে দিতে বিকল্প হিসেবে পরিষেবা বাড়ানো হতে পারে চক্ররেলের। একই সময়ে শিয়ালদহ উত্তর, মেন ও দক্ষিণ শাখা থেকে ট্রেন আসলে ভিড় হবে শিয়ালদহ স্টেশনে। ভিড় সামলানোর জন্যে রাজ্যের সাথে কথা বলে ক্রাউড ম্যানেজমেন্ট প্রটোকল তৈরি৷ করবে রেল। যদিও বিকল্প হিসেবে চক্ররেলকে আগে রাখছে তারা। বিধাননগর, শিয়ালদহ স্টেশনে যারা আসেন তাদের প্রায় ৮০ শতাংশ যাত্রী ফের টার্মিনাল স্টেশন থেকে ছড়িয়ে পড়েন কলকাতা শহরের একাধিক জায়গায়।

স্টেশন থেকে বেরিয়ে অটো, বাস, ট্যাক্সি ধরে তারা কলকাতার বিভিন্ন প্রান্তে কর্ম ক্ষেত্রে চলে যান। রেলের সমীক্ষা অনুযায়ী, একটা বড় অংশ শ্যামবাজার, বড়বাজার, ডালহৌসি,  বালিগঞ্জ, যাদবপুর চত্বরে যান। অনেকে শিয়ালদহ স্টেশনে নেমে ফের ট্রেন বদলে যাতায়াত করেন। এই বড় অংশের মানুষকে যদি চক্ররেল দিয়ে কলকাতা, টালা, বড়বাজার, বিবাদী বাগ, প্রিন্সেপ ঘাট সহ একাধিক স্টেশনে পৌছে দেওয়া যায় তাহলে শিয়ালদহ ওপরে একদিকে যেমন কমবে চাপ, ঠিক তেমনই মানুষের যাতায়াত সহজ হবে বলে ধারণা করছে রেল। ইতিমধ্যেই এই প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা হয়েছে। পূর্ব রেল সূত্রে খবর, গুরুত্ব বাড়ছে চক্ররেলের। চক্ররেলে বাড়ানো হতে পারে ট্রেনের সংখ্যা। বিধাননগর ও শিয়ালদহ স্টেশনের ওপর চাপ কমাতে এই লাইনের গুরুত্ব বাড়ানোর সম্ভাবনা।ইতিমধ্যেই পূর্ব রেল এই বিষয়ে আলোচনা সেরেছে। বিধাননগর ও শিয়ালদহ স্টেশনে আসা যাত্রীরা ট্রেন থেকে নেমে শহরের একাধিক জায়গায় যান।

চক্ররেলের বিভিন্ন স্টেশন থেকে শহরের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ জায়গা যুক্ত। ফলে লোকাল ট্রেনেই সবাই পৌছে যাবেন উত্তর, দক্ষিণে। টালা, কলকাতা, বাগবাজার স্টেশন থেকে শ্যামবাজার সহ উত্তরের একাধিক জায়গায় যাওয়া সম্ভব। শোভাবাজার ও বড়বাজার স্টেশন থেকে কলকাতার বাণিজ্যিক জায়গায় যাওয়া সম্ভব। বিবাদী বাগ, ইডেন গার্ডেন ও প্রিন্সেপ ঘাট স্টেশন থেকে সেন্ট্রাল কলকাতা বিজনেস ডিস্ট্রিক্ট আসা যাওয়া সহজ। এছাড়া এক ট্রেনেই চলে যাওয়া সম্ভব বালিগঞ্জ, যাদবপুর, মাঝেরহাট, নিউ আলিপুর। শিয়ালদহ ক্রাউড ম্যানেজমেন্ট নিয়ে ইতিমধ্যেই আলোচনা শুরু হয়েছে। সেক্ষেত্রে চক্র রেলের সংখ্যা বাড়লে

শিয়ালদহ স্টেশনের ওপর চাপ কমবে বলে মনে করা হচ্ছে।দীর্ঘদিন ধরে ডি আর এম শিয়ালদহ হিসেবে কাজ করে এসেছেন রেলওয়ে বোর্ডের প্রাক্তন আধিকারিক সুভাষ রঞ্জন ঠাকুর। তিনি জানাচ্ছেন, "এর চেয়ে ভালো সুযোগ আর পাওয়া যাবে না, চক্ররেলকে আরও মানুষের কাছে পৌছে দেওয়ার জন্যে। একেবারে বনগাঁ থেকে বজবজ, রাণাঘাট থেকে ডায়মন্ড হারবার চলে যাওয়া যাবে শিয়ালদহ স্টেশনে না ঢুকে। আর চক্ররেল ব্যবহার বাড়লে আগামী দিনে কলকাতার ট্রাফিক বা ক্রাউড ম্যানেজমেন্ট সুবিধাই হবে।" পূর্ব রেলের এক শীর্ষ কর্তার দাবি, তারা এই বিষয় নিয়ে ইতিমধ্যেই আলোচনা সেরেছেন। রাজ্যের সাথে আলোচনার মাধ্যমে বাকি বিষয়টি স্পষ্ট হবে।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: September 18, 2020, 11:22 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर