চিকিত্‍‌‍সা পরিষেবা স্বাভাবিক থাকবে, আগামিকালের ধর্মঘট স্থগিত রাখল আইএমএ

আইএমএ-র তরফে জানানো হয়েছে, দেশজুড়ে উদ্ভূত পরিস্থিতির জেরেই ধর্মঘট আপাতত স্থগিত রাখা হল৷ কাশ্মীরের পরিস্থিতি ও বিভিন্ন রাজ্যে বন্যার জেরে ধর্মঘট স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 07, 2019 05:16 PM IST
চিকিত্‍‌‍সা পরিষেবা স্বাভাবিক থাকবে, আগামিকালের ধর্মঘট স্থগিত রাখল আইএমএ
জাতীয় মেডিক্যাল কমিশন বিলের প্রতিবাদ
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 07, 2019 05:16 PM IST

#কলকাতা: দেশজুড়ে ধর্মঘট স্থগিত করল ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন৷ আগামিকাল অর্থাত্‍‌ বৃহস্পতিবার জাতীয় মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন বিলের প্রতিবাদে দেশজুড়ে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিল আইএমএ৷

আইএমএ-র তরফে জানানো হয়েছে, দেশজুড়ে উদ্ভূত পরিস্থিতির জেরেই ধর্মঘট আপাতত স্থগিত রাখা হল৷ কাশ্মীরের পরিস্থিতি ও বিভিন্ন রাজ্যে বন্যার জেরে ধর্মঘট স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷

ন্যাশনাল মেডিক্যাল কমিশন বিল ২০১৯-এর বিরুদ্ধে এ বার প্রতিবাদে গোটা দেশে ধর্মঘটের ডাক দেয় ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন৷ আগামিকাল অর্থাত্‍‌ বৃহস্পতিবার পশ্চিমবঙ্গে সব ওপিডি বন্ধ থাকবে বলেও জানায় আইএমএ৷

লোকসভার পর রাজ্যসভাতেও পাস হয়ে গিয়েছে NMC বিল৷ আইএমএ-র বক্তব্য, এই বিলের জেরে ডাক্তারদের আর কোনও কিছুর অধিকারই থাকবে না৷ দেশে ডাক্তারি শিক্ষা এবং পরিষেবার মান নিয়ন্ত্রণ এতদিন মেডিক্যাল কাউন্সিল অব ইন্ডিয়া করত। এই বিল এমসিআইকে ইতিহাসে পরিণত করতে চলেছে। জাতীয় মেডিক্যাল কমিশন বিলে, মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি প্রক্রিয়া থেকে শুরু করে মেডিক্যাল শিক্ষার মানোন্নয়নের ক্ষেত্রে নিয়ামক সংস্থা মেডিক্যাল কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া তুলে দেওয়া হবে। তার জায়গায় গঠিত হয়েছে জাতীয় মেডিক্যাল কমিশন।

এই বিল আইনে পরিণত হলে, কেন্দ্রীয় সরকারের যে কোনও পরামর্শ নিতে বাধ্য থাকবে এই জাতীয় মেডিক্যাল কমিশন। মোদী সরকারের বক্তব্য, চিকিৎসায় দুর্নীতি মুক্ত করতেই এই বিল৷ যদিও বিরোধীদের দাবি, চিকিত্‍‌সা ক্ষেত্রের রাশ নিজেদের হাতে রাখতেই এই বিল এনেছে মোদি সরকার। এমসিআই ছিল মূলত চিকিৎসকদের নিয়ে গঠিত, তাই স্বজনপোষণের অভিযোগ। নতুন কমিশনে যথেষ্ট সংখ্যায় অচিকিৎসক সদস্য অন্তর্ভুক্ত করে এবং তাঁদের হাতে ক্ষমতা তুলে দিয়ে নিশ্চিত করা হয়েছে বলে দাবি আইএমএ-র৷ এই বিলে চিকিৎসকদের স্বার্থ দেখা হবে না, রোগীর স্বার্থকেই অগ্রাধিকার দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

First published: 05:16:36 PM Aug 07, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर