প্রধানমন্ত্রীকে বলেছি CAA মানব না, প্রাণ থাকতে সিএএ নয়: মমতা

প্রধানমন্ত্রীকে বলেছি CAA মানব না, প্রাণ থাকতে সিএএ নয়: মমতা

বদলে গেল বিক্ষোভের অভিমুখ। সকাল থেকে CAA ও NRC বিরোধিতায় উত্তাল হয় শহর। সন্ধে নামতেই সব বিক্ষোভ মিশল রানি রাসমনি মোডে, তৃণমূলের ধর্নামঞ্চে।

  • Share this:

#কলকাতা: রাজভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠক। বৈঠক সেরেই রানি রাসমনি রোডে CAA বিরোধী ধর্নামঞ্চে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। CAA প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। রাজ্যে নাগরিকত্ব আইন থাকবে শুধু খাতায় - কলমে, বার্তা তৃণমূলনেত্রীর। পাল্টা মহম্মদ সেলিমের কটাক্ষ, সেটিং করতেই মিটিং করেছেন মমতা।

রাজভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেই রানি রাসমনি রোডে CAA বিরোধী মঞ্চে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে CAA প্রত্যাহারের অনুরোধ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে ইতিমধ্যেই CAA নিয়ে গেজেট নোটিফিকেশন প্রকাশ করেছে কেন্দ্র। এই পরিস্থিতিতে CAA নিয়ে মমতার বার্তা ৷

‘‘আমরা মোদিকে আমন্ত্রণ করিনি ৷ মোদি এখানে রাস্তা দিয়ে হাঁটেননি ৷ আমাদের কিছু করার ছিল না ৷ রাজ্যের বকেয়ার দাবিতে বৈঠক করি ৷ বৈঠকে বলে এসেছি CAA মানব না ৷ ছাত্ররা শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করুন ৷ পিএমকে বলেছি সিএএ মানব না- প্রাণ থাকতে caa নয় ৷ ’’

রাজ্যে CAA কার্যকর হবে না বলে অনেক আগেই ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। CAA প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলনের ঘোষণাও করেছেন। এরই মধ্যে নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক। দুই প্রশাসনিক প্রধানের বৈঠক নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করে রাজ্যের বিরোধী দলগুলো।

‘সেটিং করতেই মিটিং ৷ মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠক প্রত্যাহার করা উচিত ছিল ৷ ’ এমনটাই মন্তব্য সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিমের ৷

CAA, NRC সহ কেন্দ্রের নীতির বিরোধিতায় ডাকা ধর্মঘটে একযোগে রাস্তায় নামে বাম-কংগ্রেস। মমতা-মোদি বৈঠক ঘিরেই দুই দলের এক সুর।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, মমতা-মোদির বৈঠকে রাজ্য বিজেপিরই অস্বস্তিতে পড়ার কথা। রাজ্য রাজনীতির কথা মাথায় রেখেই দিলীপ ঘোষদের বার্তা এসেছে।

মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে প্রশাসনিক দায়িত্ব আর তৃণমূলনেত্রী হিসাবে দায়িত্ব - দুটো একেবারে আলাদা বিষয়। মমতা তরফে যদি সেই বার্তা দেওয়ার তাগিদ থাকে, তা হলে নিজেদের মতো করে ঘুঁটি সাজাচ্ছে বিরোধীরাও।

First published: 10:21:07 PM Jan 11, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर