অন্য মেয়ের সঙ্গে স্বামীর সম্পর্ক, জেনে ফেলায় গৃহবধূকে পিটিয়ে মেরে দেহ ঝুলিয়ে দিল স্বামী

অন্য মেয়ের সঙ্গে স্বামীর সম্পর্ক, জেনে ফেলায় গৃহবধূকে পিটিয়ে মেরে দেহ ঝুলিয়ে দিল স্বামী
প্রতীকী চিত্র ৷

স্বামীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের প্রতিবাদ করার জন্যই গৃহবধূ জবা সোনাকে পিটিয়ে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন মৃতার বাপের বাড়ির সদস্যরা।

  • Share this:

#নরেন্দ্রপুর: এক গৃহবধূকে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ উঠল স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের বিরুদ্ধে। পিটিয়ে খুনের পর দেহ গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন মৃতার মা কবিতা মণ্ডল। স্বামীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের প্রতিবাদ করার জন্যই গৃহবধূ জবা সোনাকে পিটিয়ে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন মৃতার বাপের বাড়ির সদস্যরা। বুধবার ঘটনাটি ঘটে নরেন্দ্রপুর থানার অন্তর্গত খেয়াদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের হরপুরে। ঘটনার খবর পেয়ে নরেন্দ্রপুর থানার পুলিশ দেহ উদ্ধার করেছে। দেহ বৃহস্পতিবার ময়নাতদন্তের জন্য পাঠাবে পুলিশ। এই ঘটনায় মৃতার স্বামী বিপ্লব সোনাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মৃতার পরিবারের অভিযোগ, বছর চারেক আগে প্রেম করে বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে বিপ্লব ও জবা বিয়ে করেছিল। বিয়ের পর তাঁরা বাড়িতে ফিরে এলে জবার পরিবারের তরফ থেকে বিপ্লব ও তাঁর পরিবারকে নগদ ত্রিশ হাজার টাকা ও বেশ কিছু সোনার গহনা দেওয়া হয় যৌতুক হিসেবে। কিছুদিন ঠিকঠাক থাকার পর বিপ্লব ও তার পরিবারের লোকেরা আরও টাকা পয়সা বাপের বাড়ি থেকে নিয়ে আসার জন্য জবার উপর চাপ দিতে থাকে। তা না আনায় বিভিন্ন ভাবে শারীরিক নির্যাতন শুরু করে শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। খেতে, পড়তে দেওয়া এমনকি অসুস্থ হলে চিকিৎসাও করানো হত না বলে দাবী মৃতার পরিবারের। এরই মধ্যে বিপ্লব অন্য মহিলার সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। ঘটনার কথা জেনে যাওয়ায় প্রতিবাদ করে জবা। আর সেই প্রতিবাদ করার কারণেই তার উপর অত্যাচারের মাত্রা কয়েকগুণ বেড়ে যায়। অবশেষে তাঁকে পিটিয়ে খুন করা হয় বলে অভিযোগ করেছেন মৃতার মা কবিতা মণ্ডল। অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে নরেন্দ্রপুর থানার পুলিশ।

First published: 03:00:10 PM Aug 22, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर