জঙ্গলমহল-আসানসোল-ব্যারাকপুর || লোকসভায় বিজেপির সাজানো বাগান যেভাবে তছনছ করল তৃণমূল

স্ট্রিটফাইটার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জয় এনেছে তাঁর এই ইমেজই।

২০২১ সালের বিধানসভা ভিত্তিক ফল বিশ্লেষণ করে দেখা যাচ্ছে, ৫টি লোকসভা আসনে বিজেপির থেকে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে তৃণমূল।

  • Share this:

#কলকাতা: ২০১৯ লোকসভা ভোটে জঙ্গলমহল, ব্যারাকপুর ও আসানসোল শিল্পাঞ্চলে ব্যাপক পরাজয় হয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেসের। লোকসভা ভিত্তিক ফল বিশ্লেষণে দেখা গিয়েছিল একের পর এক বিধানসভা হাতছাড়া হয়েছে জোড়া ফুল শিবিরের। কিন্তু এ এক উলাটপুরাণ। ২০২১ সালের বিধানসভা ভিত্তিক ফল বিশ্লেষণ করে দেখা যাচ্ছে, ৫টি লোকসভা আসনে বিজেপির থেকে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে তৃণমূল। ভেঙে বললে, ৫ লোকসভার ৩৫ বিধানসভায় আসনে মধ্যে তৃণমূল পেয়েছে ২৯টি। বিজেপি পেয়েছে ৬ টি। বিধানসভাওয়ারি বিচারে লোকসভা ভোটে বিজেপি পেয়েছিল ২৪ আসন। তৃণমূল পেয়েছিল ১১ আসন।

ধরা যাক মেদিনীপুর আসনের কথা। লোকসভা ভোটে বিধানসভা ভিত্তিক ফল বিশ্লেষণে দেখা গিয়েছিল বিজেপির হাতে রয়েছে ৪ আসন। তৃণমূলের হাতে রয়েছে ৩ আসন। এটি বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের আসন। তিনি সাংসদ হয়ে যাওয়ার পরে এই লোকসভার মধ্যে থাকা খড়গপুর সদর আসনে পুনঃ নির্বাচন হয়। সেখানে জেতে তৃণমূল কংগ্রেস। বিধানসভা ভোটে ফল বেরনোর পরে দেখা যাচ্ছে, এই লোকসভার বিধানসভা ভিত্তিক ফলে বিজেপির হাতে থাকছে একটি আসন। সেটি খড়গপুর সদর। আর তৃণমূলের হাতে রয়েছে ৬ আসন- সবং, ডেবরা, নারায়ণগড়, পিংলা, খড়গপুর গ্রামীণ ও মেদিনীপুর সদর। ফলে এখানে খেলার ফল বিজেপি ১, তৃণমূল ৬।

এবার নজর রাখা যাক ঝাড়গ্রাম আসনে। ঝাড়গ্রাম লোকসভায় বিধানসভা ভিত্তিক ফল ছিল বিজেপির ৬ আসন। তৃণমূলের ১ আসন। বিধানসভা ভোটের ফল বেরনোর পরে দেখা গেল বিজেপি পেয়েছে শালবনী আসন। তৃণমূল কংগ্রেস পেয়েছে গোপীবল্লভপুর, বিনপুর, নয়াগ্রাম, ঝাড়গ্রাম, বান্দোয়ান ও গড়বেতা আসন। ফলে বিধানসভা ভিত্তিক ফল বিশ্লেষণে দেখা গেল এই লোকসভায় তৃণমূলের দখলে ৬ বিধানসভা ও বিজেপির হাতে ১ বিধানসভা আসন।

চোখ রাখা যেতে পারে আসানসোল লোকসভা আসনে যা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় আসনও বটে। ২০১৪ ও ২০১৯ দু'বারই এখান থেকে জয় হাসিল করেছে বিজেপি। ২০১৯ লোকসভায় দেখা গেছে এই আসনের ৭ বিধানসভায় বিজেপি পেয়েছিল ৬টি। একটি আসন পেয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস। ২০২১ এর বিধানসভা ভোটের ফল বিশ্লেষণে দেখা যাচ্ছে, এই লোকসভায় মাত্র দুটি বিধানসভায় জিত হাসিল করেছে বিজেপি। তৃণমূলের দখলে ৫ বিধানসভা আসন। বিজেপি পেয়েছে আসানসোল দক্ষিণ ও কুলটি। তৃণমূল পেয়েছে রাণিগঞ্জ, বারাবনি, জামুরিয়া, পান্ডবেশ্বর ও আসানসোল উওর। ফলে বিজেপির হাতে থাকল ২ ও জোড়াফুলের দখলে থাকল ৫ আসন।

একবার দেখে নেওয়া যাক বর্ধমান-দূর্গাপুর আসন। এই লোকসভা আসনে বিজেপি পেয়েছিল ৩ আসন ও তৃণমূল পেয়েছিল ৪ আসন। তৃণমূল সাংসদ দল বদল করে নাম লেখান বিজেপি'তে। আর বিধানসভা ভোটের ফল বিশ্লেষণের পর দেখা গেল বিজেপির দখলে মাত্র ১ বিধানসভা দূর্গাপূর পশ্চিম। তৃণমূলের দখলে ৬ আসন।  দূর্গাপুর, গলসি, বর্ধমান উত্তর, বর্ধমান দক্ষিণ, ভাতার ও মন্তেশ্বর।

সকলের নজরে ছিল ব্যারাকপুর আসনে। গত দু'বছর ধরে অর্জূন গড়ে সবচেয়ে বেশি অশান্তি হয়েছে। শিল্পাঞ্চলের এই আসন কার্যত বিজেপির থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে তৃণমূল। ২০১৯ লোকসভা ভোটে বিজেপি এখানে পেয়েছিল ৫ বিধানসভা আসন। তৃণমূল পেয়েছিল ২ বিধানসভা আসন। ২০২১ বিধানসভার আসন বিশ্লেষণের পর দেখা গেল, বিজেপির দখলে ১ ও তৃণমূলের দখলে ৬ আসন। বিজেপি পেয়েছে অর্জূনের বাড়ির আসন ভাটপাড়া আসনটি। তৃণমূল পেয়েছে বীজপুর, নৈহাটি, জগদ্দল, নোয়াপাড়া, ব্যারাকপুর ও আমডাঙা আসন।

তবে বিপুল সাফল্যেের পরে ঔদ্ধত্য নয় বরং বিধায়কদের আরও দায়িত্বশীল হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন মমতা বন্দোপাধ্যায়।

Published by:Arka Deb
First published: