পঞ্চায়েত ভোটে নিরাপত্তা নিয়ে নয়া তথ্য, ১৯ শতাংশ বুথে লাগবে না কোনও বাহিনী !

পঞ্চায়েত ভোটে নিরাপত্তা নিয়ে নয়া তথ্য, ১৯ শতাংশ বুথে লাগবে না কোনও বাহিনী !

File Image

পঞ্চায়েত ভোটে নিরাপত্তা নিয়ে নয়া তথ্য, ১৯ শতাংশ বুথে লাগবে না কোনও বাহিনী !

  • Share this:

    #কলকাতা: কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চের নির্দেশে 14 মে ভোট হওয়া নিয়ে তৈরি হয়েছে সংশয়। রাজ্যে পঞ্চায়েত ভোটে নিরাপত্তা নিয়ে কমিশনের প্রশ্নের উত্তরে সন্তুষ্ট নয় আদালত। তাই আপাতত ভোট নিয়ে সিদ্ধান্ত প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চের হাতে। আসন্ন পঞ্চায়েত ভোটের নিরাপত্তা সংক্রান্ত একাধিক প্রশ্নের মাঝে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে মিলল নয়া তথ্য। ১৯ শতাংশ বুথে লাগবে না কোনও বাহিনী। কারণ সেখানে কোনও ভোট নেই ।

    নবান্নকে নির্বাচন কমিশন জানাল, ৫৮ হাজার ৪৬৭ টি বুথের মধ্যে ১১ হাজার ১৬ টি বুথে ভোট হবে না। যা শতকরা হিসাবে ১৮.৮৪ %। এছাড়া মোট ৪৩ হাজার ০৬৭ টি ভোট গ্রহন কেন্দ্রের মধ্যে ৮ হাজার ১০৫ টিতে কোন ভোট নেওয়ার দরকার হবে না। শতকরা হিসাবে যা ১৮.৮২ % । ফলে ওই বুথ গুলির জন্য সশস্ত্র বাহিনীর দরকার পড়বে না।

    আরও পড়ুন

    ১৪ মে পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে অনিশ্চয়তা, এবার নির্বাচনের দিন চুড়ান্ত করবে কলকাতা হাইকোর্ট

    গতকাল নিরাপত্তা ও বাহিনী ইস্যুতে বৈঠকে কমিশনের কাছে মোট কত বুথ ও ভোট গ্রহন কেন্দ্রে ভোট করার দরকার হবে না, তা জানতে চেয়েছিলেন ডিজি। সোমবার পঞ্চায়েত ভোটের নিরাপত্তার বিষয়টি খতিয়ে দেখতে কলকাতা পুলিশের ডিজির সঙ্গে বৈঠক করে নির্বাচন কমিশন ৷ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রসচিবসহ এডিজি আইনশৃঙ্খলা অনুজ শর্মাও ৷ কত নিরাপত্তা বাহিনী প্রয়োজন সেই প্রশ্নের উত্তরেই নবান্নকে এদিন বিস্তারিত তথ্য দেয় নির্বাচন কমিশন।

    কমিশনের তথ্য খতিয়ে দেখছে নবান্ন।মনোনয়ন প্রত্যাহার ও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় শাসক দল জিতে যাওয়ার জন্য এই ১৯ শতাংশ বুথ ও ভোট গ্রহণ কেন্দ্রগুলিতে ভোট করার দরকারই পড়বে না। আর সে কারনেই বাহিনী সংখ্যাও প্রয়োজনের তুলনায় অনেকটাই কম লাগবে বলে মনে করছে কমিশন।

    First published: