• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • HOW MADHYAMIK EXAMINATION WILL BE HELD THIS YEAR IN PANDEMIC QUESTION RAISED SS

Madhyamik Examination: জুনে মাধ্যমিক নিয়ে অনিশ্চয়তা! পরীক্ষার বদলে কী ভাবে নম্বর? চাওয়া হল পর্ষদের মতামত

ছবি- সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

পরীক্ষা না হলে ছাত্র-ছাত্রীদের কী ভাবে নম্বর দেওয়া হবে, তা নিয়ে স্কুল শিক্ষা দফতরের তরফে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের কাছে মতামত চাওয়া হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

  • Share this:

কলকাতা: ১ জুন থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হওয়া কার্যত অসম্ভব। এমনটাই মনে করছে পর্ষদ। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে একাধিক জটিলতার মুখে পড়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। বিশেষত লোকাল ট্রেন পরিষেবা বন্ধ হয়ে যাওয়াতে সমস্যার মুখে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। পাশাপাশি করোনা পরিস্থিতিতে সরকারি আধিকারিকও কী করে পাওয়া যাবে তা নিয়ে চিন্তিত পর্ষদ। প্রত্যেকটি পরীক্ষা কেন্দ্রে একজন করে সরকারি আধিকারিক থাকেন পরীক্ষা পরিচালনার জন্য। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে তা পাওয়া কার্যত অসম্ভব বলেই মনে করছে পর্ষদ। অন্যদিকে পরীক্ষা না হলে ছাত্র-ছাত্রীদের কী ভাবে নম্বর দেওয়া হবে, তা নিয়ে স্কুল শিক্ষা দফতরের তরফে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের কাছে মতামত চাওয়া হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হওয়ার আগেই বিভিন্ন জেলাতে উত্তরপত্র পাঠাতে হয় পর্ষদের। তা পাঠাতে হয় মূলত ট্রেনের মাধ্যমেই। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তা পাঠানো সম্ভব হয়নি, কারণ রেল এখনও পর্যন্ত কোনও বুকিং নেয়নি উত্তরপত্র পাঠানোর জন্য পর্ষদের থেকে। পর্ষদ সূত্রে এমনটাই খবর। পর্ষদ সূত্রে জানা গিয়েছে, যেহেতু লোকাল ট্রেন পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বর্তমান করোনা পরিস্থিতির জন্য, তাই রেল আপাতত বুকিং নিচ্ছে না উত্তরপত্র পাঠানোর জন্য পর্ষদের থেকে। গত কয়েক বছর ধরেই মাধ্যমিকের বিভিন্ন পরীক্ষা কেন্দ্রে একজন করে সরকারি আধিকারিক থাকে মূলত পরীক্ষা ব্যবস্থা পরিচালনার জন্য। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে সেটাও কি করে পাওয়া সম্ভব তা নিয়ে চিন্তিত পর্ষদ। পর্ষদ সূত্রে জানা গিয়েছে এবারের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ১২ লক্ষ। পাশাপাশি বর্তমান করোনা পরিস্থিতির জন্য গতবারের তুলনায় এবার পরীক্ষা কেন্দ্রের সংখ্যা আরও বাড়ানো হয়েছে। গতবার যেখানে ২৮৩৯ পরীক্ষা কেন্দ্র ছিল এবার তা বাড়িয়ে ৪ হাজার করা হয়েছে বলেই পর্ষদ সূত্রের খবর।

যদিও পরীক্ষার যাবতীয় প্রস্তুতি কার্যত শুরু করে দিয়েছিল পর্ষদ। করোনা পরিস্থিতিতে প্রত্যেকটি ঘরে কতজন করে ছাত্র-ছাত্রী বসবেন তা নিয়েও সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করে ফেলেছিল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে যে হারে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে সে ক্ষেত্রে পরীক্ষা নেওয়াটা যে যথেষ্ট ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে তা নিয়ে উদ্বিগ্ন মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। যদিও পরীক্ষা না নেওয়ার ব্যাপার নিয়ে নিয়ে রাজ্যের তরফে এখনও পর্যন্ত কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। পাশাপাশি স্কুল শিক্ষা দফতরের তরফেও মতামত চাওয়া হয়েছে পর্ষদের ৷ যদি পরীক্ষা নেওয়া হয় তাহলে কী ভাবে ছাত্র-ছাত্রীদের নম্বর দেওয়া যেতে পারে। পর্ষদ সূত্রের খবর, পরীক্ষা না হলে মাধ্যমিকের নম্বর কী ভাবে মার্কশিটে দেওয়া হবে, তা নিয়েও রীতিমতো চিন্তিত পর্ষদের আধিকারিকরা। সে ক্ষেত্রে নবম শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষার রেজাল্টের উপরেই কি নির্ভর করছে এবারের মাধ্যমিকের নম্বর? তা নিয়েই আলোচনা শুরু করেছেন পর্ষদ আধিকারিকরা বলেই সূত্রের খবর।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: