corona virus btn
corona virus btn
Loading

শিক্ষামন্ত্রীর চিঠি রাজ্যপালকে, "এটা উত্তর প্রত্যুত্তরের সময় নয়,’’ ট্যুইট রাজ্যপালের

শিক্ষামন্ত্রীর চিঠি রাজ্যপালকে,
Photo Courtesy: Jagdeep Dhankhar/Twitter Handle

রবিবার রাজ্যপাল কে চিঠি দিলেন শিক্ষামন্ত্রী। সেই চিঠি ট্যুইটও করলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

  • Share this:

Somraj Banerjee

#কলকাতা: রবিবার বিশ্ববিদ্যালয়গুলি সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে চিঠি দিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সেই চিঠি ট্যুইটও করেন শিক্ষামন্ত্রী। শিক্ষামন্ত্রীর ট্যুইট-এর কিছুক্ষণের মধ্যেই পাল্টা ট্যুইট করেন রাজ্যপাল। ট্যুইট-এ বুঝিয়ে দেন চিঠিতে সন্তুষ্ট নন তিনি।

রাজ্যপালকে পাঠানো চিঠিতে শিক্ষামন্ত্রী বলেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা এনআরসি ও সিএএ বিরোধিতা ও প্রত্যাহার চেয়ে আন্দোলন করছেন। শুধু যাদবপুর নয়, সমগ্র রাজ্যবাসী চায় সিএএ এবং এনআরসি প্রত্যাহার করা হোক। চিঠিতে এমনই লিখে রাজ্যপালকে উত্তর দিলেন শিক্ষামন্ত্রী।

শুধু তাই নয়, বিশ্ববিদ্যালয়গুলির কেন সমাবর্তন বাতিল বা বিভিন্ন বৈঠক স্থগিত করে দিচ্ছে তারও ব্যাখ্যা দিয়েছেন চিঠিতে শিক্ষামন্ত্রী।গত একবছরে স্কুল ও উচ্চ শিক্ষার সামগ্রিক খতিয়ান ও রাজ্যপালকে পাঠালেন তিনি। যদিও শিক্ষামন্ত্রীর চিঠিতে সন্তুষ্ট নয় রাজ্যপাল। ট্যুইট করে তিনি জানিয়েছেন, "এটা উত্তর প্রতুত্তরের সময় নয় ৷’’ তিনি এও বলেন, ‘‘মুখ্যমন্ত্রীর চিঠিতে দূরদৃষ্টির আভাস পেয়ে ছিলাম। আশা করি সমস্যা মিটবে।’’

একের পর এক বিষয় নিয়ে রাজ্য রাজ্যপাল সংঘাত চলছেই। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে শিক্ষাকর্মীদের একাংশের বাধাতে সমাবর্তনে যোগ দিতে পারেননি রাজ্যপাল। শুধু তাই নয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈঠকেও তিনি যোগ দিতে পারেননি।

যার পর তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে ১৫ দিনের মধ্যে আলোচনায় বসার আহ্বানও জানান। শুধু তাই নয়, আলোচনায় বসার জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠিও পাঠান রাজ্যপাল। চিঠি পাঠানোর একদিনের মধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যপালকে জানিয়ে দেন, এই বিষয়ে যা বলার শিক্ষামন্ত্রী সময়মতো রাজ্যপালের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন।

শনিবার মুখ্যমন্ত্রীর পাঠানো সেই চিঠির ট্যুইটও করেন রাজ্যপাল। টুইট করে তিনি শনিবার জানান শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার অপেক্ষায় রয়েছেন। যদিও শনিবার বিকেলেই শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন আলোচনা নয় আপাতত চিঠি দিয়েই তিনি তার বক্তব্য জানাবেন রাজ্যপালকে। সেই মতো রবিবারই শিক্ষা মন্ত্রী চিঠি পাঠিয়ে দেন রাজ্যপাল কে। চিঠিতে তিনি গত এক বছরের রাজ্য স্কুল এবং উচ্চ শিক্ষার সামগ্রিক উন্নয়ন খতিয়ান পেশ করেন। চিঠিতে এও জানান যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া এনআরসি এবং সিএএ প্রত্যাহার চেয়ে আন্দোলন করছেন। সমগ্র রাজ্যবাসী চাই এনআরসি এবং সিএএ প্রত্যাহার করা হোক। তিনি এও বলেন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর স্বশাসিত। প্রয়োজন বুঝে বিশ্ববিদ্যালয়গুলি যা সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন সেটা তাদের ব্যাপার। যদিও শিক্ষামন্ত্রী এই চিঠিতে সন্তুষ্ট নন রাজ্যপাল। রবিবার শিক্ষামন্ত্রী চিঠির ট্যুইট-এর পরপরই তিনি তার নিজের ক্ষোভ জানিয়ে দেন।

এদিকে আগামী ১৩ জানুয়ারি সব উপাচার্যদের আলোচনায় ডেকেছেন রাজ্যপাল। ইতিমধ্যেই উপাচার্যরা সেই চিঠি পেতে শুরু করেছেন রাজভবনের তরফে। তপস্বী বৈঠকে উপাচার্য যোগ দেবেন নাকি তা এখনও নিশ্চিত নন উপাচার্যরা। এ বিষয়ে  উপাচার্য কোনও মন্তব্য করতে চাননি।

First published: December 29, 2019, 3:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर