corona virus btn
corona virus btn
Loading

৯ বছরের প্রতীক্ষা শেষ, ৬ মাসে মাদ্রাসা গ্রুপ ডি ফলপ্রকাশের নির্দেশ হাইকোর্টের

৯ বছরের প্রতীক্ষা শেষ, ৬ মাসে মাদ্রাসা গ্রুপ ডি ফলপ্রকাশের নির্দেশ হাইকোর্টের

শুরু ২০১০ সালে আর কবে তা শেষ হবে এতদিন ছিল সকলেরই অজানা। বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের নির্দেশের পর একটা দিশা পেলেন লক্ষ লক্ষ পরীক্ষার্থী...

  • Share this:

#কলকাতা: শুরু ২০১০ সালে আর কবে তা শেষ হবে এতদিন ছিল সকলেরই অজানা। বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের নির্দেশের পর একটা দিশা পেলেন লক্ষ লক্ষ পরীক্ষার্থী। মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের নেওয়া গ্রুপ ডি,  মূলত অশিক্ষক কর্মচারী নিয়োগের প্রথম পরীক্ষা হয় নভেম্বর ২০১০-এ। এরপর প্রিলিমিনারি উত্তীর্ণ কয়েক লক্ষ পরীক্ষার্থী লিখিত পরীক্ষায় বসেন ২৭ মার্চ ২০১১-এ। এরপর কবে ও কীভাবে তার ফলপ্রকাশ হবে কারওরই জানা ছিল না। পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিলো ৫ লক্ষের বেশি। ক্লার্ক, লাইব্রেরিয়ান, সুইপার সহ একাধিক শূন্যপদে নিয়োগ হওয়ার কথা।

বামফ্রন্ট সরকারের আমলে নিয়োগ প্রক্রিয়ার বিজ্ঞপ্তি জারি হয়। জুনিয়র মাদ্রাসা, হাই মাদ্রাসাগুলিতে এই নিয়োগ হওয়ার কথা। হাইকোর্টে এর আগে নিয়োগ সংক্রান্ত মামলায় মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের বক্তব্য ছিল, বিপুল পরিমান পরীক্ষার্থীর চাপে সময়ে ফল প্রকাশ করা যাচ্ছে না । তাই বলে ১০ বছরেও ফলপ্রকাশ নয়! রেজাল্ট আউট চেয়ে তাই মহঃ হাবিল সহ একাধিক পরীক্ষার্থী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠিচাপাটি করেন বিস্তর। তবে ফলপকাশ কবে হবে এই প্রশ্নের উত্তরে স্পিকটি নট সকলে। ১১১ মাসেও ফলপ্রকাশ না হওয়ায় হাইকোর্টে মামলা করেন মহঃ হাবিলরা।  তাঁদের আবেদন ছিল, অবিলম্বে রেজাল্ট আউট করে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করা। বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের বিচারপতি রাজশেখর মান্থা বিষয়টি জেনে কিছুটা বিস্ময় প্রকাশ করেন। মহঃ হাবিলদের আইনজীবী ফিরদৌস শামিমের কথায়, ' হাইকোর্ট ৬ মাসের মধ্যে মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যানকে ফলপ্রকাশের নির্দেশ দিয়েছে। ৩০ বছর বয়সে যিনি পরীক্ষা দিয়েছিলেন তাঁর আজ বয়স ৪০ বছর। এরপরেও ফলপ্রকাশ না হলে ওই পরীক্ষার্থী কবে চাকরি করবেন! "

সম্প্রতি মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের বৈধতাকে মান্যতা দিয়েছে দেশের শীর্ষ আদালত। তাই মাদ্রাসায় শিক্ষক নিয়োগের কাজটি ত্বরান্বিত হয়। গ্রুপ ডি চাকুরি প্রার্থীদের বক্তব্য, তাঁদের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় দীর্ঘসূত্রিতা কেন হবে ?

ARNAB HAZRA

First published: March 13, 2020, 4:35 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर