• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • ‘ভুল ছিল ২০১৫ প্রাইমারি টেটের প্রশ্নে, ভুল প্রশ্নের উত্তর দিয়ে উত্তীর্ণদের দিতে হবে চাকরি’, নির্দেশ হাইকোর্টের

‘ভুল ছিল ২০১৫ প্রাইমারি টেটের প্রশ্নে, ভুল প্রশ্নের উত্তর দিয়ে উত্তীর্ণদের দিতে হবে চাকরি’, নির্দেশ হাইকোর্টের

কলকাতা হাইকোর্ট

কলকাতা হাইকোর্ট

  • Share this:

    #কলকাতা: প্রাইমারি টেট মামলায় আজ রায় দিল কলকাতা হাইকোর্ট ৷  ২০১৫-এর প্রাইমারি টেটের প্রশ্ন ভুল ৷ ভুল ছিল প্রশ্নের উত্তরেও ৷ প্রাইমারি টেট নিয়ে মামলায় জানাল হাইকোর্ট ৷ ভুল প্রশ্নের উত্তর করলে পুরো নম্বর দিতে হবে প্রাইমারি বোর্ডকে, নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট  ৷ l তবে যারা মামলা করেছিলেন কেবল তাদের ক্ষেত্রেই এই রায় লাগু করা হবে, বাকিদের ক্ষেত্রে নয় ৷

    বিশ্বভারতীর উপাচার্যকে কমিটি গড়ে কোনটা ঠিক উত্তর, কোনটা ভুল তা রিপোর্ট আকারে জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট। প্রাথমিক সেই রিপোর্ট পেয়ে গত মাসেই আদালত জানিয়ে দেয়, ৬টি প্রশ্নে পর্ষদের দেওয়া উত্তরে ভুল-ভ্রান্তি রয়েছে। সূত্রের দাবি, আদালতে জমা পড়া প্রাথমিক রিপোর্টে, ৯, ২২ এবং ২৫, এই তিনটি প্রশ্নে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের উত্তরকে ভুল বলেছে কমিটি।

    আরও পড়ুন: দেশের ৪৬ তম প্রধান বিচারপতি হিসেবে শপথ নিলেন রঞ্জন গগৈ

    ২০১৫ সালে প্রাথমিকের টেটের ৯ নম্বর প্রশ্নে কী ছিল?

    প্রাচ‍্য শব্দটিকে বিশেষ‍্য করলে হয় ক - প্রচেত, খ - প্রাচী গ - প্রাচীন এবং ঘ - প্রাচ‍্যা পর্ষদের উত্তর ছিল ঘ অর্থাৎ প্রাচ‍্যা কিন্তু, সূত্রের দাবি, কমিটি জানিয়েছে, এটি ভুল। সঠিক উত্তর হবে খ - প্রাচী।

    ২২ নম্বর প্রশ্নে ছিল দুঃসাহসিক শব্দটিকে বর্ণবিশ্লেষণ করলে পাওয়া যায়....এই বলে চারটি উত্তর দেওয়া হয়।

    আরও পড়ুন: সাধারণ মানুষের আশাভঙ্গ করেছেন মোদি, ২০১৯ এ কংগ্রেসের উপর বিশ্বাস রাখার আর্জি রাহুলের

    পর্ষদের উত্তর অনুযায়ী, গ সঠিক কিন্তু, সূত্রের খবর, কমিটি জানিয়েছে, কোনও উত্তরই নিখুঁত নয়।

    ২০১৫ সালে টেটে বসেন প্রায় ২৩ লক্ষ পরীক্ষার্থী। সেই টেটের ভবিষ্যৎ ঘিরেই অনিশ্চয়তার মেঘ ছিল। লক্ষ লক্ষ পরীক্ষার্থীর নজর তাই বুধবার হাইকোর্টের দিকে ছিল। অবশেষে অপেক্ষার অবসান ৷ আজকের রায় অনুযায়ী, যারা মামলা করেছেন তারা যদি ভুল প্রশ্নের উত্তর দিয়ে উত্তীর্ণ হয় তাহলে তাদের চাকরি দিতে হবে ৷

    আরও পড়ুন: মেডিক্যাল কলেজের আগুনে পুড়ে ছাই প্রচুর জীবনদায়ী ওষুধ, রোগীদের স্থানান্তর করা হতে পারে SSKM -এ

    First published: