• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • Gariahat Murder Update: কাকুলিয়ায় জোড়া খুনে প্রথম সূত্র ধরিয়ে দিল, কলকাতা পুলিশে এখন নায়ক জিপসি

Gariahat Murder Update: কাকুলিয়ায় জোড়া খুনে প্রথম সূত্র ধরিয়ে দিল, কলকাতা পুলিশে এখন নায়ক জিপসি

কাঁকুলিয়া রোডের ঘটনাস্থলে জিপসি৷

কাঁকুলিয়া রোডের ঘটনাস্থলে জিপসি৷

গত ১৭ তারিখ রাতে কাঁকুলিয়া রোডের বাড়িতে জোড়া খুনের ঘটনা ঘটে৷ ১৮ তারিখ জিপসিকে ঘটনাস্থলে নিয়ে যাওয়া হয় (Gariahat Murder Update)৷

  • Share this:

    #কলকাতা: কাঁকুলিয়ায় জোড়া খুন কাণ্ডের রহস্যের কিনারা করতে হিমসিম খাচ্ছিলেন কলকাতা পুলিশের দুঁদে গোয়েন্দারা (Gariahat Murder Update)৷ তাঁদের কাজ অনেকটাই সহজ করে দিল জিপসি৷ জিপসি আসলে কলকাতা পুলিশের (Kolkata Police) ডগ স্কোয়াডের সদস্য একটি জার্মান শেফার্ড প্রজাতির কুকুর৷ গড়িয়াহাটে উচ্চপদস্থ কর্পোরেট কর্তা সুবীর চাকি এবং তাঁর গাড়ির চালক রবীন মণ্ডলের খুনের তদন্তে গোয়েন্দাদের প্রথম সূত্র ধরিয়ে দিল আট বছর বয়সি এই জার্মান শেফার্ডটি৷ যে সূত্র ধরেই এখনও পর্যন্ত ঘটনায় অন্যতম মূল অভিযুক্ত মিঠু হালদারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ ফলে কলকাতা পুলিশে জিপসি এখন নায়কের সম্মান পাচ্ছে৷

    গত ১৭ তারিখ রাতে কাঁকুলিয়া রোডের বাড়িতে জোড়া খুনের ঘটনা ঘটে (Gariahat Murder Case)৷ ১৮ তারিখ জিপসিকে ঘটনাস্থলে নিয়ে যাওয়া হয়৷ কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দারা জানাচ্ছেন, খুনের ঘটনায় অপরাধীদের গতিবিধি চিহ্নিত করার ক্ষেত্রে পারদর্শী জিপসি৷ অতীতেও একাধিক ঘটনায় নিজের দক্ষতার প্রমাণ রেখেছে সে৷ কাকুলিয়া রোডের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে প্রথমে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হওয়া একটি রক্তমাখা রুমাল শোঁকানো হয় জিপসিকে৷

    আরও পড়ুন: কাঁকুলিয়া জোড়া খুন কাণ্ডে প্রাক্তন পরিচারিকার যোগ? ডায়মন্ড হারবারে আটক মহিলা

    এর পর দোতলা এবং তিনতলায় যেখানে দু'টি দেহ পড়েছিল, সেই জায়গায় ঘোরাঘুরি করে জিপসি৷ খুনির সন্ধানের নেমে প্রথমে কাকুলিয়া রোড থেকে আধ কিলোমিটারের বেশি দৌড়ে কাছের বালিগঞ্জ স্টেশন পৌঁছয় সে৷ জিপসির সঙ্গে ছিলেন তার হ্যান্ডলার মোহন মণ্ডল৷ বালিগঞ্জ স্টেশনে পৌঁছে ওভারব্রিজের সিঁড়ি ধরে নেমে এক ও দুই নম্বর প্ল্যাটফর্মের মাঝখানে বসে পড়ে জিপসি৷ তার থেকেই গোয়েন্দারা বুঝতে পারেন, খুনের পর সম্ভবত বালিগঞ্জ স্টেশন থেকে ট্রেন ধরেই পালিয়েছে আততায়ীরা৷

    বালিগঞ্জ স্টেশন থেকে একদিকে শিয়ালদহ, অন্যদিকে দক্ষিণ চব্বিশ পরগণা ও বজবজের বিভিন্ন জায়গায় যাওয়া যায়৷ সেকথা মাথায় রেখেই বালিগঞ্জ স্টেশন ও তার লাগোয়া ফার্ন রোড, বিজন সেতু লাগোয়া একাধিক দোকান ও রাস্তার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখতে শুরু করেন তদন্তকারীরা৷ সেই সিসিটিভি ফুটেজ দেখেই অভিযুক্ত মিঠু হালদারকে চিহ্নিত করা হয়৷

    কলকাতা পুলিশের ডগ স্কোয়াডের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, জিপসি নামে এই জার্মান শেফার্ডটিকে ২০১৫ সালে যখন কলকাতা পুলিশে নিয়ে আসা হয়, তখন তার বয় দুই৷ তার আগে গ্বালিয়রে ৬ মাস বয়স থেকে বিএসএফ-এর অধীনে প্রশিক্ষণ পায় জিপসি৷ উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন বিস্ফোরক থেকে শুরু করে বিভিন্ন গ্রাউন্ড ড্রিল, নানা ধরনের মিশ্রণের মধ্যে থেকে গন্ধকে আলাদা আলাদাভাবে চিহ্নিত করতে পারদর্শী এই জার্মান শেফার্ড৷

    এই মুহূর্তে কলকাতা ডগ স্কোয়াড এর মোট ৪৮টি পোস্ট অনুমোদিত হয়েছে৷ এর মধ্যে ৩৮টি প্রশিক্ষিত কুকুর রয়েছে, এর মধ্যে রয়েছে এই জার্মান শেফার্ড, ল্যাব্রেডর, রট হুইলার, ডোভারম্যান, গোল্ডেন রিট্রিভারের মতো বিভিন্ন প্রজাতির কুকুর৷ এপ্রিল মাসেই নতুন দশটি ল্যাব্রেডর কুকুর আনা হয়েছে ডগ স্কোয়াডে৷

    Sukanta Mukherjee

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: