• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • GYANESHWARI EXPRESS ACCIDENT AMRITAVA CHOWDHURY INVOLVED WITH PROMOTING BUSINESS SB

Gyaneshwari Express Accident: কেঁচো খুঁড়তে কেউটে, জ্ঞানেশ্বরী দুর্ঘটনায় 'মৃত' অমৃতাভ করছে প্রোমোটারি ব্যবসা!

লুকিয়ে রহস্য

Gyaneshwari Express Accident: অমৃতাভ জীবিত তা কিছুদিন আগে জানতে পারে রেল দপ্তর।এরপর সে ব্যাপারে নিশ্চিত হতে বেশকিছু নথি সংগ্রহ করে তারা।

  • Share this:
#কলকাতা: এ যেন কেঁচো খুঁড়তে কেউটে! জ্ঞানেশ্বরী ট্রেন দুর্ঘটনায় নিজেকে মৃত বলে ঘোষণা করে মোটা টাকা ক্ষতিপূরণ আদায় করেছিল কলকাতার জোড়াবাগানের অমৃতাভ চৌধুরি।তাকে এখন জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে সিবিআই। সেই অমৃতাভর বিষয়ে নিউজ 18 বাংলা-র অন্তর্তদন্তে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য। সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে,ইদানিং প্রোমোটারি ব্যবসায় মোটা টাকা বিনিয়োগ করেছিল অমৃতাভ ও তার পরিবার। পূর্ব বর্ধমান জেলার মন্তেশ্বরে আদি বাড়ি অমৃতাভর। সেখান থেকেই বাবা মিহির চৌধুরি কর্মসূত্রে কলকাতায় গিয়েছিলেন। তবে গ্রামের বাড়িতে আসা যাওয়া ছিল অমৃতাভদের। এখানে তিনি অর্থাৎ জ্ঞানেশ্বরী কান্ডে 'মৃত' অমৃতাভ গত দেড় বছর ধরে প্রোমোটারি ব্যবসা চালাচ্ছিল। নিজে দাঁড়িয়ে থেকে মন্তেশ্বরে চারতলার প্রাসাদোপম বাড়ি তৈরি করেন। সেই বাড়ি নিচের তলার কয়েকটি দোকান ঘর ইতিমধ্যেই চড়া দামে বিক্রি করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, নিজের গ্রামের বাড়ি মন্তেশ্বরের বামুনপাড়ায় আরও একটি দোতলা বাড়ি তৈরির কাজও সম্পূর্ণ। এত টাকা কোথা থেকে এলো তা ভেবে উঠতে পারছেন না এলাকার বাসিন্দারা। এগারো বছর আগে জ্ঞানেশ্বরী ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটে। তাতেই অমৃতাভর মৃত্যু হয় বলে পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছিল। অন্য অনেকের মতোই তার মৃতদেহ শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। এরপর ডিএনএ পরীক্ষার সাহায্য নেওয়া হয়। অমৃতাভ মৃত বলে ডিএনএ পরীক্ষার রিপোর্ট পেশ করা হয়। এরপর চার লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ পায় তার পরিবার। তার বোন মহুয়া পাঠককে চাকরি দেয় রেল। এগারো বছর পর জানা যাচ্ছে জ্ঞানেশ্বরী দুর্ঘটনায় মৃত অমৃতাভ আসলে জীবিত। এই খবর চাউর হয়ে যেতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজ্যজুড়ে। অবাক মন্তেশ্বরের বাসিন্দারা। স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করে তার কাজ কারবার নিয়ে। জানা গিয়েছে, অমৃতাভ জীবিত তা কিছুদিন আগে জানতে পারে রেল দপ্তর।এরপর সে ব্যাপারে নিশ্চিত হতে বেশকিছু নথি সংগ্রহ করে তারা। এরপরই রেল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি সিবিআই কে জানায়।
Published by:Suman Biswas
First published: