টেটের পর ফের সরকারি কর্মী নিয়োগের পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ, সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরছে উত্তরপত্রের নমুনা

প্রাথমিক টেটের পর ফের আরও একটি সরকারি কর্মী নিয়োগের পরীক্ষাতেও প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ উঠল ৷

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 20, 2017 09:03 AM IST
টেটের পর ফের সরকারি কর্মী নিয়োগের পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ, সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরছে উত্তরপত্রের নমুনা
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 20, 2017 09:03 AM IST

#কলকাতা: প্রাথমিক টেটের পর ফের আরও একটি সরকারি কর্মী নিয়োগের পরীক্ষাতেও প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ উঠল ৷ রবিবার স্কুল সার্ভিস কমিশনের চতুর্থ শ্রেণির কর্মী নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র পরীক্ষার আগেই ফাঁস হয়ে গিয়েছে বলে দাবি ৷ এমনকী হোয়াটস অ্যাপে ঘুরছে কর্মী নিয়োগের পরীক্ষার সঠিক উত্তরপত্রও ৷

সূত্রের খবর, পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, মালদা, পুরুলিয়া জেলা থেকে এসএসসি-র চতুর্থ শ্রেণীর কর্মী নিয়োগে অসাধু প্রক্রিয়া অবলম্বনের অভিযোগ উঠেছে ৷ পরীক্ষার্থীদের দাবি, পরীক্ষা শুরুর আগে থেকেই বাছাই করা চাকরিপ্রার্থীর হাতে পৌঁছে গিয়েছিল প্রশ্নপত্র ৷ শুধু তাই নয় OMR শিটে সঠিক উত্তর দাগানোর জন্য বিশেষ কিছু পরীক্ষার্থীদের হাতে পৌঁছে গিয়েছিল উত্তরপত্রও ৷

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে বিতর্কের মধ্যেই মাথাচাড়া দিল গ্রুপ ডি কর্মী নিয়োগেও স্বজনপোষনের অভিযোগ ৷ তবে এখনও এব্যাপারে স্কুল সার্ভিস কমিশনের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি ৷

সোশ্যাল মিডিয়ায় পাওয়া উত্তরপত্রের নমুনা সোশ্যাল মিডিয়ায় পাওয়া উত্তরপত্রের নমুনা

রবিবার স্কুল সার্ভিস কমিশনের চতুর্থ শ্রেণির কর্মী নিয়োগ পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক বিশৃঙ্খলা ছড়ায় ৷ মালদহের হোলি চাইল্ড স্কুলে স্কুল সার্ভিস কমিশনের চতুর্থ শ্রেণির কর্মী নিয়োগের পরীক্ষার সিট পড়েছিল ৷ পরীক্ষা শুরু হওয়ার পরই প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় স্কুল চত্বরে ৷ প্রশ্ন ও উত্তরপত্র ছিঁড়ে বিক্ষোভ দেখান চাকরিপ্রার্থীরা ৷

পরে অতিরিক্ত ডিএম গিয়ে পরিস্থিতি আয়ত্তে আনেন ৷ নির্ধারিত সময়ের দু’ঘণ্টা পর শুরু কর্মী নিয়োগের পরীক্ষা ৷ বিক্ষোভের মুখে পড়েন মহকুমাশাসকও ৷ শুধু মালদহ নয, একে একে বিভিন্ন জেলা থেকে আসতে শুরু করে অভিযোগ ৷

পরীক্ষা শেষ হওয়ার আগেই লাখ লাখ শেয়ারে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে একটি উত্তরপত্রের নমুনা ৷ তবে তা সঠিক কিনা তার স্বপক্ষে কোনও প্রমাণ মেলেনি ৷ একইসঙ্গে শাসকদলের একাংশের অভিযোগ, কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়াকে ব্যাহত করতে পরীক্ষা শেষের পরই প্রশ্নপত্রের নমুনার ছবি তুলে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে ৷ যাতে প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে স্তব্ধ হয়ে যায় প্রক্রিয়া ৷

এর আগে বছর দুয়েক আগে প্রাথমিক টেট পরীক্ষার সময়ও প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ উঠেছিল ৷ ৪ অক্টোবর, ২০১৫ পরীক্ষা শুরু হওয়ার পর পরই সোস্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে ছড়িয়ে পড়ে প্রশ্নপত্র ৷ অভিযোগ ওঠে টেটের প্রশ্নপত্র ফাঁসের ৷

First published: 08:58:25 AM Feb 20, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर