corona virus btn
corona virus btn
Loading

রেকর্ডের অসামান্য কালেকশন নিয়ে লাইভ সেশন, চেনা অচেনা অনেক গানের পশরা এবার গ্রামাফোনে

রেকর্ডের অসামান্য কালেকশন নিয়ে লাইভ সেশন, চেনা অচেনা অনেক গানের পশরা এবার গ্রামাফোনে

এই প্রজন্মের অনেকই রেকর্ডের কথা শুনে থাকলেও তাতে গান বাজতে দেখেননি। এই উদ্যোগ সেই নস্টালজিয়াটা আরেক বার উসকে দেওয়ার, বলছেন শিল্পী...

  • Share this:

#কলকাতা: বারে বারেই মনে হচ্ছে এই বুঝি আমাদের জীবন করোনা মুক্ত হয়ে গেল।আমরা হয়ত আবারও স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যেতে পারবো। কিন্তু না সেটাও যেমন হচ্ছেনা তেমিনই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে মনের ভেতরে ভয়টাও আরও যেন বেড়ে যাচ্ছে।  তবে এই অস্বাভাবিককেই এখন স্বাভাবিক করে নিতে হবে আমাদের। এই লকডাউনের মধ্যেই অনেকেই আছেন যারা সময়ের সঠিক ব্যাবহার করেছেন। যেমন আমাদের শহরের রেকর্ড কালেক্টর সুদীপ্ত চন্দ।লকডাউনে ফিরে এল গ্রামোফোনের স্মৃতি৷

সুদীপ্ত চন্দ একজন পরিচিত সংস্কৃতি কর্মী। পুরোন দিনের চলচ্চিত্র পোস্টার সংগ্রাহক৷ স্কুল কলেজে পড়ার সময় থেকেই ছিল গ্রামোফোন রেকর্ডের সখ। ছেলেবেলা থেকেই বাড়িতে রেকর্ডে গান শোনার অভ্যাস ছিল। পরবর্তী সময়ে নিজের ইচ্ছেতেই সেই সংগ্রহ আরও বাড়াতে থাকেন। করোনা অতিমারীর এই সময়ে সবাই ঘরবন্দি অবস্থাতে অনেকে নিজেদের গুণ সবার সামনে মেলে ধরছেন, তারিফ কুড়োচ্ছেন। কেউ গান করছেন, কেউবা নাচ, আবার কেউ রান্না করে ফেলেছেন রকমারি পদ। সুদীপ্ত শোনাচ্ছেন গান, তবে নিজে গেয়ে নয়। গ্রামোফোন রেকর্ডে বাজিয়ে শোনাচ্ছেন ফেলে আসা দিনের গান। গত প্রায় এক মাসের বেশি সময় ধরে শুনিয়ে জাচ্ছেন জনপ্রিয়র পাশাপাশি কম শোনা গান। এই কর্মকাণ্ডের নাম দিয়েছেন " মাই গ্রামোফোন সিরিজ"।

একশোটিরও বেশি ফেসবুক লাইভ করেছেন। তার মধ্যে ছিল লতা মঙ্গেশকরের গাওয়া প্রথম বাংলা গান ( দুটি রবীন্দ্রসঙ্গীত হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে গাওয়া ), কাননদেবীর গাওয়া নিউ থিয়েটারের ছবি "মুক্তি" এর রবীন্দ্রসঙ্গীত, আশা ভোঁসলের গাওয়া রাহুল দেব বর্মণের সুরে মালয়ালম ছবির গান, সলিল চৌধুরীর সুরে ওড়িয়া ছবির গান, রাহুল দেব বর্মণের গাওয়া তামিল ছবির গান, আশা ভোঁসলের গাওয়া ফরিয়াদ ছবির ইংরেজী গান, শচীন দেব বর্মনের সুরে জজসাহেবের নাতনি ছবির গান( সেই সময় রেকর্ডে ছবির চরিত্রের নাম ছাপা হতো,গায়ক-গায়িকাদের নয়), বীণা চৌধুরীর গাওয়া রবীন্দ্রসঙ্গীত যে রেকর্ডে লেখা কথা-সুর রবীন্দ্রনাথ৷  এছাড়াও মান্না দের কন্ঠে কম শোনা নজরুল গীতি "অসময়" ছবি থেকে, আনন্দ শঙ্করের সঙ্গীত নির্দেশনায়। ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের বিজ্ঞাপনের গান "ফ্লাই দ্য ফ্ল্যাগ"( রেকর্ডের বিশেষত্ব এটি একটি ওয়ান সাইড রেকর্ড)। সলিল চৌধুরীর নিজের হোম সটুডিওতে রেকর্ড করা রেকর্ড "একটু চুপ করে শোন"- এর গান। এছাড়াও পাশ্চাত্য সঙ্গীতের বহু দিকপালের গান জায়গা করে নিয়েছে এই লাইভ সেশনে। ফ্র্যাঙ্ক সিনাট্রা, এলভিস প্রিসলি, জন ডেনভার, মাইকেল জ্যাকসন, ন্যাট কিং কোল সহ অনেক শিল্পীর গান শোনার সুযোগ হচ্ছে প্রতিদিন।

" এই প্রজন্মের অনেকই রেকর্ডের কথা শুনে থাকলেও তাতে গান বাজতে দেখেননি। এই উদ্যোগ সেই নস্টালজিয়াটা আরেক বার উসকে দেওয়ার। মন ভালো রাখার এক উপায় মাত্র।" বলে জানান সুদীপ্ত নিজে। এই জুন মাস জুড়ে চলছে রেকর্ডে রাহুল দেব বর্মণের সুরের গান, শিল্পীর জন্ম মাস উপলক্ষে। সুদীপ্ত জানান মোট দুশোটার মতো লাইভ করবেন এই মাসে।

Published by: Pooja Basu
First published: June 10, 2020, 4:47 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर