Home /News /kolkata /
'মানুষের কল্যাণেই পরামর্শ দিই', মুখ্যমন্ত্রীকে কড়া চিঠি রাজ্যপালের 

'মানুষের কল্যাণেই পরামর্শ দিই', মুখ্যমন্ত্রীকে কড়া চিঠি রাজ্যপালের 

জানা গিয়েছে, ২০২০-২১ অর্থবর্ষে রাজভবনের জন্য বরাদ্দ করা বাজেট গত বছরের তুলনায় ৫০ শতাংশ কমানো হয়েছে৷ সরকারের ওই শীর্ষ আমলার অবশ্য দাবি, করোনা অতিমারির কারণে শুধু রাজভবন নয়, নিজেদের সব দফতরেরই বাজেট কমাতে বাধ্য হয়েছে রাজ্য সরকার৷ সেপ্টেম্বর থেকে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত ব্যয় সংকোচনের সিদ্ধান্ত বহাল রাখছে রাজ্য সরকার৷

জানা গিয়েছে, ২০২০-২১ অর্থবর্ষে রাজভবনের জন্য বরাদ্দ করা বাজেট গত বছরের তুলনায় ৫০ শতাংশ কমানো হয়েছে৷ সরকারের ওই শীর্ষ আমলার অবশ্য দাবি, করোনা অতিমারির কারণে শুধু রাজভবন নয়, নিজেদের সব দফতরেরই বাজেট কমাতে বাধ্য হয়েছে রাজ্য সরকার৷ সেপ্টেম্বর থেকে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত ব্যয় সংকোচনের সিদ্ধান্ত বহাল রাখছে রাজ্য সরকার৷

চিঠিতে রাজ্যপাল লিখেছেন, রাজ্যের মানুষের কল্যাণের জন্যই পরামর্শ দেন তিনি ।

  • Share this:

#কলকাতা: ফের মুখ্যমন্ত্রীকে কড়া চিঠি রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের। সোমবারই করোনা টেস্টিং ল্যাবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে 'সাংবিধানিক পদে থেকে কেউ কেউ রাজ্য সরকারকে ক্রমাগত বিব্রত করছে' বলে মন্তব্য করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নাম না করলেও তাঁর অভিযোগের তির যে রাজ্যপালের দিকেই ছিল, তা বুঝতে বাকি ছিল না রাজনৈতিক মহলের৷

এবার চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই মুখ্যমন্ত্রীকে  চিঠি লিখে জবাব  দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়৷ চিঠির ছত্রে ছত্রে মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের বিরোধিতায় ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন রাজ্যপাল। চিঠিতে রাজ্যপাল লিখেছেন, রাজ্যের মানুষের কল্যাণের জন্যই পরামর্শ দেন তিনি । যা সংবিধান স্বীকৃতও বটে । ওই চিঠিতে রাজ্যপালের বক্তব্য মোটের উপর এটাই যে রাজ্যে পুলিশি রাজ চলছে। যা এক কথায় ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির রূপ নিয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে রাজ্যপালের লেখা চিঠি

রাজ্যপাল চিঠিতে ফের দাবি করেছেন, 'রাজ্যের নিচুতলার প্রশাসন ব্যর্থ৷ আমি রাজনীতির জগতের কেউ নই। কিন্তু প্রশাসনের অঙ্গ। আইনের শাসন ও সংবিধান রক্ষায় আমার দায়ববদ্ধতা আছে । রাজ্য প্রশাসনের নানা বিষয়ে অবগত থাকা আমার প্রয়োজন৷ আপনার ভূমিকা সংবিধানের রীতিনীতির থেকে থেকে অনেক দূরে৷ আমার ভূমিকাকে আপনি অকেজো করতে চেয়েছেন৷ এ এক ভয়ঙ্কর অবস্থা৷'

চিঠির শেষে রাজ্যপাল লিখেছেন, 'গতকালের পর্ব শেষে আশা করি রাজ্যের মানুষের স্বার্থে আমরা এক সঙ্গে কাজ করব৷'

সোমবারের অনুষ্ঠান চলাকালীন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রীকে বলেছিলেন, ‘করোনাযুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা আমরা পেয়েছি৷ করোনা মোকাবিলায় কয়েক দফায় কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী৷ কিন্তু কেউ কেউ রাজ্যকে বিরক্ত করছে৷ সাংবিধানিক পদে থেকে রাজ্যের কাজে অসহযোগিতা করছেন যা কাম্য নয়৷ সবাই তো নির্বাচিত, সকলে মিলে আসুন না কাজ করি।’

Sourav Guha

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Jagdeep Dhankhar, Mamata Banerjee

পরবর্তী খবর