যাদবপুরের উপাচার্যের সঙ্গে হাসপাতালে দেখা করলেন রাজ্যপাল

যাদবপুরের উপাচার্যের সঙ্গে হাসপাতালে দেখা করলেন রাজ্যপাল

বৃহস্পতিবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে বাবুল সুপ্রিয়কে ঘিরে বিক্ষোভের পর অসুস্থ হয়ে পড়েন উপাচার্য সুরঞ্জন দাস ও সহ-উপাচার্য প্রদীপ মিত্র।

  • Share this:

#কলকাতা: হাসপাতালে গিয়ে যাদবপুরের উপাচার্য ও সহ-উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করলেন রাজ্যপাল। উপাচার্যের সঙ্গে মিনিট পরেনো একান্তে কথা বললেন। বৃহস্পতিবার কী হয়েছিল? কেন উপাচার্য ফোনে গন্ডগোলের কথা জানালেন না? জানতে চান রাজ্যপাল। সেইসঙ্গে একসঙ্গে কাজের বার্তাও দেন জগদীপ ধনখড়।

বৃহস্পতিবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে বাবুল সুপ্রিয়কে ঘিরে বিক্ষোভের পর অসুস্থ হয়ে পড়েন উপাচার্য সুরঞ্জন দাস ও সহ-উপাচার্য প্রদীপ মিত্র। সেদিনই তাঁদের দক্ষিণ কলকাতার এক বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছিল। শনিবার সকালে তাঁদের দেখতে হাসপাতালে গেলেন রাজ্যপাল ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য জগদীপ ধনখড়। প্রায় তিরিশ মিনিট উপাচার্য ও সহ-উপাচার্যের কেবিনে গিয়ে কথা বলেন। চিকিৎসকদের থেকে তাঁদের স্বাস্থ্যের খোঁজখবর নেন রাজ্যপাল।

এদিন উপাচার্যের সঙ্গে প্রায় মিনিট পনেরো একান্তে কথা বলেন রাজ্যপাল। সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবারের গন্ডগোলের সময়ে উপাচার্যের ভূমিকা কী ছিল তা জানতে চান রাজ্যপাল জগদীপ খনখড়। গোলমালের খবর উপাচার্য কেন তাঁকে আগে ফোনে জানাননি, তাও জানতে চান। শনিবার রাজভবনের প্রেসবিজ্ঞতিতে জানানো হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফেরাতে আচার্যের সহযোগিতা চেয়েছেন উপাচার্য সুরঞ্জন দাস।

বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে নিগ্রহের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন উপাচার্য সুরঞ্জন দাস। পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। শেষপর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে বাবুল সুপ্রিয়কে বের করে আনেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। এরপর রাজ্যভবনের একাধিক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে গন্ডগোলের দিন উপাচার্যের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। সেই পরিস্থিতিতে আচার্য-উপাচার্যের কথোপকথন ও একসঙ্গে কাজের প্রতিশ্রুতিতে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার ইঙ্গিত পাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। অন্যদিকে এদিনই বিশ্ববিদ‍্যালয়ের কলা বিভাগের ইউনিয়ন রুম মেরামতি শুরু হয়েছে। গন্ডগোলের দিন এবিভিপি কর্মীরা এখানে ভাঙচুর করেছিল বলে অভিযোগ।

আরও ভিডিও: হাসপাতালে যাদবপুরের উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করলেন রাজ্যপাল

First published: 11:26:58 AM Sep 22, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर