মেট্রোর কাজে দোকানছাড়া, কাজ হারিয়েছেন সোনার দোকানের কর্মীরা

মেট্রোর কাজে দোকানছাড়া, কাজ হারিয়েছেন সোনার দোকানের কর্মীরা

পুজোর সময়ই ব্যবসায় একটু বেশি লাভ হয়। কিন্তু এবারের পুজোটা ওঁদের কাছে যেন বিভীষিকা।

  • Share this:

#কলকাতা: মেট্রোর কাজের জেরে দোকান ছাড়তে হয়েছে। এখনও কোনও বিকল্প ব্যবস্থার আশ্বাস দেয়নি কেএমআরসিএল। বিপাকে বউবাজারের স্যাকরা পাড়া লেনের স্বর্ণব্যবসায়ী ও কর্মীরা।

একসময় ঠুকঠাক আওয়াজে গমগম করত বউবাজারের এই স্যাকরা পাড়া লেন। এখন সেখানে শ্মশানের নিস্তব্ধতা। মেট্রোর টানেল খোঁড়ার কাজ শুরু হতেই দুর্গাপিতুরি লেন, স্যাকরা পাড়া লেনে একের পর এক বাড়ি ভাঙতে শুরু করে, বাড়ি ছাড়তে হয় বাসিন্দাদের। রুটিরুজি ছেড়ে উঠে আসতে হয় স্বর্ণ ব্যবসায়ীদেরও।

পুজোর সময়ই ব্যবসায় একটু বেশি লাভ হয়। কিন্তু এবারের পুজোটা ওঁদের কাছে যেন বিভীষিকা। দোকান ছাড়তে হয়েছে ব্যবসায়ীদের। ব্যবসা বন্ধ। কাজ হারিয়েছেন দোকানের কর্মচারীরাও। এই সুযোগে দোকানঘরের ভাড়াও বেড়েছে তরতরিয়ে। ব্যবসার জিনিসপত্র রাখতেও এখন হিমশিম খেতে হচ্ছে।

স্যাকরা পাড়া লেনের ৬৫ টি দোকান খালি করা হয়েছে। কিন্তু কেএমআরসিএল এখনও ক্ষতিপূরণের আশ্বাস পর্যন্ত দেয়নি বলে অভিযোগ ব্যবসায়ীদের। চার-পাঁচ দশক ধরে চলা দোকান আচমকাই বন্ধ। বিপাকে পড়েছেন ক্রেতারাও। তাই পুরোন দোকানের জায়গায় বোর্ড হাতে দাঁড়িয়ে রয়েছেন একজন করে কর্মী।

বহু ভিনরাজ্যের ব্যবসায়ীরাও বউবাজারে সোনা কিনতে আসেন। এখান থেকে সোনা যাচাই করে হলমার্ক করান। ঝাঁপ পড়েছে সেই হলমার্কের দোকানেও। কবে মিলবে ক্ষতিপূরণ? আদৌ কি বিকল্প কোনও ব্যবস্থা হবে? হলেও তা কবে হবে? দোলাচলে বউবাজারের স্বর্ণব্যবসায়ীরা।

First published: 05:18:08 PM Sep 16, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर