• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • GANGA WATER LEVEL MAY REACH 14 FT ON TODAY EVEING RAINFALL CONTINUE IN KOLKATA SB

Rainfall in Kolkata: কলকাতার জন্য অশনি সংকেত, সন্ধ্যায় গঙ্গার জলস্তর হতে পারে ১৪ ফুটের বেশি!

ভয়ঙ্কর রূপ নিতে পারে গঙ্গা

Rainfall in Kolkata: সন্ধ্যার দিকে গঙ্গার জলস্তর হতে পারে ১৪ ফুটেরও বেশি। ফলে কলকাতার বিস্তীর্ণ এলাকা ফের জলমগ্ন হয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

  • Share this:

    #কলকাতা: বুধবার বিকেল থেকে শুরু হওয়ার লাগাতার বৃষ্টিতে জলমগ্ন কলকাতার (kolkata) বিস্তীর্ণ এলাকা। উত্তর কলকাতার ঠনঠনিয়া থেকে শুরু করে রাসবিহারী, লেক গার্ডেন্স, কালাঘাটের নানান এলাকা এখনও জলের তলায়। আর এরই মধ্যে বিকেলের দিকে জোয়ার আসার সময়ও বৃষ্টি হলে পরিস্থিতি ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা রয়েছে। পুর কর্তৃপক্ষের আশঙ্কা, সন্ধ্যার দিকে গঙ্গার জলস্তর হতে পারে ১৪ ফুটেরও বেশি। ফলে কলকাতার বিস্তীর্ণ এলাকা ফের জলমগ্ন হয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

    সেই কারণেই বিকেল চারটের পর ফের লকগেট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুরসভা। এখন চাঁদপাল ঘাটের কাছে লকগেট খুলে দেওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি পরিদর্শন করেছেন কলকাতা পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য তারক সিং। আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, আজও সারাদিন কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় দু-এক পশলা ভারী বৃষ্টি হতে পারে। আর সন্ধে সাড়ে ছটায় গঙ্গায় জোয়ার আসবে। সেই কারণে লকগেটগুলি বিকেল চারটে থেকে রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়েছে। ঠিক সেই সময় গঙ্গার জলস্তর হতে পারে সাড়ে ১৪ ফুট থেকে ১৬ ফুটের মতো। কিন্তু এই সময়ের মধ্যে ভারী বৃষ্টি হলে ফের ডুবে যাবে কলকাতার বিস্তীর্ণ এলাকা।

    বুধবার রাতের অঝোর বৃষ্টিতে এমনিতেই করুণ পরিস্থিতি কলকাতার। রাত বারোটা থেকে সকাল ছটা পর্যন্ত কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় রেকর্ড বৃষ্টি হয়েছে। ঠনঠনিয়ায় বৃষ্টি হয়েছে ৯৬ মিমি, বালিগঞ্জে বৃষ্টির পরিমান ১৪৮ মিমি, চেতলায় ১৫০ মিমি, কালীঘাটে ১৬৮ মিমি, আলিপুরে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ১১৪ মিমি, দমদম ও সল্টলেকে বৃষ্টির পরিমান যথাক্রমে ৫১.৫ এবং ৭৩.২ মিমি, আবার উল্টোডাঙায় ৮৪ মিমি, মানিকতলায় ৭৭ মিমি, বেহালায় ১৬৩ মিমি ও তপসিয়ায় ১৫৩ মিমি বৃষ্টি হয়েছে।

    আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, কলকাতায় হালকা মাঝারি বৃষ্টি হলেও আগামী ২৪ ঘণ্টা ভারী বৃষ্টি হতে পারে উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগণা, নদিয়া। অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে এই জেলাগুলির কিছু কিছু অংশে। আবার শুক্রবার ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা মুর্শিদাবাদ, বীরভূম, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, হাওড়া, হুগলি এবং বাঁকুড়াতে। উত্তরপ্রদেশ ও সংলগ্ন বিহারে রয়েছে ঘূর্ণাবর্ত। পঞ্জাব থেকে একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এই নিম্নচাপ অক্ষরেখাটি বিহার,ঝাড়খন্ড এবং গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর দিয়ে গিয়েছে। একইসঙ্গে বাংলাদেশ অসংলগ্ন গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর রয়েছে একটি ঘূর্ণাবর্ত। এর প্রভাবেই বৃষ্টি কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে এই অঝোর বৃষ্টি।

    Published by:Suman Biswas
    First published: