নাড্ডাকে 'জোকার' বললেন, ব্যারাকপুর থেকে দলের 'ভুল' বাছলেন সৌগত রায়

নাড্ডাকে 'জোকার' বললেন, ব্যারাকপুর থেকে দলের 'ভুল' বাছলেন সৌগত রায়

নাড্ডাকে আক্রমণে সৌগত রায়।

ব্যারাকপুরের সভা থেকে চোখাচোখা বিশেষণে বিজেপিকে বিঁধলেন সৌগত রায়।

  • Share this:

    ব্যারাকপুর: শস্যাভান্ডার থেকে তখন তৃণমূলকে বিঁধছেন জেপি নাড্ডা। থেমে রইল না তৃণমূলও। ব্যারাকপুরের সভা থেকে চোখাচোখা বিশ্লেষণে বিজেপিকে বিঁধলেন সৌগত রায়। জেপি নাড্ডাকে জোকার বলে কটাক্ষ করলেন সৌগত রায়।

    এদিন একের পর এক ভুলের কথা তুলে ধরছিলেন সৌগত রায়। ভুল তারাই যাদের দল 'চিনতে' ভুল করেছে। তিনি বলেন," ৩৫ লক্ষ টাকা তুলেছে শীলভদ্র দত্ত। ওঁর চোখের চামড়া নেই। ২০১৬ সালে শীলভদ্রকে টিকিট দেওয়া ভুল হয়েছে। একই রকম ভুল হয়েছে নোয়াপাড়ায় সুনীল সিংহকে টিকিট দেওয়া ভুল হয়েছিল। এই ব্যক্তিই বিকাশ ঘোষের হত্যার সঙ্গে জড়িত। ৩০টি মার্ডার কেস রয়েছে অর্জুন সিংয়ের বিরুদ্ধে। "

    এর পরেই তিনি তোপ দাগেন জেপি নাড্ডার প্রতি। বলেন, "শুনেছি জে পি নাড্ডা পশ্চিমবঙ্গে এসেছেন। নাড্ডা সাহেব নাকি কৃষক পরিবার থেকে চাল সংগ্রহ করেছেন। আমি নাড্ডাকে জিজ্ঞেস করছি কাটোয়ায় কেন, দিল্লির সীমান্তে যাচ্ছেন না কেন?" সৌগত রায়ের উবাচ,"নাড্ডা কে হরিদাস পাল, কে নাম জানে ওর। বলছে চালচোর, ত্রিপল চোর, প্রমাণ দেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে? ভাইপো চোর বলবে, নাম বলবে না। অভিষেকের নাম করার সাহস নেই।" অমিত শাহের বিরুদ্ধে বিষোহগার করতে পেটমোটা শব্দটি ব্যবহার করেন বর্ষীয়াণ তৃণমূল নেতা।

    মোদি সরকারের সমালোচনা করে সৌগত বলছিলেন, "করোনা বেড়েছে সময়মতো লকডাউন না হওয়ার ফলে। নরেন্দ্র মোদির জন্য হাজার হাজার মানুষ পায়ে হেঁটে বাড়ি ফিরেছে।"

    প্রসঙ্গান্তরে গিয়ে তিনি তুলে আনেন বহিরাগত তত্ত্ব। বলেন, "এই লড়াই বাংলা বনাম বাংলার বাইরের লোকের লড়াই।" নাড্ডা রবীন্দ্রনাথের জন্মস্থান নিয়ে ভুল তথ্য উপস্থাপন করেছিলেন, সৌগতর কটাক্ষে অস্ত্র ছিল সেটাই।

    সৌগত এদিন আরও একবার বুঝিয়ে দিলেন কন্যাশ্রী, সবুজ সাথীর, স্বাস্থ্যসাথীর মতো উন্নয়ন অস্ত্রেই বিজেপিকে কোনঠাসা করতে। সৌগতর মাপা কথায় সেই কার্যসিদ্ধি হবে কিনা সেটাই দেখার।

    Published by:Arka Deb
    First published: