corona virus btn
corona virus btn
Loading

BIG BREAKING: ‌প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণির সব পড়ুয়াকে পাশ করিয়ে দেওয়া হবে, বললেন পার্থ চট্টোপাধ্য়ায়

BIG BREAKING: ‌প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণির সব পড়ুয়াকে পাশ করিয়ে দেওয়া হবে, বললেন পার্থ চট্টোপাধ্য়ায়

করোনা ভাইরাস আতঙ্ক ও লকডাউনের কারনেই এই সিদ্ধান্ত, জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

  • Share this:

#‌কলকাতা:‌ করোনা আতঙ্কে এবার বড় সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। ‌এই শিক্ষাবর্ষে প্রথম শ্রেণি থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত কোন ছাত্রছাত্রীকে ফেল করানো হবে না। সব পড়ুয়াকেই পাশ করিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য শিক্ষা দফতর। বৃহস্পতিবার এমনই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই সিবিএসই বোর্ডের পক্ষ থেকে বুধবারই প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত ছাত্র-ছাত্রীদের পাশ করিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এবার রাজ্য শিক্ষা দফতরও কিছুটা সেই পথেই হাঁটল।

গোটা রাজ্য জুড়ে করোনাভাইরাসের আতঙ্কের জেরে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। শুধু তাই নয় ইতিমধ্যেই গত ১৫ ই মার্চ থেকে রাজ্যের স্কুল গুলিও বন্ধ রয়েছে। তাই ছাত্র-ছাত্রীদের পঠন পাঠনের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যায় পড়তে হতে পারে। সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘‌মুখ্যমন্ত্রীর অনুমতিক্রমে রাজ্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত কোন ছাত্রছাত্রীকে ফেল করানো হবে না। যে যে ক্লাসে পড়ে, তাকে পরবর্তী ক্লাসে তুলে দেওয়া হবে।’‌

গোটা দেশজুড়ে ক্রমশই গতি বাড়াচ্ছে করোনাভাইরাস। পাল্লা দিয়ে এ রাজ্যেও করোনাভাইরাস সংক্রমণের সংখ্যা ক্রমশই বাড়ছে। হিসেবে দেখা যাচ্ছে, রাজ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা চল্লিশ ছুঁইছুঁই। যদিও করোনা ভাইরাস আতঙ্কে গত ১৫ মার্চ থেকে রাজ্যের স্কুলগুলিতে ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়েছে। রাজ্যজুড়ে লকডাউন চলছে। যার জেরে কবে থেকে স্কুল খোলা সম্ভব তা, এখনও নিশ্চিত নয়। পঠন-পাঠনের দিক থেকেও রাজ্য সরকার নিয়ন্ত্রিত স্কুলগুলি সমস্যায় পড়েছে। সিলেবাস অনেকটাই শেষ করা যাবে না বলেই আশঙ্কা প্রকাশ করছেন শিক্ষকরা। এবার তাই রাজ্যের তরফ সিদ্ধান্ত নেওয়া হল প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত কোন ছাত্রছাত্রীকে ফেল করানো হবে না।

শুধু তাই নয় নবম থেকে দশম এবং একাদশ থেকে দ্বাদশে ওঠা ছাত্র-ছাত্রীদের কিভাবে ক্লাস নেওয়া যায় তা নিয়েও ভাবনাচিন্তা শুরু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি জানান, ‘‌অনলাইন বা দূরদর্শন, কোনও একটা মাধ্যম মারফত এদের ক্লাস নেওয়া যায় নাকি, তা নিয়ে ভাবনাচিন্তা চলছে।’‌ অন্যদিকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়েও গুজব রটানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘‌মুখ্যমন্ত্রীর অনুমোদন নিয়ে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা যাবতীয় সিদ্ধান্ত উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ জানাবে।’‌

Somraj Bandopadhyay
Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: April 2, 2020, 2:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर