• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • FOREST DEPARTMENT IS EGAR TO BREAK MAFIA CIRCLE IN BENGAL DD

মাফিয়া চক্র ভাঙতে তৎপর রাজ্য বন দফতর 

forest department is egar to break mafia circle in bengal

  • Share this:

#কলকাতা:  নিয়মিত জঙ্গল থেকে আসে কাঠ চুরির অভিযোগ। ক্রমাগত চোরাচালানকারীদের নজরে উত্তরবঙ্গের একাধিক সংরক্ষিত বনাঞ্চল। এবার চোরাচালান রুখতে দৈনিক ৫ বার ই-অকশন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এতদিন মাসে একবার বা দু'বার জঙ্গলে অকশন করা হত। ইতিমধ্যেই রাজ্যের বন দফতরের বৈঠকে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়ে গেছে। রাজ্য বন দফতর সূত্রে খবর, এতদিন মাসে একবার বা দু'বার করে অকশন হওয়ায় যাদের কাঠ কেনার প্রয়োজনীয়তা আছে তারা সেটা পেতেন না। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে কাঠ মাফিয়ারাই সেই কাঠ নিয়ে নিতেন। তাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে প্রতিদিন অকশন করা হবে। গোটা প্রক্রিয়ায় সাহায্য নেওয়া হবে অনলাইন পদ্ধতির। ফলে যাদের কাঠ প্রয়োজন তাদের সুবিধাই হবে।

রাজ্য বন দফতর সূত্রে খবর, রাজ্যের প্রায় ৭০০ কেন্দ্র থেকে চলবে এই ই-অকশন। যেখান থেকে কাঠ কিনতে চাইবেন সেখানে নির্দিষ্ট টাকা জমা দিয়ে ই-অকশনে অংশগ্রহণ করা যাবে। আবার অন্য কোনও কেন্দ্রে থাকা কাঠ কিনতে যারা আগ্রহী তারা কাঠের খোঁজ খবর নিয়ে ই-অকশনে অংশগ্রহণ করতে পারেন। রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়েছেন, উত্তর থেকে দক্ষিণ রাজ্যের একাধিক জায়গায় বন দফতরের যে সব জায়গা পড়ে আছে সেখানে শাল, সেগুন, মেহগনি, সহ মূল্যবান কাঠ আছে সেগুলি প্রতি মাসে ই-অকশন করা হয়। দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, মাফিয়ারা এই অকশনের সময় নিজেদের ক্ষমতা প্রয়োগ করেন। কারণ জঙ্গলে অকশন হওয়ায় অনেকে অংশগ্রহণ করতে পারে না। এমন দিনে অকশন ডাকা হয় তাতে অনেকেই অংশগ্রহণ করতে পারেন না। এর পিছনে একটা মস্ত বড় চক্র কাজ করছে বলে মনে করছে বন দফতর। তাই এই চক্র ভাঙতেই এই ই-অকশনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। উত্তরের জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, কালিম্পং ও দার্জিলিং। দক্ষিণের ঝাড়গ্রাম, মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, বীরভূম, পুরুলিয়া, বর্ধমান সহ বিভিন্ন ডিভিশনে ই-অকশন করা হবে। রাজ্যের বন মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়েছেন, "প্রতি সপ্তাহে তিন দিন, ৫ বার করে এই ই-অকশন করা হবে। সকাল ৯টা থেকে আমরা এই ই-অকশন শুরু করব। ১০.৪৫,১১.৩০,২.৩০,৪.৩০ সময় এই ই-অকশন করা হবে।"

ABIR GHOSHAL

Published by:Debalina Datta
First published: