• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • FIRHAD HAKIM ATTACKS SUVENDU ADHIKARI RAJIB BANERJEE SAID BJP IS IRRELEVANT IN BENGAL SDG

Firhad Hakim Attacks Suvendu Adhikari-Rajib Banerjee|| বাংলায় বিজেপির কোনও স্থান নেই, নাম না করে শুভেন্দু-রাজীবকে ফের খোঁচা ফিরহাদের

নাম না করে শুভেন্দু-রাজীবকে ফের খোঁচা ফিরহাদের। ফাইল ছবি।

নাম না করে শুভেন্দু-রাজীবকে ফের খোঁচা দিলেন ফিরহাদ হাকিম। গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে রীতিমতো সুর চড়ালেন রাজ্যের মন্ত্রী তথা শাসক দলের প্রথম সারির নেতা ফিরহাদ হাকিম।

  • Share this:

#কলকাতা: নাম না করে শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)-রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Rajib Banerjee) ফের খোঁচা দিলেন ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim)। বললেন, 'ভোটের আগে কেউ গিয়েছিলেন CBI  থেকে বাঁচতে। আবার কেউ গিয়েছিলেন কিছু পাওয়ার লোভে। রাজনৈতিক নীতি ও আদর্শকে জলাঞ্জলি দিয়ে ব্যক্তিগত স্বার্থ চরিতার্থ করতেই অনেকে বিজেপি শিবিরে নাম লিখিয়েছিলেন। আজ ওঁদের অবস্থা কী নিজেরাই হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন।'

ফিরহাদ হাকিম আরও বলেন, বাংলায় বিজেপির কোনও স্থান নেই। সাম্প্রদায়িক একটা দল। শান্তির বাংলাকে শুধু অস্থির  করার চেষ্টা চালাচ্ছে ওরা। বিজেপির উদ্দেশ্য বিফল হবে। গত বিধানসভা নির্বাচনে বাংলার মানুষ বিজেপিকে বুঝিয়ে দিয়েছেন যে বাংলায় বিজেপির কোনও স্থান নেই। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়তেই আস্থা রেখেছেন জনসাধারণ। গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে রীতিমতো সুর চড়িয়ে মন্তব্য রাজ্যের মন্ত্রী তথা শাসক দলের প্রথম সারির নেতা ফিরহাদ হাকিমের।

সোমবার দিল্লিতে জেপি নাড্ডা ও দিলীপ ঘোষের মধ্যে বৈঠক প্রসঙ্গে ফিরহাদ বলেন, 'এটা ওঁদের দলের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। বৈঠক করতেই পারেন। তবে আগামী দিনে বাংলায় বিজেপি করার  মতো কেউ থাকবে না। ওদের একের পর এক জনবিরোধী নীতি, সাম্প্রদায়িক উস্কানির জবাব গত নির্বাচনে বাংলার মানুষ দিয়েছে।' আলিপুরের  গোপালনগর  কল্যাণ সংঘ আয়োজিত ৭৮ পল্লী দুর্গোৎসবের খুঁটি পুজোর অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে এ ভাবেই তোপ দাগেন ফিরহাদ।

প্রসঙ্গত, খুব শীঘ্রই রাজ্য বিজেপিতে সাংগঠনিক রদবদলের সম্ভবনা রয়েছে। সেই আবহে জেপি নাড্ডা ও দিলীপের এই বৈঠক হওয়ায় নানা জল্পনা ছড়িয়েছিল রাজনৈতিক মহলে। সংগঠনের কোন কোন স্তরে বদল আনা হবে, বা কোথায় বদল প্রয়োজন, এসব নিয়ে আলোচনা হতে পারে, এমন ইঙ্গিত মিলেছিল। যদিও বৈঠক শেষে সাংগঠনিক রদবদল নিয়ে কোনও আলোচনা হয়নি বলে দাবি করেন দিলীপবাবু। তাহলে কী নিয়ে দীর্ঘ বৈঠক হল দু’জনের?

দিলীপের কথায়, “নির্বাচনের ফলাফলের পর অনেক ঘটনা ঘটেছে। এখন মানুষ কী ভাবছে কর্মীদের মনোভাবও বা কী রকম, তাই নিয়ে আলোচনা হয়েছে।" আগামীদিনে দলের কীভাবে চলা উচিত, সেই সমস্ত বিষয় নিয়েও পর্যালোচনা হয়েছে। তবে বিজেপির অন্দরে থাকা বেসুরো এবং বিদ্রোহীদের নিয়ে যে দল এ বার কড়া অবস্থান নিতে পারে, তা আকারে-ইঙ্গিতে এ দিন স্পষ্ট করে দেন মেদিনীপুরের সাংসদ। তবে এ প্রসঙ্গে এ দিন ফিরহাদ হাকিম শুধু বলেন,' দেখুুন না আগামী দিনে কী হয়!'

VENKATESWAR  LAHIRI 

Published by:Shubhagata Dey
First published: