• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • FAKE VACCINATION DRIVE ACCUSED DEBANJAN DEB GAVES SPUTNIK V VACCINE TO SOME PEOPLE IN KOLKATA SB

Fake Vaccination Drive in Kolkata: 'স্পুটনিক ভি' কোথা থেকে দিলেন দেবাঞ্জন? তবে কি যুক্ত বেসরকারি হাসপাতালও!

আর কত কাণ্ড!

Fake Vaccination Drive in Kolkata: জানা গিয়েছে, কলকাতার সিটি কলেজেও ক্যাম্প করে ৭২ জনকে ভ্যাকসিন দিয়েছিল দেবাঞ্জন। সেখানে তিনজন স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিনও নিয়েছে বলে অভিযোগ।

  • Share this:

#কলকাতা: ভুয়ো ভ্যাকসিন নিয়ে তোলপাড় রাজ্য। কোভিশিল্ড নয়, জানা গিয়েছে কসবা ভুয়ো টিকাকরণ শিবিরে সম্ভবত করোনার টিকার নামে বিসিজি বা হামের ভ্যাকসিন অথবা নেহাতই কোনও পাউডার গোলা জল পেয়েছেন সাংসদ মিমি চক্রবর্তী ও অন্যান্য বহু মানুষ। এ দিনই এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি করেছে কলকাতা পুরসভা৷ ভুয়ো ক্যাম্পে যে টিকা দেওয়া হয়েছিল, তার নমুনা সংগ্রহ করে ফরেন্সিক পরীক্ষার জন্যও পাঠানো হয়েছে। এরই মধ্যে সামনে এসেছে ভুয়ো আইএএস সেজে ঘুরে বেড়ানো দেবাঞ্জন দেবের আরেক কীর্তি।

জানা গিয়েছে, কলকাতার সিটি কলেজেও ক্যাম্প করে ৭২ জনকে ভ্যাকসিন দিয়েছিল দেবাঞ্জন। সেখানে তিনজন স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিনও নিয়েছে বলে অভিযোগ। যে ইন্দ্রজিৎ সরকার ও ক্যাম্পের আয়োজন করার সমস্ত রকম সহযোগিতা করেছিলেন, তিনি কলেজের প্রাক্তন তৃণমূল নেতা। তাঁর অবশ্য দাবি, তিনি নিজেও প্রতারিত। তাকে কর্পোরেশনে চাকরি দেওয়ার নাম করে আড়াই লক্ষ টাকা দিতে বলেছিলেন ওই অভিযুক্ত দেবাঞ্জন দেব। তিনি টাকা দিতে পারেননি বলে জানানো হয়েছিল, আপাতত অস্থায়ী কর্মী হিসেবে নিযুক্ত করা হবে, তারপর যখন চাকরি পার্মানেন্ট হবে তখন টাকা দিতে হবে। এই মর্মে মার্চ মাসে ইন্দ্রজিৎ সহ আরও বেশ কয়েকজনের কর্পোরেশনের চাকরির অ্যাপোয়েন্টমেন্ট লেটার পাঠানো হয়।

যেদিন কলেজে টিকাকরণ হয়েছিল, সেইদিন অভিযুক্ত দেবাঞ্জন দেব ও সুস্মিতা বন্দ্যোপাধ্যায় নামে এক মহিলা উপস্থিত ছিলেন। তাদের সঙ্গে লাইসেন্সপ্রাপ্ত রিভালবার সহ সিকিউরিটিও ছিল। সুস্মিতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেকে WBCS অফিসার বলে দাবি করেছিলেন।

সিটি কলেজের তিন জনকেই শুধু স্পুটনিক ভি টিকা দেওয়া নয়, দিন ১৫ আগে কসবার অফিসে নিজের কর্মচারীদের বেশ কয়েকজনকেও স্পুটনিক' বি ভ্যাকসিন দিয়েছিলেন দেবাঞ্জন। সব মিলিয়ে অন্তত ১০ জন স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিন নিয়েছেন এখনও পর্যন্ত। তবে সেটা আদৌ স্পুটনিক ভি কিনা, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

সবথেকে বড় প্রশ্ন, স্পুটনিক ভি সরকারের ঘরে নেই। তাহলে সিটি কলেজে যে তিনজনকে স্পুটনিক' দাবি করে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে সেই ভ্যাকসিন কোথা থেকে এল? জানা গিয়েছে, সিটি কলেজে ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্প করার আগে দেবাঞ্জন জানিয়েছিলেন, কলেজের সবাইকে স্পুটনিক' ভি দেওয়া হবে। কিন্তু কলেজ কর্তৃপক্ষ কোভিশিল্ড অথবা কোভ্যাকসিনের জন্য জোর করতে থাকে। এরপর কোভিশিল্ড দেওয়া হয়। তাহলে কি কোন বেসরকারি হাসপাতালও এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত? উঠছে প্রশ্ন।

Published by:Suman Biswas
First published: