Home /News /kolkata /
Fake travel agency : মাত্র ১৫ হাজার টাকায় ব্যাংকক ভ্রমণ! কোটি টাকার প্রতারণা করে চম্পট সল্টলেকের সংস্থার

Fake travel agency : মাত্র ১৫ হাজার টাকায় ব্যাংকক ভ্রমণ! কোটি টাকার প্রতারণা করে চম্পট সল্টলেকের সংস্থার

মাত্র ১৫ হাজার টাকায় ব্যাংকক ভ্রমণ! কোটি টাকার প্রতারণা করে চম্পট সল্টলেকের সংস্থার

মাত্র ১৫ হাজার টাকায় ব্যাংকক ভ্রমণ! কোটি টাকার প্রতারণা করে চম্পট সল্টলেকের সংস্থার

Fake travel agency : ১৫ হাজার টাকায় তিনরাত তিনদিনের ব্যাংকক ট্যুর প্রলোভন দেখিয়ে বিজ্ঞাপন দিয়েছিল সর্কি ট্রাভেলস 'নামে একটি সংস্থা।

  • Share this:

#কলকাতা: সল্ট লেক সেক্টর ফাইভে ভুয়ো অফিস (Fake travel agency) খুলে আবার প্রতারণা চক্রের হদিশ পুলিশের। ফেসবুকের ট্যুর অ্যান্ড ট্রাভেলস বিজ্ঞাপন দিয়ে টাকা হাতিয়ে প্রতারণার অভিযোগ একটি ট্যুর ট্রাভেলস এজেন্সির বিরুদ্ধে। ১৫ হাজার টাকায় তিনরাত তিনদিনের ব্যাংকক ট্যুর প্রলোভন দেখিয়ে বিজ্ঞাপন দিয়েছিল সর্কি ট্রাভেলস 'নামে একটি সংস্থা। এছাড়াও দুবাই, আন্দামান থেকে আরম্ভ করে আরো প্রচুর ভ্রমণ স্থানের বিজ্ঞাপন দিয়েছিল।

প্রতিটি জায়গায় জন প্রতি প্লেন ভাড়া সমেত খাওয়া থাকা সব নিয়ে ১৫-১৮ হাজার টাকা প্যাকেজ। ১০০ জনের উপরে ওখানে অগ্রিম টাকা জমা করেছিলেন। অনুমান এক মাসে এক কোটি টাকার কাছাকাছি প্রতারণা করে পালিয়েছে ওই সংস্থা। সার্কি ট্রাভেলস নামে ওই সংস্থাটি (Fake travel agency) চালাত নেহা শ্রীবাস্তব, রোহিত গুপ্তা ও বিকাশ কুমার নামের তিনজন। জানুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে অফিস খোলে। ফেব্রুয়ারি মাসের ১ তারিখের পর থেকে আর ওই তিনজনকে পাওয়া যায়নি।

প্রতারিতরা ফোনে যোগাযোগ করতে চাইলে, ফোন সুইচ অফ বলে। যাঁদের এই মাসে সাত তারিখ ব্যাংকক বেড়াতে যাওয়ার কথা, তাঁরা তাঁদের প্লেনের টিকিট নিতে এসে দেখছে অফিসটি ফাঁকা। স্বর্ণালী সাহা, প্রিয়াঙ্কা চক্রবর্তী, দিব্যাংশু আগরওয়ালরা পরিবারের সবাই মিলে বেড়াতে যাওয়ার জন্য, কেউ ৩০ হাজার, কেউ ৮০ হাজার টাকা, আবার কেউ ৬০ হাজার টাকা অগ্রিম বুকিং হিসাবে দিয়েছিলেন। এখন সবার মাথায় হাত।

আরও পড়ুন- শুধু শ্বাসকষ্টই নয়, কোভিড সংক্রমণের ফলে দেখা দেয় পেট ব্যথার মতো উপসর্গও, জানুন বিশদে!

ওই সংস্থায় ১০-১২ জন কাজ করতেন। তার মধ্যে রত্না দাস বিজনেস ডেভেলপিং এর কাজ করতেন। তিনি বলেন, তাঁরা শুধু ট্যুরের বিষয়ে সবাইকে বোঝাতেন। টাকা নিতেন কর্তারা। রত্নার ১৪ হাজার টাকা বেতন ছিল মাসে। হঠাৎই ২ তারিখ এসে তাঁরা দেখেন অফিস ফাঁকা। চাকরি খুইয়ে বসেছেন সবাই। তাঁরাও থানায় গিয়েছেন অভিযোগ জানাতে।

পুলিশ প্রতারণার (Fake travel agency) মামলা করে তদন্ত শুরু করেছে। তবে ইলেকট্রনিক্স থানাতে এটা প্রথম না। এই ধরনের অভিযোগ প্রায়ই আসে। তবে আশ্চর্যের বিষয়,মাত্র ১৫ হাজার টাকায় প্রলোভনের ফাঁদে পা দেওয়ার আগে একজন পর্যন্ত ভেবে দেখেননি কেন?এই খরচে কোনও ভাবে ব্যাংকক ঘুরে আসা সম্ভব কি? এই প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published:

Tags: Fraud, Kolkata

পরবর্তী খবর