• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • আচমকাই কীভাবে জাঁকজমক বেড়েছিল ‘ভুয়ো’ ডাক্তার অরদীপের ?

আচমকাই কীভাবে জাঁকজমক বেড়েছিল ‘ভুয়ো’ ডাক্তার অরদীপের ?

বুধবার গভীর রাতে লেকটাউনের বাড়ি থেকেই গ্রেফতার করা হয় তাকে। আজ তাকে বিধাননগর আদালতে তোলা হয়।

বুধবার গভীর রাতে লেকটাউনের বাড়ি থেকেই গ্রেফতার করা হয় তাকে। আজ তাকে বিধাননগর আদালতে তোলা হয়।

বুধবার গভীর রাতে লেকটাউনের বাড়ি থেকেই গ্রেফতার করা হয় তাকে। আজ তাকে বিধাননগর আদালতে তোলা হয়।

  • Share this:

    #কলকাতা: শহরে ফের এক জাল চিকিৎসক গ্রেফতার। ধৃতের নাম অরদীপ চট্টোপাধ্যায়। বুধবার গভীর রাতে লেকটাউনের বাড়ি থেকেই গ্রেফতার করা হয় তাকে। আজ তাকে বিধাননগর আদালতে তোলা হয়।

    নিজেকে এমডি অঙ্কোলজিস্ট বলে পরিচয় দিতেন অরদীপ চট্টোপাধ্যায়। লেকটাউনের এস কে দেব রোডের উপর ঝাঁ চকচকে বাড়ি। তার একতলাতেই ১২ শয্যা নিয়ে হাসপাতাল। বাইরে সাইনবোর্ড ঝোলানো। এ হেন চিকিৎসকের নাকি নেই কোনও এমবিবিএস ডিগ্রি। নেই কোনও রেজিস্ট্রেশনও। সামান্য উচ্চ মাধ্যমিক পাশ অরদীপের এই কীর্তিতে অবশ্য অবাক হচ্ছে না পাড়ার লোকেরা। তাদের বক্তব্য, আচমকাই জাঁকজমক বেড়েছিল অরদীপের। চিকিৎসার মান নিয়ে বিস্তর অভিযোগও ছিল তাদের। পুলিশের কাছে অভিযোগও জমা পড়েছিল। পুলিশ স্বতঃপ্রণোদিত মামলা করে তদন্ত শুরু করে।

    আরও পড়ুন-

    দু’দিনের হেফাজত হলেও ‘ভুয়ো ডাক্তার’ অরোদীপকে নিয়ে আদালতে অস্বস্তিতে পুলিশ

    বাবা অসীম কুমার চট্টোপাধ্যায় হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক, পাড়ায় চেম্বারও আছে তাঁর। কিন্তু ছেলের এই কীর্তি নিয়ে মুখ খুলতে চাইছেন না বাড়ির কেউই। অরদীপ নিজে বলছেন বিদেশ থেকে নাকি তিনি ডিগ্রি নিয়ে এসেছেন, যদিও সার্টিফিকেট দেখাতে পারেননি।

    lake town fake doctor 3

    বৃহস্পতিবার তাকে বিধাননগর আদালতে তোলা হয়। তার বিরুদ্ধে প্রতারণা, ষড়যন্ত্র-সহ একাধিক ধারায় মামলা করা হয়েছে। তবে ওই হাসপাতালে অন্য কোনও চিকিৎসক আসতেন কি না, বা ওখানে ক্যান্সারের কী ধরণের ট্রিটমেন্ট চলতে তা জানেন না ওই হাসপাতালে নিরাপত্তারক্ষীও।

    প্রতিদিন রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় একের পর এক ভুয়ো চিকিৎসক ধরা পড়ছে। গ্রেফতার হওয়া ভুয়ো চিকিৎসকদের সঙ্গে নাম জড়িয়েছে কলকাতার নামী দামী হাসপাতালেরও।

    First published: