• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • FAKE DENTISTS ARE TREATING PEOPLE ALL OVER WEST BENGAL CONFIRMS DENTAL COUNCIL DMG

Fake Dentist in Bengal: রাজ্যে জুড়ে ছড়িয়ে হাজার হাজার ভুয়ো ডেনটিস্ট! ভাড়ায় মিলছে রেজিস্ট্রেশন নম্বরও

ডেন্টাল কাউন্সিলের ওয়েবসাইটেই তিন হাজার ভুয়ো চিকিৎসকের নাম৷

হ্যাক হওয়ার পর দেখা যায়, ডেন্টাল কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে প্রায় ১১ হাজার দন্ত চিকিৎসকের নাম রয়েছে (Fake Dentist in Bengal)।

  • Share this:

রাজ্যে জুড়ে ছড়িয়ে হাজার হাজার ভুয়ো ডেনটিস্ট! ভাড়ায় মিলছে রেজিস্ট্রেশন নম্বরওকয়েক বছর আগেই রাজ্য জুড়ে একের পর এক ভুয়ো চিকিৎসকের সন্ধান মিলেছিল৷ বেশ কিছুদিন হইচইয়ের পর সেসবই ধামাচাপা পড়ে গিয়েছে৷ কিন্তু ভুয়ো চিকিৎসকদের কারবার যে বন্ধ হয়নি, তা ফের স্পষ্ট হয়ে গেল৷ তবে শুধু সাধারণ চিকিৎসকই নন, রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে বেশ কয়েক হাজার ভুয়ো দন্ত চিকিৎসকও ছড়িয়ে রয়েছে বলে প্রমাণ পেল রাজ্য ডেন্টাল কাউন্সিল৷

গত কয়েকদিনের মধ্যে ডেন্টাল কাউন্সিলের ওয়েবসাইট দু' বার হ্যাক করা হয়েছে বলে অভিযোগ। রাজ্যে ৮ হাজার দন্ত চিকিৎসকের নাম ডেন্টাল কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে নথিভুক্ত রয়েছে৷ কিন্তু হ্যাক হওয়ার পর দেখা যায়, ডেন্টাল কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে প্রায় ১১ হাজার দন্ত চিকিৎসকের নাম রয়েছে। অর্থাৎ প্রায় তিন হাজার ভুয়ো চিকিৎসকের নাম এবং রেজিস্ট্রেশন নম্বর ডেন্টাল কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে ঢুকিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ৷

রাজ্য ডেন্টাল কাউন্সিলের সদ্য নির্বাচিত সভাপতি রাজু বিশ্বাসের অভিযোগ, গোটা রাজ্য জুড়েই অসংখ্য ভুয়ো দাঁতের চিকিৎসক ছড়িয়ে রয়েছে৷ কোনওরকম প্রশিক্ষণ এবং আধুনিক যন্ত্রপাতি ছাড়াই তারা মানুষের চিকিৎসা করছেন৷ এই ধরনের দাঁতের চিকিৎসার জেরে রোগীদের যেমন ক্ষতি হচ্ছে, সেরমই বিনা প্রশিক্ষণে এই ধরনের চিকিৎসা করায় থুতু বা লালার মাধ্যমে এক রোগীর থেকে অন্যজনের শরীরে বিভিন্ন ধরনের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে বলেও অভিযোগ করেছেন রাজ্য ডেন্টা কাউন্সিলের সভাপতি৷ তাঁর চাঞ্চল্যকর অভিযোগ, রাজ্যের বেশ কয়েকজন নামী দন্ত চিকিৎসকের খোঁজ মিলেছে, যাঁরা নিজেদের রেজিস্ট্রেশন নম্বর এই ভুয়ো চিকিৎসকদের ব্যবহারও করতে দিচ্ছেন৷

আবার অনেক ক্ষেত্রেই ভুয়ো চিকিৎসকরা আসল চিকিৎসকদের রেজিস্ট্রেশন নম্বরও ব্যবহার করছে৷ যেমন সল্টলেকের বাসিন্দা শৌণক রায়৷ ২০০৬ সালে বিডিএস ডিগ্রি পান শৌণক বাবু৷ বর্তমানে খড়দহের বলরাম হাসপাতালের সঙ্গে যুক্ত তিনি৷ সম্প্রতি শৌণক রায় জানতে পারেন, তাঁর রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার করেই কৃষ্ণনগরে রীতিমতো চেম্বার খুলে রোগী দেখছেন বি মণ্ডল নামে এক ভুয়ো দাঁতের ডাক্তার৷ বিষয়টি জানতে পেরেই পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছেন শৌণক বাবু৷ তাঁর অভিযোগ, এই ধরনের ভুয়ো চিকিৎসকদের জন্যই প্রকৃত চিকিৎসকদের বদনাম হচ্ছে৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published: