• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • Babul Supriyo and Jitendra Tiwari: বাবুল তৃণমূলে, 'প্রতিদ্বন্দ্বী' পেট চালাতে হাইকোর্টে! ফের BJP-বিচ্ছেদের আভাস?

Babul Supriyo and Jitendra Tiwari: বাবুল তৃণমূলে, 'প্রতিদ্বন্দ্বী' পেট চালাতে হাইকোর্টে! ফের BJP-বিচ্ছেদের আভাস?

জিতেন্দ্র-জল্পনা

জিতেন্দ্র-জল্পনা

Babul Supriyo and Jitendra Tiwari: তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি ,পুরনিগমের ভোটের আগেও 'খেলা হবে'। বাবুল সুপ্রিয়র তৃণমূলে যোগদানের পর আসানসোলে শুরু হয়েছে জোর চর্চা। এবার কি জিতেন্দ্র তিওয়ারির পালা?

  • Share this:

#কলকাতা:  বাবুল সুপ্রিয়র তৃণমূলে (Babul Supriyo in TMC) যোগদানের পর জিতেন্দ্র তিওয়ারির (Jitendra Tiwari) গতিপ্রকৃতি নিয়ে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে। শনিবার জাতীয় ও রাজ্য রাজনীতিতে চমক দিয়ে তৃণমূলে যোগদান করেছেন আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo)। তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি ,পুরনিগমের ভোটের আগেও 'খেলা হবে'। বাবুলের তৃণমূলে যোগদানের পর আসানসোলে শুরু হয়েছে জোর চর্চা। এবার কার পালা ?

শাসকদলের এক সময়ের দাপুটে নেতা , প্রাক্তন মেয়র তথা বর্তমানে বিজেপি নেতা জিতেন্দ্র তিওয়ারির  (Jitendra Tiwari) গতিপ্রকৃতি নিয়ে শুরু হয়েছে গুঞ্জন। ইতিমধ্যেই নিজের ফেসবুক  পেজের প্রোফাইল  পিকচার থেকে সরে গেছে বিজেপির পোস্টার।  রাজনৈতিক কোনও বক্তব্য বা পোস্টার তাঁর পেজে দেখা যাচ্ছে না। পরিবর্তে দেখা যাচ্ছে  একাধিক ডবল মিনিং মোটিভেশনল পোস্ট। বিভিন্ন স্বনামধন্য ব্যক্তিত্বের স্মরণীয় দিন উল্লেখ করে পোস্ট। যদিও  সেই তালিকায় দেখা মেলেনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্মদিন উপলক্ষে সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনও পোস্ট।

এমনকী বর্তমানে আসানসোলেও  থাকছেন না জিতেন্দ্র তিওয়ারি। বিজেপিতে থাকলেও ইদানিং দলীয় কোনও কর্মসূচিতে  দেখা যাচ্ছে না তাঁকে। এমনকি দীর্ঘদিন আসানসোলেও দেখা যাচ্ছে না তাঁকে। কলকাতা হাইকোর্টে আইনজীবি হিসাবে প্র্যাক্টিস শুরু করেছেন জিতেন্দ্র তেওয়ারি। কার্যত পরিবার-পরিজন নিয়ে পাকাপাকিভাবে থাকছেন কলকাতাতেই। গত ২৬ অগস্ট তিনি কলকাতা হাইকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য হওয়ার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন।

হাইকোর্টে আইনজীবী হিসেবে প্র্যাকটিস করার বিষয়টিও লেখেন। তারপর থেকে তিনি আসানসোল মুখো হননি। স্বাভাবিকভাবেই তাঁর রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা। বিধানসভা নির্বাচন শেষ হওয়ার পরেও আসানসোল শিল্পাঞ্চল তথা পশ্চিম বর্ধমান জেলা জুড়ে রাজনীতির ময়দানে বেশ সক্রিয় ছিলেন জিতেন্দ্র। শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে নানা ইস্যুতে সরব হচ্ছিলেন। আসানসোল পুরনিগমের পুরপ্রশাসক বোর্ডের সমালোচনাও করতে পিছপা হননি। সোশাল মিডিয়াতেও শাসকদলের বিরুদ্ধে বেশ আক্রমণাত্মক ছিলেন।  কিন্তু আগষ্ট মাস থেকে তাঁকে আর সেই ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে না। কোনও এক 'অজ্ঞাত' কারণে গুটিয়ে রেখেছেন নিজেকে।

আরও পড়ুন: আমেজ বদলাচ্ছে ভবানীপুর, মঙ্গলে ময়দানে 'প্রধান মুখ'! পাল্টা ঘরে-ঘরে দুই সেনাপতি

এরমধ্যে আরও উল্লেখযোগ্য বিষয় হল,  সোশাল মিডিয়ায় নিজের ছবি সহ প্রোফাইলের সবকিছুর বিস্তর পরিবর্তন ঘটিয়েছেন  জিতেন্দ্র তিওয়ারি।আসানসোল পুরনিগমের প্রাক্তন মেয়র , বিধায়ক  তথা বিজেপি নেতা জিতেন্দ্র তিওয়ারি বর্তমানে রাজনীতি থেকে দূরত্ব বজায় রাখছেন বলে মনে করছেন অনেকেই। এইসব কিছু কী নতুন কোনও সমীকরণের ইঙ্গিত ? এই নিয়ে রাজনীতির অন্দরমহলে আলোচনা চলছে জোরকদমে। বিশেষ করে আসানসোলের তারকা সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র তৃণমূলে যোগদানের পর ফের জিতেন্দ্রকে নিয়ে শুরু হয়েছে নয়া রাজনৈতিক জল্পনা। যদিও নিউজ 18 বাংলা-র মুখোমুখি হয়ে জিতেন্দ্র তিওয়ারি বলেন, 'এই মূহূর্তে প্রাক্তন বিধায়কের ভাতা ছাড়া আর কোনও আয় নেই। সংসার চালাতেই  কলকাতা হাইকোর্টে তিনি আইনজীবী হিসেবে নিজের পুরনো পেশায় মন দিয়েছেন'। আসানসোল গেরুয়া শিবিরের নেতৃত্ব দেওয়ার কী হবে ? জিতেন্দ্রর কথায়, আমি দলে কোনও পদে নেই। আমি যখন ফিরে যাব, তখন যদি কোনও কর্মসূচিতে দল দায়িত্ব দেয় নিশ্চয়ই তা পালন করব।' তবে পুরনো দল তৃণমূলে যোগদানের  জল্পনা উড়িয়ে দেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি। কিন্ত বাবুল সুপ্রিয় যেভাবে রাজনীতি থেকে সন্ন্যাস নেওয়ার কথা ঘোষণা করে ফের সক্রিয় রাজনীতিতে অংশ নিলেন, এবার কি সেই পথেই হাঁটবেন জিতেন্দ্রও? উত্তর দেবে সময়ই।

Published by:Suman Biswas
First published: