• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • রাজ্যে করোনা আক্রান্ত বেড়ে ৪৯, একই পরিবারের ছ' জনের শরীরে সংক্রমণ

রাজ্যে করোনা আক্রান্ত বেড়ে ৪৯, একই পরিবারের ছ' জনের শরীরে সংক্রমণ

রাজ্যে করোনা আক্রান্ত বেড়ে ৪৯৷ PHOTO- FILE

রাজ্যে করোনা আক্রান্ত বেড়ে ৪৯৷ PHOTO- FILE

রাজ্যের হিসেব অনুযায়ী বারোজন রোগী করোনা মুক্ত হয়েছেন৷ তিন জনের মৃত্যু হয়েছে৷

  • Share this:

    #কলকাতা: একদিনেই রাজ্যে নতুন করে এগারো জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ মিলল৷ তবে পশ্চিমবঙ্গে নতুন করে কোনও করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হয়নি৷ গত চব্বিশ ঘণ্টায় এ রাজ্যে যে এগারোজন নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, তাঁদের মধ্যে একই পরিবারের ৬ জন রয়েছেন৷ এই ৬ জনই কালিম্পঙের করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত মহিলার পরিবারের সদস্য৷

    রাজ্যের মুখ্যসচিব এ দিন জানান, গত চব্বিশ ঘণ্টায় পশ্চিমবঙ্গে আরও ১১ জন করোনা আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে৷ ফলে এরাজ্যে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪৯৷ যাঁরা হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন বা মৃত্যু হয়েছে, সেই সংখ্যা এর মধ্যে ধরা নেই৷

    রাজ্যের হিসেব অনুযায়ী বারোজন রোগী করোনা মুক্ত হয়েছেন৷ তিন জনের মৃত্যু হয়েছে৷

    রাজ্যে এই মুহূর্তে করোনা পরীক্ষার জন্য সাতটি কেন্দ্র রয়েছে৷ এর মধ্যে পাঁচটি সরকারি এবং দু'টি বেসরকারি হাসপাতাল রয়েছে৷ আরও বেশ কয়েকটি পরীক্ষাকেন্দ্র চালু করার জন্য আইসিএমআর-এর কাছে অনুমোদন চাওয়া হয়েছে৷ গোটা রাজ্যে সরকারি বেসরকারি মিলিয়ে মোট ৫৯টি হাসপাতালে করোনা চিকিৎসার পরিকাঠামো গড়ে তোলা হয়েছে৷

    রাজ্য সরকার মোট ৫১৬টি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার তৈরি করেছে৷ আপাতত ২৬২৬ জন সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রয়েছেন৷ ৫২০৮০ জন রয়েছেন হোম কোয়ারেন্টাইনে৷ হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে ৩০৩৬ জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে৷ সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৩৩৮৬ জন৷ রাজ্যের মুখ্যসচিব এ দিন দাবি করেছেন, করোনা ভাইরাস নিয়ে তথ্য চেপে গোপন করার কোনও চেষ্টা করছে না সরকার৷

    দিল্লির নিজামুদ্দিনের ধর্মীয় জমায়েতে যোগদানকারী হলদিয়া বন্দরের যে শ্রমিকের শরীরে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে, তাঁর পরিবার এবং সংস্পর্শে আসা সবাইকেই কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে৷ জীবাণুমুক্ত করা হয়েছে গোটা হলদিয়া বন্দর৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: