Home /News /kolkata /
মাত্র ১০০টি শিক্ষক পদ শূন্য, আবেদনপত্র জমা পড়ল প্রায় ১৮ হাজার

মাত্র ১০০টি শিক্ষক পদ শূন্য, আবেদনপত্র জমা পড়ল প্রায় ১৮ হাজার

আবেদন করার ফি ৫০০ টাকা । ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং, ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে ফি দেওয়া যাবে । (ছবি: সংগৃহীত)

আবেদন করার ফি ৫০০ টাকা । ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং, ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে ফি দেওয়া যাবে । (ছবি: সংগৃহীত)

মাত্র ১০০টি শিক্ষক পদ শূন্য, আবেদনপত্র জমা পড়ল প্রায় ১৮ হাজার

  • Share this:

     #কলকাতা: রাজ্যে বহুদিন ধরেই বাধাপ্রাপ্ত শিক্ষক নিয়োগ ৷ দীর্ঘদিনের আইনি বাধা কাটিয়ে চলতি বছরই সম্পন্ন হয়েছে প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ ৷ তবে এখনও অসম্পূর্ণ উচ্চপ্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্তরের শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া ৷ এমতাবস্থায় রাজ্যে শিক্ষিত চাকরিপ্রার্থীদের মধ্যে শিক্ষক পদে চাকরির চাহিদা ও তা নিয়ে উন্মাদনার চিত্রটা আরও একবার সামনে এল ৷

    সম্প্রতি কলকাতা পৌরনিগমের অধীনস্থ স্কুলগুলির জন্য শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছিল পুরসভা ৷ মাত্র ১০০টি শূন্যপদের জন্য প্রায় ১৮ হাজারেরও বেশি পরীক্ষার্থীর আবেদনপত্র জমা পড়ে ৷ পুরসভা স্কুলে শিক্ষক হিসেবে যোগদান করতে চেয়ে আবেদন করেছেন সাধরণ স্নাতক থেকে মাস্টার্স ডিগ্রিধারী, গবেষণারত পরীক্ষার্থীরাও ৷এই পদের জন্যে যোগ্যতামান উচ্চ মাধ্যমিক হলেও, আবেদনকারীদের ডিগ্রি দেখে হতবাক পুরকর্তারা।

    আরও পড়ুন 

    পুরসভা স্কুলের শিক্ষক পদে লিখিত পরীক্ষা ৩১ ডিসেম্বর, অ্যাডমিট পাবেন কিভাবে জেনে নিন

    রেলের গ্রুপ ডি হোক বা স্বাস্থ্য দফতরের গ্রুপ সি। সরকারি চাকরির প্রতি অমোঘ আকর্ষণে পিএইচডি থেকে মাস্টার ডিগ্রি, আবেদনকারীদের মধ্যে এমন শিক্ষিত হামেশাই মেলে। এবার কলকাতা পুরসভার স্কুলে চুক্তিভিত্তিক শিক্ষক নিয়োগেও আবেদনকারীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা দেখে চোখ কপালে ওঠার যোগাড়। ১০০ জন চুক্তিভিত্তিক শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞাপনে সাড়া দিয়ে আবেদন করেছেন আঠেরো হাজারেরও বেশি। আবেদনকারীদের মধ্যে আছেন রিসার্চ স্কলারও। আছেন স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারীরাও। মাত্র ১০০টি শূন্যপদে এত বিপুল পরিমাণ আবেদনপত্রই চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে রাজ্যে শিক্ষক হিসেবে কাজ করার জন্য চাকরিপ্রার্থীদের উন্মাদনা ৷

    এর আগে পুরসভার পাঁচটি স্কুলকে পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণিতে উন্নীত করা হয়েছে। জানা গেছে শিক্ষা দফতরের অনুমোদন আরও কিছু শূন্যপদ তৈরি হবে। কিন্তু যেভাবে চুক্তিভিত্তিক শিক্ষকপদে উচ্চশিক্ষিত আবেদনকারীর ছড়াছড়ি, তাতে প্রার্থী বাছাই নিয়েও ধন্দে পুরসভা।

    First published:

    Tags: Teacher Recruitment, Teacher Recruitment Process

    পরবর্তী খবর