মাধ্যমিক-উচ্চমাধ্যমিক নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত কালই? দফতরে যাচ্ছেন ব্রাত্য বসু

আগামিকাল থেকে শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে দফতরে যাচ্ছেন ব্রাত্য বসু।

শুধু তাই নয় এখনও পর্যন্ত মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়ে কী কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তার বিস্তারিত রিপোর্ট নিয়ে আসতে বলা হয়েছে বলেই সূত্রের খবর।

  • Share this:

#কলকাতা: মাধ্যমিক-উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ভবিষ্যৎ কী? এখন এটাই প্রশ্ন লক্ষাধিক ছাত্রছাত্রীদের কাছে। আগামিকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবারই কার্যত পরীক্ষার ভবিষ্যৎ নিয়ে সিদ্ধান্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। অন্তত স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে তেমনটাই খবর। করোনা মুক্ত হবার পর বৃহস্পতিবারই দফতরে গিয়ে দায়িত্ব নিতে চলেছেন শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে ব্রাত্য বসু। দফতরে গিয়ে এই প্রথম বৈঠকেই মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক নিয়ে করবেন নয়া শিক্ষামন্ত্রী বলে স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর। বিকেল চারটে নাগাদ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ এবং উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতিদের আসতে বলা হয়েছে বৈঠকে বলেই জানা গিয়েছে। শুধু তাই নয় এখনও পর্যন্ত মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়ে কী কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তার বিস্তারিত রিপোর্ট নিয়ে আসতে বলা হয়েছে বলেই সূত্রের খবর। বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন স্কুলশিক্ষা কমিশনার এবং স্কুল শিক্ষা সচিব।

ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকার জানিয়েছে করোনা পরিস্থিতির কারণে জুন মাসে মাধ্যমিক- উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া হবে না। রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তের কথা মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় ইতিমধ্যেই তা ঘোষণা করেছেন। যদিও মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা আপাতত স্থগিত রাখা হলেও পরবর্তী সময়ে কবে পরীক্ষা নেওয়া হবে তা নিয়ে বিভিন্ন স্তরে শুরু হয়েছে আলাপ-আলোচনা। এবার তা নিয়েই আলোচনায় বসার জন্য বৃহস্পতিবার দপ্তরের দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রথম বৈঠক ডাকলেন মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু বলেই স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর। ইতিমধ্যেই মধ্যশিক্ষা পর্ষদের তরফে মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া হলে ছাত্র-ছাত্রীদের কী ভাবে নম্বর দেওয়া যেতে পারে তার বিকল্প প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। যদিও দশম শ্রেণির ইন্টারনাল পরীক্ষা শুধু মাত্র ১০ নম্বরের হয়েছে বলে প্রস্তাবে জানানো হয়েছে। পাশাপাশি নবম শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফলের ওপর মাধ্যমিকের নম্বর দিলে তা যুক্তিযুক্ত হবে না বলেও জানিয়েছে বলেও স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর।

তবে পরীক্ষা না নিলে তার বিকল্প উপায় কি হবে সেই বিষয়ে অবশ্য উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ নির্দিষ্টভাবে কোন প্রস্তাব রাজ্য সরকারের কাছে দেয়নি বলেই স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর। সে ক্ষেত্রে মাধ্যমিকের পরীক্ষা না হলে মার্কশিট কিভাবে দেওয়া হবে তা নিয়ে রীতিমতো চিন্তায় পর্ষদ। যদিও জুন মাসে বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কারণে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব নয় বলেও ইতিমধ্যেই জানায় পর্ষদ সরকারকে। বলতো পরীক্ষাটির জুলাই-আগস্ট মাসে হয় সে ক্ষেত্রে শিক্ষাবর্ষ পিছিয়ে দেওয়ার সম্ভাবনা থাকছে। তাই সব মিলিয়ে আগামী কালকের বৈঠক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে বলেই মনে করছেন স্কুল শিক্ষা দপ্তরের আধিকারিকরা। যদিও আগামিকালের বৈঠক নিয়ে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি বা উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি কেউই কোনো মন্তব্য করতে চাননি।

- সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Arka Deb
First published: