Home /News /kolkata /
জেরার পর বয়ানের কাগজে সই করাতে গেলে তা ছিঁড়ে ফেলেন পার্থ, চাঞ্চল্যকর অভিযোগ ইডি-র

জেরার পর বয়ানের কাগজে সই করাতে গেলে তা ছিঁড়ে ফেলেন পার্থ, চাঞ্চল্যকর অভিযোগ ইডি-র

পার্থকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পর, তাঁর বয়ানের কাগজ সই করাতে গেলে পার্থ নাকি তা ছিঁড়ে ফেলে দেন। বৃহস্পতিবার আদালতে এমনই দাবি করেছেন ইডির আইনজীবী।

  • Share this:

    #কলকাতা: বৃহস্পতিবার ১৪ দিনের জেল হেফাজত শেষে পার্থ-অর্পিতাকে আদালতে পেশ করা হয়! এদিন, আদালতে ইডির আইনজীবী দাবি করেন, পার্থ তদন্তে সহযোগিতা করেননি। অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে বিপুল অর্থের উৎস সম্পর্কেও মুখ খোলেননি প্রাক্তন মন্ত্রী। বুধবার জেলে পার্থকে জেরা করে ইডি। পার্থকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পর, তাঁর ফোন থেকে জীবন বিমা সংক্রান্ত তথ্য পাওয়ার কথা প্রাক্তন মন্ত্রীকে জানান ইডি-র আধিকারিকরা। পার্থকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পর, তাঁর বয়ানের কাগজ সই করাতে গেলে পার্থ নাকি তা ছিঁড়ে ফেলে দেন। বৃহস্পতিবার আদালতে এমনই দাবি করেছেন ইডির আইনজীবী।

     ইডি সূত্রে দাবি করা হয়েছ, মন্ত্রীর ফোন বাজেয়াপ্ত করার পর দেখা যায়, অর্পিতার নামে ৩১টি জীবন বিমা করা আছে, যাতে নমিনি হিসাবে রয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাম। শুধু তা-ই নয় পার্থর হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ ঘেটে  দেখা গিয়েছে, অর্পিতার বিমা সংক্রান্ত মেসেজ রয়েছে মন্ত্রীর ফোনে। এমনকী, বিমার কাগজপত্রে যোগাযোগের নম্বর হিসাবে পার্থর ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বর দেওয়া ছিল বলে দাবি করেছেন ইডির আইনজীবী ফিরোজ এডুলজি।

    ইডির আইনজীবী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জামিনের আর্জির বিরোধিতা করে বলেন, অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের নামে জীবন বিমাগুলিতে নমিনি হিসাবে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাম থাকা তাঁদের দু’জনের মধ্যে ‘ঘনিষ্ঠ’ সম্পর্ককেই ইঙ্গিত করে। কিন্তু জীবন বিমায় যে বিপুল টাকা বিনিয়োগ করা হয়েছে, সেই টাকার উৎস খোঁজা প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন ইডির আইনজীবী।

    বৃহস্পতিবার ইডি-র বিশেষ আদালতে ইডি-র আইনজীবী বলেন, পার্থর ৬০ ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট, ৩০টি ভুয়ো কোম্পানির হদিশ মিলেছে। পার্থ ঘনিষ্ঠদের নামে একাধিক কোম্পানির হদিশ মিলেছে। দুর্নীতির টাকা কোম্পানির নামে ট্রান্সফার হয়েছে। পার্থর স্ত্রীর ট্রাস্টের নামে মেদিনীপুরে স্কুল, উত্তর ২৪ পরগনার গোবাগাছিতে ফার্ম হাউস। পাশাপাশি, অর্পিতার LIC-র প্রিমিয়াম পার্থর অ্যাকাউন্ট থেকে যেত, চেন পদ্ধতিতে কালো টাকা সাদা করা হত।

    আরও পড়ুন: অর্পিতার দেওয়া গোপন তথ্যের ভিত্তিতে পার্থকে ৫ ঘণ্টা জেরা, আরও সম্পত্তির খোঁজে ইডি!

    আরও পড়ুন:  অনুব্রতর দেহরক্ষীর শেষ সাত বছরের ‘অসৎ’ আয় ২৬ লক্ষ! সায়গলের রহস্য ফাঁস হতেই চাঞ্চল্য

    আদালতে ইডি-র দাবি, অর্পিতার জীবন বিমার প্রিমিয়াম ভরতেন পার্থ, তিনিই ছিলেন নমিনি। পার্থর ফোন পরীক্ষা করে দেখা গিয়েছে, বিমা সংক্রান্ত যাবতীয় মেসেজ পার্থর ফোনেই আসত। কাজেই এটা জলের মতো পরিষ্কার, পার্থই বিমার সমস্ত টাকা দিতেন। উল্লেখ্য, এদিন আদালতে পার্থ-অর্পিতার জামিনের আবেদন খারিজ করে দেয় আদালত।  আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত পার্থ ও অর্পিতাকে জেল হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত।

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published:

    Tags: Partha Chatterjee

    পরবর্তী খবর