কলকাতা

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

স্পনসরের চাপে ক্রমশই ফিকে মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গলের আইএসএল ভাগ্য !

স্পনসরের চাপে ক্রমশই ফিকে মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গলের আইএসএল ভাগ্য !

লিগ জট আরও জটিল হল। স্পনসরের চাপে ক্রমশই ফিকে মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গলের আইএসএল ভাগ্য।

  • Share this:

#কলকাতা: লিগ জট আরও জটিল হল। স্পনসরের চাপে ক্রমশই ফিকে মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গলের আইএসএল ভাগ্য। কারণ, ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি মকুব হবে না। আজ, সোমবার দিল্লিতে বৈঠকের আগেই ফেডারেশনকে জানিয়ে দিল আইএমজিআর।

নীতিগত প্রশ্নে দুটি দিক। এক, এতদিন ভারতীয় ফুটবলকে সার্ভিস দেওয়ার পর ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি দেওয়া সম্ভব নয়। আর দুই এক শহর এক দল তত্ত্বে নিজেদের অধিকার থেকে সরে না আসা। দুটি পৃথক ইস্যুতে একজোট হয়ে গত কয়েকদিন ধরেই ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের উপর চাপ ক্রমাগত বাড়াচ্ছিল ময়দানের দুই প্রধান মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গল। এরমধ্যে একধাপ এগিয়ে গত ১৭ তারিখ মুম্বই গিয়ে আইএসএল খেলার দরপত্র তোলেন লাল-হলুদ কর্তারা। পড়শি বাগান কর্তাদের জন্যও পাঁচ লাখ টাকা খরচ করে দরপত্র তোলার কথা ছিল। কিন্তু আইনি জটিলতায় তা সম্ভব হয়নি। আইএসএল খেলার জন্য ইস্টবেঙ্গল এক পা বাড়ালেও, ফি মকুবে দাবিতে অনড় ছিল মোহনবাগান। তাই শুক্রবার ফেডারেশন সচিব কুশল দাশকে সরাসরি চিঠি দিয়ে সেই দাবি আরও পোক্ত করতে চান বাগান কর্তারা। আর কর্মসমিতির বৈঠকে এক শহর এক দলের অধিকার না ছাড়ার জন্য ইস্টবেঙ্গলকে একজোট হতে পরামর্শ দেন সচিব কল্যাণ মজুমদার। দুই ক্লাবের এই দাবি ফানুস আপাতত ফাটিয়ে দিল স্পনসর আইএমজিআর। বাগানকে বার্তা, ১৫ কোটি টাকার ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি মকুবের কোনও প্রশ্ন নেই। আর লাল-হলুদের সামনে প্রস্তাব, কলকাতা বাদে বাকি শহর থেকেই দর হাঁকতে হবে।

স্পনসরের এই কড়া অবস্থানের পর আর কিছুই রইল না। ময়দানের দাবি, ক্রমশই ফিকে হল আইএসএলে দুই প্রধানের খেলার ভাগ্য। তবুও ২২ তারিখের বৈঠকের দরজা এখনও খোলা। কুশলের দরবারে হয়তো থাকবে ইস্টবেঙ্গল। মোহনবাগান যাবে কীনা, সিদ্ধান্ত পরে।

First published: May 22, 2017, 9:29 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर