Durga Puja 2017: জন্ম থেকেই দুটি হাত ছোট ও বাঁকা, এভাবেই ৪০ বছর প্রতিমা গড়ছেন শিল্পী

আত্মবিশ্বাস ছিল। ছিল একবগ্গা জেদ। আর ছিল বাপ ঠাকুর্দার ব্যবসা টিকিয়ে রাখার মরিয়া তাগিদ।

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Aug 21, 2017 07:52 PM IST
Durga Puja 2017: জন্ম থেকেই দুটি হাত ছোট ও বাঁকা, এভাবেই ৪০ বছর প্রতিমা গড়ছেন শিল্পী
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Aug 21, 2017 07:52 PM IST

#কলকাতা: আত্মবিশ্বাস ছিল। ছিল একবগ্গা জেদ। আর ছিল বাপ ঠাকুর্দার ব্যবসা টিকিয়ে রাখার মরিয়া তাগিদ। তাঁর মনের ইচ্ছের কাছে হার মানে প্রতিবন্ধকতাও। তাতে কী? সৃষ্টি সুখের আনন্দে ভাঙাচোরা শরীরেই অসম লড়াই-টা চালিয়ে যাচ্ছেন শিল্পী।

জন্ম থেকেই দুটি হাত ছোট। বাঁকা। শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী। কিন্তু নিজেকে বুঝতে দেননি কখনই। গত চল্লিশ বছর এভাবেই প্রতিমা গড়ছেন কুমোরটুলির অশোক পাল। অর্থ। সম্মান । সাহায্য। কিছুই জোটেনি।

কুমোরটুলির শিল্পীর ঘর। সাত আট পুরুষের পারিবারিক ব্যবসা। দুটি অকোজো হাত নিয়ে যখন জন্মাল শিশু , প্রমাদ গুণলেন সকলে। কিভাবে বাপ ঠাকুর্দার ব্যবসা এগিয়ে নিয়ে যাবে এই ছেলে? তখন কেউ ভাবতেও পারেননি শিশুর ছোট, বাঁকা হাত ধরেই বাঁচিয়ে রাখবে পারিবারিক মৃৎশিল্পের ব্যবসা। ৪০ বছর কুমোরটুলির এক প্রান্তে মূর্তি গড়ে চলেছেন অশোক পাল।

শিল্পচর্চায় বেঁচে থাকার তাগিদ। টিকে থাকার মরিয়া একবগ্গা জেদ। ভিড়ের মধ্যে আলাদা করেছে অশোক পালকে। মূল কাঠামো গড়েন নিজেই। পরে কাজ এগিয়ে নিয়ে যান লেবাররা। যদিও আজও প্রতিমার মুখ নিখুঁত হয়ে ওঠে শিল্পীর এই বাঁকা হাতেই। এই হাতেই হয় চক্ষুদান ।

এখন বয়স হয়েছে। আগের চেয়ে কমিয়ে দিয়েছেন কাজ। এখন আশেপাশের বাড়ির ঘরোয়া প্রতিমা তৈরি করেন শিল্পী। নিজের প্রতিবন্ধকতা নিয়ে কোন আক্ষেপ নেই। আক্ষেপ সরকারি সাহায্য নিয়ে। অর্থ, সম্মান কিছুই জোটেননি। আর্থিক সহযোগিতা পেলে এখনও বড় কাজ করতে চান অশোক পাল।

প্রতিমা তৈরির লড়াইয়ে নেই। লড়াইটা কুমোরটুলির যাবতীয় অব্যবস্থার সঙ্গে। নিজের নয়, পারিপার্শ্বিক প্রতিবন্ধকতার বিরুদ্ধে অসম লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন শিল্পী।

First published: 07:49:27 PM Aug 21, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर