• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • DUMDUM GIRL CHEATED 25 THOUSAND AFTER BOOKED FOOD IN A POPULAR ONLINE FOOD DELIVERY APP SDG

Food Delivery App Fraud: ১৩০ টাকার খাবার অর্ডার করেছিলেন দমদমের তরুণী, খোয়ালেন ২৫,০০০ টাকা

অভিযোগকারী শতরূপা দাস।

অভিনব কায়দায় ফুড ডেলিভারি অ্যাপের (Online Food Delivery App) মাধ্যমে প্রতারণা। দমদমের (Dumdum) তরুণীর অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও হাজার হাজার টাকা।

  • Share this:

    #দমদম: অভিনব কায়দায় ফুড ডেলিভারি অ্যাপের (Online Food Delivery App) মাধ্যমে প্রতারণা। দমদমের (Dumdum) তরুণীর অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও হাজার হাজার টাকা। ইতিমধ্যেই গোটা বিষয়টি জানিয়ে দমদম এবং বারাকপুর সাইবার ক্রাইম (Cyber Crime) থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। শুরু হয়েছে তদন্ত।

    শতরূপা দাস নামে ওই তরুণী পেশায় মডেল। ১১ জুন শুক্রবার তিনি জনপ্রিয় অনলাইন ফুড ডেলিভারি অ্যাপের মাধ্যমে খাবার অর্ডার করেছিলেন। অনলাইনেই বিলও (Online Payment) মিটিয়ে দেন। কিন্তু দীর্ঘক্ষণ কেটে গেলেও সেই খাবার তিনি পাননি। এরপর বাধ্য হয়ে অ্যাপে থাকা ডেলিভারি বয়ের নম্বরে ফোন করেন শতরূপা। অভিযোগ, ডেলিভারি বয় ফোনে তাঁকে জানান, তিনি খাবার ডেলিভারি দিতে পারবেন না। ফলে, সেই অর্ডার যেন তিনি ক্যানসেল (Order Cancel) করে দেন। শতরূপার জানিয়েছেন, এরপরই তিনি সুইগির হেল্পলাইনে ফোন করে বিষয়টি জানান। সেখান থেকেই তাঁকে ‘এনি ডেস্ক’ অ্যাপ ডাউনলোড করতে বলা হয়। কথামতি সেই অ্যাপ ডাউনলোড করেন তিনি। এরপর সেখানে একটি কোড নম্বর স্ক্যান করতেই পাঁচ দফায় মোট ২৫০০০ টাকা গায়েব হয়ে যায় তাঁর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে।

    শতরূপার অভিযোগ, তাঁর টাকা ফেরত দেওয়ার নাম করে ২৫,০০০ টাকা গায়েব করে দেওয়া হয়েছে নিমেষের মধ্যে। শতরূপার দাবি, এই প্রতারণার সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন ডেলিভারি অ্যাপ সংস্থার কর্মীদেরই একাংশ। না হলে ফোন নম্বর তাঁরা পাবেন কী ভাবে! তিনি জানিয়েছেন, প্রতারক হিন্দিতে কথা বলছিলেন।এমনকি টাকা কেন কাটা হল জানতে চাইলে তাঁকে অকথ্য গালিগালাজ করা হয় বলে অভিযোগ। ইতিমধ্যে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। এই ঘটনার সঙ্গে জামতাড়া গ্যাংয়ের সদস্যরা যুক্ত কি না খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: