প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে স্বামীকে নৃশংসভাবে খুন করা সেই মনুয়াই এখন রেডিও জকি!

প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে স্বামীকে নৃশংসভাবে খুন করা সেই মনুয়াই এখন রেডিও জকি!

শনিবার এই দমদম সংশোধনাগারে চালু হল 'রেডিও দমদম'। প্রায় চার হাজার বন্দির এক ঘেয়েমি জীবনের একটু স্বাদ বদলে করার জন্য চালু হল এই রেডিও।

  • Share this:

SUJOY PAL

#কলকাতা: 'লগে রহো মুন্নাভাই' সিনেমায় বিদ্যা বালান ওরফে 'RJ জাহ্নবী' যেভাবে 'গুড মর্নিং মুম্বই...' বলত। প্রায় একইরকম ভাবে কথা বলতে শোনা যাবে 'RJ মনুয়াকে'। এবার রেডিও জকির ভূমিকায় মনুয়া মজুমদার। সাম্প্রতিককালে রাজ্যের সবথেকে বড় সাড়া জাগানো খুনের ঘটনায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত মনুয়া। প্রেমিকের সঙ্গে মিলে স্বামী অনুপমকে খুনের অভিযোগে সম্প্রতি তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। পুরনো পরিচয় যা-ই থাক সেসব ভুলে এখন সে অবশ্য রেডিও জকি। তবে 'আর জে মনুয়া' গোটা কলকাতার ঘুম ভাঙাবে না। শুধুমাত্র দমদম জেলের আবাসিকদের 'গুড মর্নিং' বলবে সে। কারণ, তার ঠিকানা এখন দমদম কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার।

শনিবার এই দমদম সংশোধনাগারে চালু হল 'রেডিও দমদম'। প্রায় চার হাজার বন্দির এক ঘেয়েমি জীবনের একটু স্বাদ বদলে করার জন্য চালু হল এই রেডিও। রোজ সকাল ৭টা থেকে বিকেল ৫টা অবধি চলবে এই রেডিও স্টেশন। সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ের জন্য বিভিন্ন ধরণের বাংলা গান বাজানো হবে সেখানে। আপাতত তিন হাজার বাংলা গান ঘুরিয়ে ফিরিয়ে চলবে। চলবে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা। জানানো হবে আবহাওয়া ও খেলার খবরও। 'রেডিও দমদম' শুধুমাত্র শোনা যাবে দমদম সংশোধনাগারের ভিতরেই।

এই রেডিও স্টেশনের জন্য আপাতত পাঁচজন বন্দিকে রেডিও জকি হিসেবে বেছে নিয়ে বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। মনুয়া ছাড়াও রয়েছে তুহিন রায়, জয়ন্ত সিনহা, পীযূষ ঘোষ ও জিনিয়া নন্দী রয়েছে রেডিও জকি হিসেবে। নতুন দায়িত্ব পেয়ে প্রত্যেকেই খুশি। আর মনুয়ার কথায়, "আমি নাচ খুব পছন্দ করি। তবে এখানে রেডিও জকি হিসেবে কিভাবে কথা বলতে হয়, কিভাবে গান চালাতে হয় তা সেখানো হয়েছে। খুব খুশি এই দায়িত্ব পেয়ে।"

মনুয়া জানিয়েছে সে রোজ সকালের শো করবে। সহ-আবাসিকদের ঘুম ভাঙাবে। এদিন 'রেডিও দমদম'-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কারামন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাসের পাশে দাঁড়িয়ে নিজে মুখেই শোনালো কিভাবে শুরু হবে তার শো।

"হ্যালো ফ্রেন্ডস গুড মর্নিং। তোমরা শুনছো রেডিও দমদম। আমি তোমাদের সঙ্গে রয়েছি মনুয়া...", এভাবেই শুরু হবে মনুয়ার শো।

কারামন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস বলেন, "গান মানুষের মন ভালো রাখে। তাই সারাদিন বাজবে বিভিন্ন গান। কথা বলবে আবাসিক আর জে রাই। মোট ১০০টি স্পিকার গোটা সংশোধনাগারে বসানো হয়েছে যাতে প্রত্যেকে অনুষ্ঠান শুনতে পায়।"

এজন্য সংশোধনাগারে একটি আলাদা ঘর করা হয়েছে। সেখানেই বিভিন্ন শিফটে প্রত্যেক আরজে কথা বলবে আবাসিকদের সাথে। তাদের অনুরোধের গানও শোনানো হবে। ভবিষ্যতে অন্যান্য সংশোধনাগারেও এরকম রেডিও চালু করার পরিকল্পনা রয়েছে করা দফতরের।

First published: February 8, 2020, 9:59 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर