corona virus btn
corona virus btn
Loading

যন্ত্রণার জলছবি ! আতঙ্কের দিন-গুজরান ! বৃষ্টিতে ঘরবন্দি ঠাকুরপুকুরের পূর্বাচল

যন্ত্রণার জলছবি ! আতঙ্কের দিন-গুজরান ! বৃষ্টিতে ঘরবন্দি ঠাকুরপুকুরের পূর্বাচল

অতিবৃষ্টিতে জলবন্দি। অন্তহীন দুর্দশায় দিন কাটছে ঠাকুরপুকুরের।

  • Share this:

#কলকাতা: বছর তিনেকের ফুটফুটে সন্তানকে কোলে নিয়ে বাড়ির দরজার গোড়ায় সিঁড়ির ওপরে বসেছিলেন সুপর্ণা। চোখে মুখে লেপটে রয়েছে একরাশ আতঙ্ক। তিন ধাপ সিঁড়ির একধাপ নামলেই থৈ থৈ জল। সেই দিকেই শূণ‍্য দৃষ্টিতে তাকিয়ে ছিলেন ঠাকুরপুকুরের পূর্বাচলের আর এন টেগোর রোডে এক যুগ কাটিয়ে দেওয়া পুরনো বাসিন্দা।

শুধু সুপর্ণা নন। এমন দুরাবস্থার শিকার ঠাকুরপুকুরের পূর্বাচল, নারকেল বাগান সহ অঞ্চলের অধিকাংশ পরিবার। সামান্য বৃষ্টিতেই জলমগ্ন হয়ে যায় কলকাতা পুরসভার অন্তর্গত এই অঞ্চল। বিচ্ছিন্ন দ্বীপের অবস্থা হয় গোটা এলাকার। বছর ঘুরতে চলল দুর্দশা শেষ নেই এলাকার বাসিন্দাদের। ঠাকুরপুকুরের এই অঞ্চল ভেসে ঘেঁষে বইছে চড়িয়াল খাল। সংস্কারের জন্য সেই খাল দীর্ঘদিন বন্ধ। আর তার ফলেই অন্তহীন দুর্ভোগের শিকার এলাকার সব মানুষ।

অগাস্ট মাসে জোড়া নিম্নচাপের ধাক্কায় তুমুল বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। শুক্রবার দিনভর বৃষ্টিতে জল যন্ত্রণায় কাহিল বেহালা ও ঠাকুরপুকুরের মানুষ। স্থানীয় বাসিন্দারা বলছিলেন,"বাড়িতে বাচ্চা, বয়স্কদের নিয়ে থাকতেই এখন ভয় হয়। রাত বিরেতে কেউ অসুস্থ হলে হাঁটু জল ভেঙে কোথায় যাব বলুন তো!" হাতের নাগালে যাকে পাচ্ছেন, ঘিরে ধরে ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন এলাকার বাসিন্দারা। কলকাতা পুরসভার ১২৪ নম্বর ওয়ার্ডের অন্তর্গত পূর্বাচল, নারকেলবাগানের জল-ছবিটা দেখলে সত্যিই দুর্দশার আসল ছবিটা পরিষ্কার হয়ে যায়। কলকাতার বুকে মানুষের এই জল যন্ত্রণা চোখে না দেখলে বিশ্বাস করা যায় না।

স্থানীয় বিদায়ী পুরপিতা রাজীব দাসকে চেষ্টা করে যোগাযোগ করা যায়নি। পার্শ্ববর্তী এলাকার বিদায়ী পূরপিতা সুদীপ পোল্লে বলছিলেন,"খাল সংস্কারের কাজ চলছে। আর তার ফলেই বেশি বৃষ্টি হলেই এলাকায় জল জমছে। বাসিন্দাদের দুর্ভোগ কমাতে পাম্প দিয়ে জল বার করার চেষ্টা চালাচ্ছে কলকাতা পুরসভা।"

PARADIP GHOSH
Published by: Piya Banerjee
First published: August 21, 2020, 10:13 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर