• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • রিপোর্টে প্রকাশ, মাদক পাচারকারীদের টার্গেট কলকাতা

রিপোর্টে প্রকাশ, মাদক পাচারকারীদের টার্গেট কলকাতা

টার্গেট কলকাতা। পঞ্জাব, উত্তরপ্রদেশের মতো রাজ্যে ধরপাকড় বেড়ে যাওয়ায় মাদক পাচারকারীদের র‍্যাডারে এবার পশ্চিমবঙ্গ। কিন্তু পাচারকারীদের ছক বানচাল করতে তৎপর রাজ্যের পুলিশ-প্রশাসন।

টার্গেট কলকাতা। পঞ্জাব, উত্তরপ্রদেশের মতো রাজ্যে ধরপাকড় বেড়ে যাওয়ায় মাদক পাচারকারীদের র‍্যাডারে এবার পশ্চিমবঙ্গ। কিন্তু পাচারকারীদের ছক বানচাল করতে তৎপর রাজ্যের পুলিশ-প্রশাসন।

টার্গেট কলকাতা। পঞ্জাব, উত্তরপ্রদেশের মতো রাজ্যে ধরপাকড় বেড়ে যাওয়ায় মাদক পাচারকারীদের র‍্যাডারে এবার পশ্চিমবঙ্গ। কিন্তু পাচারকারীদের ছক বানচাল করতে তৎপর রাজ্যের পুলিশ-প্রশাসন।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: টার্গেট কলকাতা। পঞ্জাব, উত্তরপ্রদেশের মতো রাজ্যে ধরপাকড় বেড়ে যাওয়ায় মাদক পাচারকারীদের র‍্যাডারে এবার পশ্চিমবঙ্গ। কিন্তু পাচারকারীদের ছক বানচাল করতে তৎপর রাজ্যের পুলিশ-প্রশাসন। কলকাতা-সহ রাজ্যজুড়ে চলছে তল্লাশি, অভিযান। ধৃত পাচারকারীদের জেরা করে উঠে আসছে একাধিক চাঞ্চল্যকর তথ্য।

    উড়তা পঞ্জাবে রক স্টার টমি সিংয়ের মতোই  মাদকে আসক্ত হয়ে পড়ছে বহু তরুণ-তরুণী। এ রাজ্যেও কম বয়েসিদের ধরতে স্কুল-কলেজের ফেস্টের মতো অনুষ্ঠানকে বেছে নিচ্ছে মাদক পাচারকারীরা।

    পঞ্জাব, উত্তরপ্রদেশ, মণিপুরের মতো বাংলায় মাদকের চল তুলনায় কম। মাদকের রমরমা কমাতে সম্প্রতি ওই রাজ্যগুলিতে ব্যাপক ধরপাকড় শুরু হয়েছে। ২০১১ থেকে ২০১৪ সালের পরিসংখ্যান বলছে ৷ মাদক মামলায় গ্রেফতারের সংখ্যা অনেকটা এরকম ,

    drugs

    ফলে মাদক মানচিত্রে নতুন সংযোজন পশ্চিমবঙ্গ। চলতি মাসেই কলকাতা ও শহরতলি থেকে মাদক চক্রের সঙ্গে যুক্ত বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার হয়েছে।

    ৭ জুন শিয়ালদহ স্টেশন থেকে  ৫ লক্ষ টাকা মূল্যের ব্রাউন সুগার উদ্ধার করা হয় ৷ ১৪ জুন গাঁজা, কোকেন, ব্রাউন সুগার সহ হাওড়া থেকে গ্রেফতার হয় এক মাদক পাচারকারী ৷ ২৮ জুন, ২৬ কেজি গাঁজা সহ পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন দু’জন ৷ এরপর আবার ৩০ জুন, ১১ কেজি গাঁজা সহ একবালপুর থেকে গ্রেফতার হয় আরও এক মাদক পাচারকারী ৷

    ধৃতদের জেরা করে তদন্তকারীদের হাতে উঠে এসেছে চমকে যাওয়ার মতো তথ্য।

    কলকাতা পাচারকারীদের কাছে হয়ে উঠছে সেফ ডেস্টিনেশন ৷ মূলত বিহার, ঝাড়খণ্ড ও মণিপুর থেকে মাদক ঢুকছে এ রাজ্যে ৷ জনবহুল এলাকাকে বেছে নিচ্ছে পাচারকারীরা ৷ নতুন গ্রাহক ধরতে স্কুল, কলেজ, খেলার মাঠ, আইটি সেক্টরে ফাঁদ পাতা হচ্ছে ৷ নতুন সেশন শুরু হওয়ার পর টার্গেট করা হচ্ছে স্কুল-কলেজের নতুন পড়ুয়াদের  ৷ সমাবর্তন থেকে কলেজের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে পড়ুয়াদের মধ্যে মিশে যাচ্ছে পাচারকারীরা ৷  পুলিশের তথ্য বলছে, জুন থেকে অক্টোবর মাসে পাচারকারীদের আনাগোনা সব থেকে বেশি ৷

    মাদক কারবারে রাশ টানতে তৎপর পুলিশ-প্রশাসন। সতর্ক করা হচ্ছে সীমান্তবর্তী জেলাগুলিকেও। পুলিশের তৎপরতায় পাল্টা নতুন নতুন কায়দায় জাল ছড়াচ্ছে পাচারকারীরা।

    স্পেশাল রিপোর্ট- আবির দত্ত

    First published: