• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • মাদকাসক্ত শ্যালককে বোঝাতে গিয়ে আত্মঘাতী শ্যালক! আহত জামাইবাবুও

মাদকাসক্ত শ্যালককে বোঝাতে গিয়ে আত্মঘাতী শ্যালক! আহত জামাইবাবুও

প্রথমে সামনে থাকা জামাইবাবুকে আহত করার চেষ্টা করেন জুনিদ। মহম্মদ আরসাদের সামান্য রক্তক্ষরণ হওয়ার পরেই ভিকি নিজের গায়ে ছুড়ি দিয়ে আঘাত করা শুরু করে।

প্রথমে সামনে থাকা জামাইবাবুকে আহত করার চেষ্টা করেন জুনিদ। মহম্মদ আরসাদের সামান্য রক্তক্ষরণ হওয়ার পরেই ভিকি নিজের গায়ে ছুড়ি দিয়ে আঘাত করা শুরু করে।

প্রথমে সামনে থাকা জামাইবাবুকে আহত করার চেষ্টা করেন জুনিদ। মহম্মদ আরসাদের সামান্য রক্তক্ষরণ হওয়ার পরেই ভিকি নিজের গায়ে ছুড়ি দিয়ে আঘাত করা শুরু করে।

  • Share this:

     Susovan Bhattacharjee

    #কলকাতা: দীর্ঘদিনের সমস্যার অন্যতম কারন মাদক। বারংবার মানা করা সত্বেও রাশ টানা যাচ্ছিল না মাদকে। বছর একুশের জুনিদ আহমেদ হরফে ভিকিকে নিয়ে সমস্যা ছিল তার পরিবারের। বেনিয়াপুকুর থানা এলাকার রামমোহন বেরা লেনের বাসিন্দা ভিকির বাড়িতে এই নিয়ে অশান্তি লেগেই থাকত। সোমবার বিকালে ভিকির জামাইবাবু মহম্মদ আরসাদ ওই বাড়িতে এসে বারংবার ভিকিকে বোঝানোর চেষ্টা করেন। প্রথমে তাঁর কথায় কর্ণপাত না করলেও পরে, ভিকি সেই কথা শোনে।

    কিন্তু কিছুক্ষণ পর ফের বিরক্তি প্রকাশ করতে শুরু করে ভিকি। অভদ্র আচরণ শুরু করে । নিজের ঘরের মধ্যে থাকা ছুড়ি হাতের সামনে পেয়ে আরও ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে জুনিদ। প্রথমে সামনে থাকা জামাইবাবুকে আহত করার চেষ্টা করেন জুনিদ। মহম্মদ আরসাদের সামান্য রক্তক্ষরণ হওয়ার পরেই ভিকি নিজের গায়ে ছুড়ি দিয়ে আঘাত করা শুরু করে। এতটাই ভয়ঙ্কর আঘাত করা শুরু করে যে, নিজের পেটে নিজেই ছুড়ি চালিয়ে আত্মঘাতী হয়। বাড়ির অন্য সদস্যদের নজরে আসতেই জামাইবাবুকে ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজে ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।  অন্যদিকে ভিকি ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

    পরিবার সূত্রে খবর, বারবার মানা করা হলেও কথা শুনত না ভিকি। টাকা না পেলে বাড়ির সদস্যদের হুমকি দিত সে। এই ঘটনার পরে দেহ উদ্ধার করে বেনিয়াপুকুর থানা। পরিবারের বিভিন্ন সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে মৃত্যুর প্রকৃত কারন জানার চেষ্টা করেছে বেনিয়াপুকুর থানার পুলিশ।

    Published by:Simli Raha
    First published: