Home /News /kolkata /
Dilip Ghosh Vs Babul Supriyo: বালিগঞ্জে কম ভোট, নেপথ্যে নাকি স্বয়ং বাবুল সুপ্রিয়! দিলীপ ঘোষের মন্তব্যে শোরগোল

Dilip Ghosh Vs Babul Supriyo: বালিগঞ্জে কম ভোট, নেপথ্যে নাকি স্বয়ং বাবুল সুপ্রিয়! দিলীপ ঘোষের মন্তব্যে শোরগোল

যুযুধান

যুযুধান

Dilip Ghosh Vs Babul Supriyo: বাবুল সুপ্রিয়কে কটাক্ষ করে দিলীপ ঘোষ বলেন, ''প্রথম বার উনি কি ভোটে লড়ছেন? প্রত্যেক বারই এপ্রিল মে মাসে ভোট হয়। পঞ্চাশ শতাংশের বেশি ভোট পড়ে পশ্চিমবঙ্গে। চল্লিশ পার্সেন্ট ভোট পড়েছে। হয় ওঁকে লোকেরা পছন্দ করছে না।''

আরও পড়ুন...
  • Share this:

    #কলকাতা: তিনি মানেই শাসক দলকে বেলাগাম আক্রমণ। শনিবারও সেই ধারার অন্যথা হল না। তৃণমূলকে একাধিক ইস্যুতে আক্রমণ শানালেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। কী বললেন তিনি, দেখে নিন এক নজরে...

    দুটি কেন্দ্রে উপনির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা আজ। এই নিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, আমরা লড়াই করেছি। যেভাবে ভয় দেখানো হয়েছে, প্রার্থীদের মারা হয়েছে, আটকানো হয়েছে, ভোটের পরিবেশ ছিল না। বেশিরভাগ ভোটার বুথ মুখী হননি। এটা পশ্চিমবঙ্গের ভোটের পার্সেনটেজ নয়। সাধারণ মানুষ গণতান্ত্রিক পরিবেশ পাচ্ছে না, তাই গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে যাচ্ছেন না। আর সেই অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার দায়িত্ব রাজ্য সরকারের।

    বাবুলের মন্তব্য লেটস এনজয় দ্য ডে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, প্রথম বার উনি কি ভোটে লড়ছেন? প্রত্যেক বারই এপ্রিল মে মাসে ভোট হয়। পঞ্চাশ শতাংশের বেশি ভোট পড়ে পশ্চিমবঙ্গে। চল্লিশ পার্সেন্ট ভোট পড়েছে। হয় ওঁকে লোকেরা পছন্দ করছে না। ভেবেছিলাম সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের রেকর্ড ভাঙবেন। জানি না কী করতে পারবেন উনি। মানুষ ওঁকে স্বীকারই করেননি, ওই জন্য ভোট দিতে যাননি।

    আরও পড়ুন: আসানসোলে পিছিয়ে পড়েছেন, তার আগেই আশঙ্কার কথা জানালেন অগ্নিমিত্রা পাল! কী ঘটল?

    আলিয়ার এক্টিং ভিসি নিয়োগ প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, সব জায়গায় নিজেদের লোক বসাতে গিয়ে সমস্ত শিক্ষাঙ্গনগুলো নষ্ট করছে রাজ্য সরকার। শিক্ষার স্তর নেমে যাচ্ছে, বিশৃঙ্খলা তৈরি হচ্ছে। ছাত্ররা প্রতিবাদ করবে। এরকম সিদ্ধান্ত ঠিক নয়। আমরা সুযোগ দিলেই তারা প্রতিবাদে নেমে যাবে বিশৃঙ্খলা তৈরি হবে। শিক্ষাঙ্গনে যদি বিশৃঙ্খলা তৈরি হয়, তাহলে শিক্ষার পরিবেশ তৈরি হবে কীভাবে। সরকার সবকিছু কব্জা করার তালে আছে, এইজন্য সব জায়গায় গন্ডগোল শুরু হচ্ছে। অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগ করা হয়েছে শুধুমাত্র কব্জা করার জন্য। আর অযোগ্য লোকেদের বসানো হলেই এই ধরনের বিশৃঙ্খলা তৈরি হবে। সরকারের এখনও সময় আছে, ভাবা উচিত। সেই কারণে এরকম বিশৃঙ্খলা তৈরি হচ্ছে।

    আরও পড়ুন: শীর্ষে বাবুল, বালিগঞ্জে বামেদের চমকপ্রদ উত্থান, চতুর্থ হওয়ার আশঙ্কায় বিজেপি!

    একবালপুর ভুকৈলাসে নাবালিকাকে যৌন নিগ্রহ। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সকালবেলা এসব শুনে মনটা খারাপ হয়ে যায়। টিভি খুললেই এ ধরনের খবর আসে। আমরা কেন সকালটা শুরু করব এই ধরনের খবর শুনে। আট, নয় বছরের মেয়েরাও এখানে সুরক্ষিত নয়। মহিলা মুখ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে আমরা কী পাচ্ছি, এটা তো আমাদের দুর্ভাগ্য। রোজ এই খবর শুনতে হচ্ছে। যারা এইধরনের কাজে লিপ্ত হচ্ছে, তাদের ভয়ডর বলে কিছু নেই। আর মুখ্যমন্ত্রী যখন এই ধরনের দুষ্কৃতীদের বাঁচাতে যান, তখন সমস্যা শুরু হয়।

    Published by:Suman Biswas
    First published:

    Tags: Babul supriyo, Dilip Ghosh

    পরবর্তী খবর