• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • DILIP GHOSH REACTION AFTER HIS MEETING WITH J P NADDA IN DELHI SANJ

Dilip Ghosh : 'প্রয়োজনে দল ব্যবস্থা নেবে', নাড্ডা বৈঠক সেরে 'বেসুরোদের' বার্তা দিলীপ ঘোষের!

নাড্ডার দরবারে দিলীপ

রবিবার হওয়ার কথা ছিল দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) ও জে পি নাড্ডা (J P Nadda) বৈঠক। কিন্তু নানা কারণে গতকাল জেপি নাড্ডার সঙ্গে বৈঠকে বসতে পারেননি বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি : রবিবার হওয়ার কথা ছিল দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) ও জে পি নাড্ডা (J P Nadda) বৈঠক। কিন্তু নানা কারণে গতকাল জেপি নাড্ডার সঙ্গে বৈঠকে বসতে পারেননি বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। সোমবার রাজধানীতে সেই বহু প্রতীক্ষিত বৈঠক শেষে মুখ খুললেন দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির সঙ্গে বৈঠকে তিনি যে বেসুরো বিজেপি নেতাদের সম্পর্কে ‘নালিশ’ জানিয়েছেন, তা স্পষ্টভাবেই বলে দেন দিলীপবাবু। ‘ভিতরের কথা’ যাঁরা ‘বাইরে বলছেন’, তাঁরা আদতে দলের ক্ষতিই করছেন বলেও এদিন মন্তব্য করেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি (Dilip Ghosh) । প্রয়োজনে তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারিও দেন দিলীপ।

    খুব শীঘ্রই রাজ্য বিজেপিতে সাংগঠনিক রদবদলের সম্ভবনা রয়েছে। সেই আবহে নাড্ডা ও দিলীপের এই বৈঠক হওয়ায় নানা জল্পনা ছড়িয়েছিল রাজনৈতিক মহলে। সংগঠনের কোন কোন স্তরে বদল আনা হবে, বা কোথায় বদল প্রয়োজন, এসব নিয়ে আলোচনা হতে পারে, এমন ইঙ্গিত মিলেছিল। যদিও বৈঠক শেষে সাংগঠনিক রদবদল নিয়ে কোনও আলোচনা হয়নি বলে দাবি করেন দিলীপবাবু। তাহলে কী নিয়ে দীর্ঘ বৈঠক হল দু’জনের? দিলীপের কথায়, “নির্বাচনের ফলাফলের পর অনেক ঘটনা ঘটেছে। এখন মানুষ কী ভাবছে কর্মীদের মনোভাবও বা কী রকম, তাই নিয়ে আলোচনা হয়েছে।" আগামীদিনে দলের কীভাবে চলা উচিত, সেই সমস্ত বিষয় নিয়েও পর্যালোচনা হয়েছে বলে জানান দিলীপ ঘোষ।

    তবে বিজেপির অন্দরে থাকা বেসুরো এবং বিদ্রোহীদের নিয়ে যে দল এ বার কড়া অবস্থান নিতে পারে, তা আকারে-ইঙ্গিতে এ দিন স্পষ্ট করে দেন মেদিনীপুরের সাংসদ। এমনকী, এঁদের বিষয়ে জেপি নাড্ডার কাছেও যে তিনি ‘নালিশ’ করেছেন, তাও জানিয়েছেন দ্বর্থ্যহীন ভঙ্গিমায়। দিলীপের কথায়, “আমি বলেছি যে অনেকেই আছেন যাঁরা না বুঝে-শুনে কথা বলেন, এতে কর্মীদের মনোবল নষ্ট হয়। এটা বন্ধ হওয়া উচিত। অনেকেই এমন মন্তব্য বাইরে করে বসছেন যা ভিতরে করা উচিত। হতাশার কারণেই এসব মন্তব্য আসছে। প্রয়োজনে দল ব্যবস্থা নেবে।”

    স্পষ্ট ভাষায় দিলীপ বলেন, ‘শো-কজ নিয়ে দলের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি সিদ্ধান্ত নেবে। যাঁরা এরকম কথা বলছেন তাঁদের সঙ্গে কথাবার্তাও চলছে। বোঝানো হচ্ছে যাতে প্রকাশ্যে এই ধরণের কথা না বলেন। তারপরও যদি সংশোধিত না হন তাহলে আমাদের পার্টির শৃঙ্খলারক্ষার যে ব্যবস্থা রয়েছে তা কর্যকর হবে’।

    বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর এই প্রথম নড্ডার সঙ্গে বৈঠকে বসলেন দিলীপ ঘোষ। দিল্লি থেকে জরুরি তলব পেয়ে শনিবার রাতের বিমানেই রাজধানীতে পৌঁছন দিলীপ। কিন্তু রবিবার দিনভর দিলীপবাবুকে সময় দিতে পারেননি নড্ডা। সোমবার বিকেলে ২ জনের মধ্যে দীর্ঘ বৈঠক হয়। এরপরেই সাংবাদিকদের সামনে মুখ খোলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: